১৮ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

আদালতের ভোট পুনঃগণনার আদেশ উপেক্ষিত

  • সাঘাটায় ইউপি নির্বাচন

নিজস্ব সংবাদদাতা, গাইবান্ধা, ১০ জুলাই ॥ সাঘাটা উপজেলার হলদিয়া ইউনিয়নের ষষ্ঠ দফা ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদের ফলাফলে ব্যাপক কারচুপির অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে সুপ্রীম কোর্টের হাইকোর্ট ডিভিশনের রিট পিটিশনের প্রদত্ত রায়ে ১৫ দিনের মধ্যে ভোট পুনঃগণনার আদেশ দেয়া হয়েছে। অথচ সাঘাটা উপজেলা রিটার্নিং অফিসার ও নির্বাচন অফিসার তা বাস্তবায়ন করছেন না। রবিবার গাইবান্ধা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে অবিলম্বে ভোট পুনঃগণনাসহ এর প্রতিকার দাবি করেছেন নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী মোঃ রফিকুল ইসলাম ম-ল। সংবাদ সম্মেলনে উল্লেখ করা হয়, গত ৪ জুন অনুষ্ঠিত ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী রফিকুল ইসলাম ম-ল এক হাজার ৯শ’ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়।

কিন্তু হলদিয়া ইউনিয়নের চর হলদিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, চরগোবিন্দপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, নলছিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও উত্তর দিঘলকান্দি বন্যা আশ্রয় কেন্দ্রে ভোট কারচুপির মাধ্যমে তার ভোট কম করে এক হাজার ৬শ’ ২ ভোট দেখানো হয়।

বেআইনিভাবে তার নিকটতম স্বতন্ত্র প্রার্থী ইয়াকুব আলীকে এক হাজার ৭শ’ ভোট পাওয়া সত্ত্বেও প্রিসাইডিং অফিসার ও রিটার্নিং অফিসারের যোগসাজশে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। এ ব্যাপারে সাঘাটা উপজেলা রিটার্নিং অফিসারের কাছে লিখিতভাবে ভোট পুনঃগণনার আবেদন করা হলেও তা প্রত্যাখ্যান করা হয়। অবশেষে বাধ্য হয়ে রফিকুল ইসলাম ম-ল গত ১৩ জুন সুপ্রীম কোর্টের হাইকোর্ট ডিভিশনে রিট পিটিশন দাখিল করেন।

কাওড়াকান্দি ঘাটে এবার ভিন্ন চিত্র

নিজস্ব সংবাদদাতা, মাদারীপুর, ১০ জুলাই ॥ পাল্টে গেছে দৃশ্যপট। ঈদের ছুটি শেষে গত দুই দিন ধরে রাজধানী ঢাকায় ফিরছে দক্ষিণাঞ্চলের ২১ জেলার মানুষ। রাজধানী ঢাকার সঙ্গে যোগাযোগের অন্যতম ব্যস্ত নৌপথ মাদারীপুর জেলার শিবচরের কাওড়াকান্দি-শিমুলিয়া নৌরুটে যাত্রীদের ভিড় নেই। টানা ৯ দিনের ছুটি আর সরকারের সময়োচিত পদক্ষেপের কারণে এবার ঈদে যাতায়াতে নেই কোন বিড়ম্বনা। যাত্রী হয়রানি, সড়ক-মহাসড়কে যানজট এসবের কিছুই নেই। বিগত বছরগুলোর মতো কাওড়াকান্দি ঘাটে সেই চিরচেনা ভিড় আর ব্যস্ততার দৃশ্য চোখে পড়ে না। পরিবহনের জন্য যাত্রীদের অপেক্ষা নেই, পরিবহন রয়েছে যাত্রীদের অপেক্ষায়। এ দৃশ্য সাধারণত দেখা যায় না। তবে এ দৃশ্য মুহূর্তে পাল্টে যেতে পারে। কাওড়াকান্দি-শিমুলিয়া নৌরুটে লঞ্চঘাট ও স্পিডবোট ঘাটের চিত্র ভিন্ন হলেও কোন তাড়াহুড়ো নেই।