১৫ নভেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

লালন ব্যান্ডের এ্যালবাম ‘সাদাকালো’

লালন ব্যান্ডের এ্যালবাম ‘সাদাকালো’

স্টাফ রিপোর্টার ॥ দেশের অন্যতম ব্যান্ড লালন দীর্ঘদিন পর বাজারে আনল নতুন এ্যালবাম। যদিও কথা ছিল একসঙ্গে দলটি দুটি এ্যালবাম প্রকাশ করবে। ব্যান্ড লিডার ড্রামার থিন হান মং জানান, পূর্বের ঘোষণা অনুযায়ী এ বছরের ১৮ জানুয়ারি থেকে আমাদের চতুর্থ এ্যালবাম ‘সাদাকালো’ গান মিউজিক স্ট্রিমিং এ্যাপে পাওয়া যাচ্ছে। যে কোন এ্যানড্রোয়েড ফোনের প্লে স্টোর থেকে গানএ্যাপটি ফ্রি ডাউন লোড করে ‘সাদাকালো’ এ্যালবামের সদ্য প্রকাশিত আটটি গান শোনা যাবে। ‘সাদাকালো’ গানটির একটি সাদামাটা ভিডিও ইউটিউবে প্রকাশ করা হয়েছে। ১ ফেব্রুয়ারি থেকে ‘ইচ্ছে থাকে যদি’ গানটির ভিডিও ইউটিউবে পাওয়া যাবে। তিনি আরও জানান, গানগুলো খুব শীঘ্রই সিডি আকারে প্রকাশ করা হবে এবং এর এমপি থ্রি ব্যান্ড লালনের ওয়েবসাইটে বিনামূল্যে পাওয়া যাবে। গানের সর্বাধিক প্রচার এবং শ্রোতাদের গান শোনা সহজ করার জন্যই ব্যান্ড লালন এভাবে গানগুলো ফ্রি দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সঙ্গীতকে স্পন্সর, পৃষ্ঠপোষক বা বিজ্ঞাপন নির্ভরতা কমাতে এটি একটি কৌশলও বটে, এক কথায় শিল্পের স্বাধীনতা। তিনি বলেন, ব্যান্ডের ৫ম এ্যালবাম ‘বাউল অব বেঙ্গল’ একসঙ্গে রিলিজ দেয়ার কথা থাকলেও দুটি এ্যালবামের ভিন্ন বৈশিষ্ট্য তুলে ধরতে কিছুদিন পর এর প্রকাশনা করা হবে। একইভাবে এই এ্যালবামের গানগুলো গানএ্যাপে পাওয়া যাবে। ‘সাদাকালো’ এ্যালবামটি সম্পূর্ণ মৌলিক গানের ও সমসাময়িক সামাজিক বাস্তবতা নিয়ে তৈরি করা, এতে রয়েছে আটটি গান। ‘বাউল অব বেঙ্গল’ এ থাকবে পৃথিবী খ্যাত বাংলাদেশের পাঁচজন বাউল সাধকের মোট নয়টি গানের সঙ্কলন।

ব্যান্ড লালন ২০০৭ সালে ‘বিপ্রতিপ’ এ্যালবাম প্রকাশের মাধ্যমে ঢাকায় যাত্রা শুরু করে। দলটি যথাক্রমে ‘ক্ষ্যাপা’ (২০১০), ‘পাগল’ (২০১২) ও ‘সাদাকালো’ (২০১৮) এই চারটি এ্যালবাম প্রকাশ করে। পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে বাংলা ভাষাভাষী শ্রোতাদের মধ্যে গানগুলো শ্রোতাপ্রিয়তা পায়। এর ফলে বিশেষ করে তরুণ প্রজন্মের মধ্যে ঐতিহ্যবাহী বাউল গানের চর্চা বৃদ্ধি পায়। এই অসামান্য সাফল্যের জন্য আমরা গানের ভক্তদের কাছে চিরঋণী।

‘সাদাকালো’ এ্যালবামে যে গান রয়েছে এগুলো হচ্ছে-‘ইচ্ছে থাকে যদি’, ‘সাদাকালো’, ‘কেউ বলে ভগবান’, ‘এলোমেলো’, ‘ফুটপাত’, ‘চাঁদের বাড়ি’, ‘বোকা সমাজ’ ও ‘ভুলে মায়া’। গানের রচয়িতা ও সুরকার হলেন- ইফতেখার হাসান (বাপ্পী), নিগার সুলতানা, সামিউল হক (সামি) ও আশিক।