২২ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ফাইনালে ফ্রান্সের বিরুদ্ধে পর্তুগালের প্রতিশোধ মিশন

ফাইনালে ফ্রান্সের বিরুদ্ধে পর্তুগালের প্রতিশোধ মিশন

অনলাইন ডেস্ক॥ এটাই হয়তো ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর শেষ সুযোগ। দেশের হয়ে বড় কোনো আসরের শিরোপা জয়ের এমন সুযোগ আর নাও আসতে পারে। শিরোপা চাই তিনবারের বিশ্ব সেরা ফুটবলার রোনালদোর। কিন্তু তা করতে রবিবার প্যারিসে ইউরোর ফাইনালে ফ্রান্স কুফা কাটাতে হবে তাদের। নিতে হবে প্রতিশোধ। ফরাসিদের সাথে যে মোটেও পেরে ওঠে না পর্তুগিজরা! লড়াইটা তাই ইতিহাসের বিরুদ্ধেও।

ফ্রান্সের সামনে পড়লে হারতে হবে। ১৯৭৫ সালের পর এই যেন নিয়তি পর্তুগালের। সেবার ২-০ তে জিতেছিল পর্তুগাল। কিন্তু তার পর হেরেছে ১০ দেখায়। বড় আসরের তিন দেখায় বড় জয় আছে ফ্রান্সের।

১৯৮৪ সালের ইউরো। সেবারও ফ্রান্সে বসেছিল ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের আসর। স্বাগতিকরা জিতেছিল শিরোপা। মার্শেইয়ের নাটকীয় সেমিফাইনালে পর্তুগালের বিপক্ষে অতিরিক্ত সময়ে ৩-২ গোলে জেতে ফরাসিরা। মিশেল প্লাতিনি ১১৯ মিনিটে গোল করে দলকে নেন ফাইনালে। প্রথমবার তারা হয় ইউরোপের চ্যাম্পিয়ন।

২০০০ ইউরোর সেমিফাইনালটা পর্তুগিজদের জন্য ছিল আরো কষ্টের। সেবার শিরোপার স্বপ্ন দেখাচ্ছিল দেশটির সোনালী প্রজন্ম। ব্রাসেলসে গ্রেট লুই ফিগো, রুই কস্তারা লিড নিলেও হারতে হয়েছিল ২-১ গোলে। নুনো গোমেজ প্রথম গোল করলেন। কিন্তু থিয়েরি অঁরি সমতা আনলেন। এরপর অতিরিক্ত সময় শেষ হওয়ার তিন মিনিট আগে পেনাল্টি স্পট থেকে গোল করলেন কিংবদন্তি জিনেদিন জিদান। আবার স্বপ্নভঙ্গ পর্তুগালের।

২০০৪ ইউরোর ফাইনালে গিয়েও শিরোপা জিততে পারেননি রোনালদো। রোনালদো তখন ১৯ বছরের। কান্নায় ভেঙেছিলেন। তার আরো চোখের জল ২০০৬ বিশ্বকাপে মিউনিখের ঘাসের সাথে বিলিন হলো। সেমিফাইনালে আবার ফ্রান্স সামনে। এবার প্রথমার্ধে পেনাল্টি থেকে গোল করলেন জিদান। ওই গোলেই জিতে ফাইনালে গেলো ফ্রান্স। ইতালির কাছে হারলো ফাইনালে। মাতেরাজ্জিকে ঢুস মেরে জিদান লাল কার্ড দেখেছিলেন।

রোনালদো একটি শিরোপা চান। গোটা ক্যারিয়ারে পর্তুগালের সাথে যা জেতা হয়নি কখনো। পর্তুগালও ইউরো জেতেনি আগে। রোনালদো বলেছেন, রবিবারের ফাইনালে আনন্দাশ্রুতে ভাসতে চান। কিন্তু ফ্রান্সের বিপক্ষে সাম্প্রতিক ইতিহাসও তাদের পক্ষে কথা বলছে না। গত সেপ্টেম্বরে লিসবনে প্রীতি ম্যাচে ফরাসিদের কাছে হেরেছিল পর্তুগিজরা। ২০১৪ এর অক্টোবরেও প্যারিসের এই স্তাদ দি ফ্রান্সে স্বাগতিকদের কাছে ২-১ গোলে হারে পর্তুগাল। এবারের ফাইনালটা তাই রোনালদোদের জন্য ইতিহাস বদলে দেওয়ার কঠিন প্রতিশোধ মিশন।