২১ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

শত চেষ্টায়ও বাঁচানো গেল না অগ্নিদগ্ধ শিশু মাইশাকে

স্টাফ রিপোর্টার ॥ চিকিৎসকদের সব চেষ্টা ব্যর্থ করে দিয়ে অবশেষে না ফেরার দেশে পাড়ি জমিয়েছে মারাত্মক দগ্ধ শিশু মেহনাজ হাসান মাইশা (১০)। শুক্রবার সকাল ৮টার দিকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন তার মৃত্যু হয়। উত্তরার রাজলক্ষ্মী এলাকায় আলাউদ্দিন মার্কেটে লিফট ছিঁড়ে পড়ার ঘটনায় মাইশার পিতা মাহমুদুল হাসানও (৩৬) অগ্নিদগ্ধ হয়ে মারা যান। এ ছাড়া তার ছোট ভাই মোমতাকিনের (৮ মাস) দেহের ২৩ শতাংশ পুড়ে গেছে।

ঢামেক হাসপাতালের বার্ন ইউনিটের চিকিৎসক ওয়াহেদ মোরশেদ জানান, শুক্রবার সকাল ৮টার দিকে চিকিৎসাধীন মাইশার মৃত্যু হয়। তার দেহের প্রায় ৫০ শতাংশই পুড়ে গিয়েছিল। একই ঘটনায় তার ছোট ভাই মোমতাকিনের দেহের ২৩ শতাংশ পুড়ে গেছে। সে এখন ঢামেক হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন। তার অবস্থাও আশঙ্কাজনক। নিহত মাইশার গ্রামের বাড়ি বগুড়া জেলার সারিয়াকান্দি উপজেলায়।

এদিকে উত্তরায় আলাউদ্দিন মার্কেটের লিফট ছিড়ে ভয়াবহ অগ্নিকা-ের ঘটনায় এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা ৮-এ দাঁড়িয়েছে। এর আগে নিহত ৭ জনের মধ্যে ৬ জনের নাম-পরিচয় জানা গেছে। এরা হচ্ছেন রেজাউল করিম রানা (৩২), সালমা আক্তার (৪০), কামরুন্নাহার লতা (৩০), মিজানুর রহমান (৫৩), জসিম উদ্দিন রফিক (৩৫) ও মাহমুদুল হাসান ।

নিহতের পরিবার জানান, গত মাসের ২৫ জুন ইফতারের আগে রাজধানীর উত্তরার রাজলক্ষ্মী এলাকায় আলাউদ্দিন মার্কেটের লিফট ছিঁড়ে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় মারাত্মক দগ্ধ হয় শিশু মাইশা। তার দেহের প্রায় ৫০ শতাংশই পুড়ে গিয়েছিল। মাইশা মাইলস্টোন স্কুলের ৪র্থ শ্রেণীর ছাত্রী ছিল।