১৭ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

জঙ্গীবাদ রুখতে সব দল নিয়ে ঐক্যবদ্ধ প্লাটফর্ম চাই ॥ মওদুদ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বিএনপিকে বাদ দিয়ে জাতীয় ঐক্য হতে পারে না মন্তব্য করে দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেছেন, জঙ্গীবাদ রুখতে সব রাজনৈতিক দল ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের নিয়েই ঐক্যবদ্ধ প্লাটফর্ম করতে হবে। রবিবার রাতে রাজধানীর স্বামীবাগ ইসকনে জগন্নাথদেবের রথযাত্রা মহোৎসব উপলক্ষে আয়োজিত এক ধর্মসভায় তিনি এসব কথা বলেন।

মওদুদ বলেন, আজ দুর্ভাগ্যজনক হলেও সত্য আমাদের দেশে কিছু কিছু ঘটনা ঘটছে, যা আমরা প্রত্যাশা করিনি। কিছু মানুষ বিভ্রান্ত হয়ে আমাদের দেশকে অস্থিতিশীল করার প্রচেষ্টায় মগ্ন আছে। এ ব্যাপারে আমাদের সকলকে সচেতন ও সক্রিয় থাকতে হবে, যাতে করে জঙ্গীবাদ ও উগ্রবাদের উত্থান দেশে না হয়। আমরা মনে করি, দেশে যদি গণতান্ত্রিক অধিকার না থাকে, সমান অধিকার না থাকে, একদলীয় শাসনের বলয়ে রাষ্ট্র পরিচালনা করা হয়, তাহলে সেখানে জঙ্গীবাদ ও উগ্রবাদের উত্থান অবধারিত।

মওদুদ বলেন, আজ আমাদের দেশে জঙ্গীবাদ ও উগ্রবাদ উত্থানের ফলে যে অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে, সেটা ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি বলে আমরা মনে করি। জঙ্গীবাদ ও উগ্রবাদ রুখতে সরকারের কাছে আমাদের নেত্রী খালেদা জিয়া জাতীয় ঐক্যের আহ্বান জানিয়েছেন। আবার সরকারও ঐক্যের কথা বলছে। কিন্তু বিএনপিকে ছাড়া সরকার কিভাবে ঐক্য করবে।

মওদুদ বলেন, যদি দেশে জনপ্রতিনিধিত্বশীল ও জবাবদিহিমূলক সরকার থাকে তাহলে জঙ্গীবাদের পতন হতে বাধ্য। তিনি বলেন, বিএনপি কোন প্রকারের সাম্প্রদায়িকতায় বিশ্বাস করে না। আমরা সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতিতে বিশ্বাস করি। বিএনপি সরকারে থাকাকালে দেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় ছিল। আমরা যখন ক্ষমতায় ছিলাম, তখন সকল সম্প্রদায়ের লোক বিশেষ করে হিন্দু সম্প্রদায়ের লোক শান্তিতে ও নিরাপদে ছিল। আমরা সেই অবস্থাতে ফিরে যেতে চাই।

স্বামীবাগ আশ্রমের সেবায়েত যশোদানন্দন আচার্যের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা নিতাই রায় চৌধুরী, জয়ন্ত কুমার কু-ু, স্থানীয় কমিশনার তরিকুল ইসলাম টিপু, ইসকনের সাবেক সাধারণ সম্পাদক কৃষ্ণ কীর্তন দাশ ব্রহ্মচারী প্রমুখ।

জঙ্গীবাদ নির্মূলে জাতীয় ঐক্যের আহ্বানে সাড়া দিচ্ছে না সরকার. রিজভী ॥ জঙ্গীবাদ নির্মূলের নামে সরকার বিএনপির অস্তিত্ব নির্মূলের চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। রবিবার দুপুরে নয়াপল্টনের বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরও বলেন, জঙ্গীবাদ দমনে সরকার জাতীয় ঐক্যের আহ্বানে সাড়া দিলে সম্মিলিত প্রচেষ্টায় এ সঙ্কট সমাধান সম্ভব। কিন্তু সরকার এ সঙ্কটের সমাধান চায় না। তাই তারা জাতীয় ঐক্যের আহ্বানে সাড়া দিচ্ছে না।

রিজভী বলেন, সন্ত্রাস আর হরিলুটের অর্থনীতিতে সরকার টিকে থাকতে চায়। তাই উগ্রবাদী সন্ত্রাসীদের শিকড় সন্ধান ও নির্মূলের কোন দৃষ্টান্ত দেখাতে পারেনি। তারা দোষারোপের খেলা অব্যাহতভাবে চালিয়ে যাচ্ছে। জঙ্গীবাদের কথা মুখে বললেও ইচ্ছা করে জঙ্গী ইস্যু জিইয়ে রাখছে, যাতে জনগণ তাদের পদত্যাগের বিষয়টি আলোচনায় না আনে।

রিজভী বলেন, জঙ্গীবাদী কর্মকা- ইসলামের পথ নয় বলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে মন্তব্য করেছেন তার সঙ্গে বিএনপিও একমত। তবে প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমরা প্রশ্ন রাখতে চাই, ক্রসফায়ারের নামে বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের হত্যা করা কিসের পথ? নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবি উঠলেই দেখে নেব, কাউকে ছাড় দেয়া হবে না প্রতিনিয়ত এসব হুমকি কিসের পথ? তিনি বলেন, শাসক দল কখনই গণতন্ত্রের পথে পা দেবে না।

নির্বাচিত সংবাদ