১৮ নভেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নওগাঁয় চাঁদা না দেয়ায় সংখ্যালঘু ব্যবসায়ীকে হত্যার চেষ্টা॥ মারপিট, নারীর শ্লীলতাহানী!

নিজস্ব সংবাদদাতা, নওগাঁ ॥ শনিবার সন্ধ্যায় নওগাঁর রানীনগর উপজেলার বেলঘড়িয়া বাজারে চাঁদা না পেয়ে সংখ্যালঘু ওয়ার্কসপ ব্যবসায়ী সুচন্দ্র মন্ডলকে হত্যার চেষ্টা, মারপিট, লুটপাটসহ নারীর শ্লীলতাহানীর ঘটনা ঘটিয়েছে এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী চাঁদাবাজরা। রবিবার দপিরি সাড়ে ১২টায় সুচন্দ্র মন্ডলের পুত্র সমর বাদী হয়ে সন্ত্রাসী চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে রানীনগর থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, রানীনগর উপজেলার কাচারী বেলঘড়িয়া গ্রামের সংখ্যালঘু ওয়ার্কসপ ব্যবসায়ী সুচন্দ্র মন্ডলের কাছে শনিবার সন্ধ্যায় একই গ্রামের সন্ত্রাসী চাঁদাবাজ আনোয়ার, লুৎফর ও আসাদুল ওরফে হুপা লাঠি-সোটা, রডসহ দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে বাজারে তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে এসে ৫০হাজার টাকা চাঁদা দাবী করে। সুচন্দ্র এই চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানালে, ‘হিন্দুর বাচ্চাকে শেষ করে দে’ এমন কথা বলে সন্ত্রাসী আনোয়ারের নেতৃত্বে সুচন্দ্রের মাথায় আঘাত করে হত্যার চেষ্টা করা হয়। সেইসঙ্গে সুচন্দ্রের পুত্র শ্যামলকে এলোপাথারী মারপিট করা হয়। খবর পেয়ে পার্শ্ববর্তী বাড়ি থেকে তার স্ত্রী মাধবী রানী স্বামী ও পুত্রকে বাঁচাতে এগিয়ে এলে তাকেও মারপিটসহ বিবস্ত্র করে শ্লীলতাহানী ঘটানো হয়। তাদের চিৎকারে বাজারের অন্যরা এগিয়ে এলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন আহতদের উদ্ধার করে রানীনগর হাসপাতালে ভর্তি করে দেয়। সুচন্দ্র রানীনগর হাসপাতালে গুরুতর অবস্থায় চিকিৎসাধীন রয়েছে। এদিকে ওইসব সন্ত্রাসী চাঁদাবাজরা নিজেদের ক্ষমতাসীন দলের নেতা-কর্মী দাবী করে স্থানীয় সংখ্যালঘু হিন্দুদের বিভিন্নভাবে হুমকি-ধামকি অব্যাহত রেখেছে বলে স্থানীয়রা অভিযোগ করেছেন।