১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

জামালপুরে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে রাস্তার গাছ কাটার অভিযোগ

জামালপুরে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে রাস্তার গাছ কাটার অভিযোগ

নিজস্ব সংবাদদাতা, জামালপুর ॥ জামালপুরের সরিষবাড়ী উপজেলা পিংনা ইউপি চেয়ারম্যান খন্দকার মোতাহার হোসেনের বিরুদ্ধে এলজিইডির রাস্তার দুই পাশের গাছ কেটে বিক্রি করে দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গাছ কাটা নিয়ে বিক্ষুব্ধ জনতার রোষাণলে পড়ে ওই ইউপি চেয়ারম্যান লাঞ্ছিত হওয়ার ঘটনাও ঘটেছে। সোমবার বিকেলে এ ঘটনা ঘটে। স্থানীয় গ্রামবাসী গাছ কেটে নেয়ার বিচারসহ ক্ষতিপূরণের দাবি জানিয়েছেন। এ নিয়ে এলাকায় তীব্র ক্ষোভ বিরাজ করছে। জানা গেছে, পিংনা ইউনিয়নের নরপাড়া থেকে ডুয়াইল কেন্দুয়া সেতু পর্যন্ত দুটি গ্রুপে প্রায় ১৫ কোটি টাকা ব্যয়ে এলজিইডির প্রায় ১৭ কিলোমিটার রাস্তার প্রশস্তকরণ কাজ চলছে। রাস্তার দুই পাশের বিভিন্ন ফলজ ও বনজ গাছের মালিক স্থানীয় জমির মালিকেরা। কিন্তু পিংনা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান খন্দকার মোহাতার হোসেন নিজ উদ্যোগ তার লোকজন নিয়ে কয়েকদিন ধরে গাছগুলো কেটে নিচ্ছেন। ওই রাস্তায় এলজিইডির বৃক্ষরোপণ কর্মসূচিও নেই। রাস্তা উন্নয়নের স্বার্থে দুই পাশের জমির মালিকেরাই নিজ উদ্যোগে গাছগুলো লাগায়। ইউপি চেয়ারম্যান প্রভাব খাটিয়ে নিজ উদ্যোগে গাছগুলো কেটে বিক্রি করে দেওয়ার ঘটনা জানাজানি হওয়ায় স্থানীয়দের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। এলজিইডির সরিষাবাড়ী উপজেলা প্রকৌশলী মুহাম্মদ শফিউল্লাহ খন্দকার মঙ্গলবার দুপুরে জনকণ্ঠকে বলেন, পিংনা ইউনিয়নের নরপাড়া থেকে ডুয়াইল কেন্দুয়া সেতু পর্যন্ত রাস্তা প্রশস্তকরণ কাজ শুরু হয়েছে। রাস্তার দুই পাশের জমির মালিকদের নিজ উদ্যোগ গাছগুলো কেটে নেয়ার জন্য বলা হয়েছে। ওই ১৭ কিলোমিটার রাস্তায় এলজিইডির বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি থাকলে নীতিমালা অনুযায়ী শতকরা ৩০ ভাগ গাছের মূল্য ইউনিয়ন পরিষদের তহবিলে জমা হবে। যেহেতু ওই রাস্তায় এলজিইডির বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি নেই। তাই ইউনিয়ন পরিষদের সেখানে গাছ কাটার কোনো এখতিয়ারও নেই।