১৭ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

প্রেমিক পুলিশের হাতে প্রাণ গেল কলেজ ছাত্রী প্রেমিকার

নিজস্ব সংবাদদাতা, গোপালগঞ্জ, ১০ জুলাই ॥ প্রেমিক পুলিশের সঙ্গে দেখা করতে এসে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের ওপর ধস্তাধস্তি ও টানাহেঁচড়ায় বাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে প্রাণ গেল প্রেমিকার। রবিবার বিকেল পৌনে ৪টার দিকে শহরের বেদগ্রাম এলাকায় জিমনেসিয়াম উইমেন স্পোর্টস কমপ্লেক্সের সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত প্রেমিকার নাম সাবিনা ইয়াসমিন সুমী (২০)। সে ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলার আড়পাড়া গ্রামের হাবিবুর রহমানের মেয়ে এবং স্থানীয় মহিলা কলেজের বিএ সম্মানের ছাত্রী। এ ঘটনায় গোপালগঞ্জ পুলিশ লাইন্সের কনস্টেবল সুমীর প্রেমিক তুহিন এবং তার অপর দুই সহকর্মী কনস্টেবল মামুন ও মহেনকে পুলিশের হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, তুহিন তার দুই সহকর্র্মীর সহায়তায় প্রেমিকা সুমীকে জিমনেসিয়াম ও উইমেন স্পোর্টস কমপ্লেক্সের ভেতরে নিয়ে যাওয়ার জন্য মহাসড়কের ওপর জোর-জবরদস্তি করতে থাকে। তাদের মধ্যে ধস্তাধস্তি ও টানাহেঁচড়ার সময় দ্রুতগামী পরিবহন বাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে সুমী ঘটনাস্থলেই নিহত হন। এর পরপরই ওই তিন পুলিশ-কনস্টেবল ঘটনাস্থল থেকে দ্রুত পালানোর চেষ্টা করলে স্থানীয়রা তাদের আটক করে। পুলিশ তাদের উদ্ধার করে সদর থানায় নিয়ে যায়। নিহত সুমীর বড় বোন খুরশিদা বেগম মোবাইল ফোনে জানান, তার ছোট বোন সুমীর সঙ্গে গোপালগঞ্জ পুলিশ লাইন্সে চাকরিরত পুলিশ-কনস্টেবল মাগুরা জেলার মোহাম্মদপুর উপজেলার মাধবহাট গ্রামের তুহিনের ৪-৫ বছর ধরে প্রেমের সম্পর্কে চলছিল।

গোপালগঞ্জের এএসপি (সার্কেল) আমিনুল ইসলাম জানান, তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক ছিল বলে জানতে পেরেছি। ইতোমধ্যে একটি তদন্ত টিম গঠন করা হয়েছে। ওই টিম বিষয়টি খতিয়ে দেখছে।

চট্টগ্রামে ভারতীয় নাগরিক গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ দীর্ঘদিন ধরে বাংলাদেশে আত্মগোপনে থাকা ভারতীয় নাগরিককে গ্রেফতার করেছে চট্টগ্রাম জেলার বোয়ালখালী থানা পুলিশ।

গ্রেফতার ভারতীয় এ নাগরিকের নাম রণধীর দাশগুপ্ত। রবিবার দুপুরে চট্টগ্রাম নগরীর লালদিঘির মোড় এলাকায় অবস্থিত পেট্রোল পাম্পের সামনে থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

বোয়ালখালী থানার ওসি সালাউদ্দিন জানান, রণধীর ১৯৯৫ সালে ৫ দিনের ট্যুরিস্ট ভিসা নিয়ে বাংলাদেশে আসেন। ভিসার মেয়াদ শেষ হলেও তিনি বাংলাদেশে অবৈধভাবে অবস্থান করে বোয়ালখালীসহ বিভিন্ন স্থানে অপরাধ কর্মকা- করছিলেন। এর আগেও তাকে একবার গ্রেফতার করে ভারতীয় পাসপোর্ট জব্দ করা হয় বলে তিনি জানান। ওসি বলেন, তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এছাড়া তার নামে আগে থেকে থানায় ২টি মামলা, ১টি অভিযোগ ও ১টি সাধারণ ডায়েরি দায়ের ছিল।