২২ জুন ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কাল থেকে ঢাকা-লন্ডন সরাসরি কার্গো বিমান চলাচল শুরু

কাল থেকে ঢাকা-লন্ডন সরাসরি কার্গো বিমান চলাচল শুরু

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ দুই বছর বন্ধ থাকার পর আগামীকাল বুধবার থেকে যুক্তরাজ্যের লন্ডনে কার্গো পরিবহন শুরু করতে যাচ্ছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস। এ জন্য যুক্তরাজ্যের কার্গো নিরাপত্তামান সনদ এসিসিথ্রি অর্জন করেছে রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন সংস্থাটি।

মঙ্গলবার রাজধানীর কুর্মিটোলায় বিমানের সদর দফতরে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়। সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ২০১৬ সালের ৮ মার্চ যুক্তরাজ্য সরকার বাংলাদেশ থেকে আকাশপথে কার্গো পরিবহনে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। এ কারণে বিমানের ঢাকা-লন্ডন পথে সরাসরি কার্গো পরিবহন বন্ধ হয়ে যায়। গত দুই বছরে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে কার্গো আমদানি ও রফতানি শাখায় ইউরোপীয় ইউনিয়নের নিরাপত্তা মান অনুযায়ী বিমানবন্দরের সার্বিক নিরাপত্তার মান বাড়াতে উদ্যোগ নেয়া হয়। সে অনুযায়ী ধারাবাহিকভাবে বেশ কিছু পদক্ষেপ নেয়া হয়। বিমানের মহাব্যবস্থাপক শাকিল মেরাজ বলেন, কার্গো পরিবহনে সব ধরনের নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার হয়েছে। আজ সকাল ১০টা ৪৫ মিনিটে বিজি ০০১ ফ্লাইটে করে ঢাকা থেকে লন্ডনে সরাসরি কার্গো পরিবহন শুরু হবে।

বিমানের এক প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বিমানবন্দরের সার্বিক নিরাপত্তার মান বৃদ্ধির লক্ষ্যে ব্যাপক উদ্যোগ নেয়া হয়েছে-যার আওতায় ইউরোপগামী কার্গো পণ্যেও সেকেন্ডারী স্ক্রিনিংয়ের এক্সপ্লোসিভ ডিটেক্টর সিষ্টেম (ইডিএস), এক্সপ্লোসিভ ডিটেকশন ডগ (ইডিডি), এক্সপ্লোসিভ ট্রেস ডিটেক্টও (ইডিটি) মেশিন স্থাপন করা হয়। ইউরোপগামী সকল কার্গো পণ্যের জন্য বিশেষভাবে সুরক্ষিত আরএ-৩ ওয়্যার হাউজ নির্মাণ করা হয়। এছাড়াও বিমানের কার্গো হ্যান্ডেলিং এ নিয়োজিত সকল কর্মীর পুলিশ ক্লিয়ারেন্স, ব্যাকগ্রাউন্ড চেক, ট্রেনিং রেকর্ড, বৈধ পাস, নিয়োগ সংক্রান্ত সকল তথ্য নিয়ে ডাটাবেজ তৈরি করা হয়েছে। কার্গো এলাকার সকল এন্ট্রি পয়েন্টে একসেস কন্ট্রোল সিস্টেম চালু করা হয়। বিমানবন্দর এপ্রোন এলাকায় ওয়ার হাউজ থেকে এয়ারক্রাফট কার্গো পরিবহন পর্যন্ত ২৪ ঘন্টা সার্বক্ষনিক এস্কর্ট প্রদানের জন্য ৫টি গাড়ী নিয়োজিত করা হয়েছে।

এছাড়া বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের কার্গো হ্যান্ডলিং এ নিয়োজিত কর্মীদের বৃটিশ নিরাপত্তা পরামর্শক প্রতিষ্ঠান রেড লাইনের সহায়তায় নিরাপত্তা প্রশিক্ষণের পাশাপাশি বিমানের নিজস্ব ট্রেনিং সেন্টার (বিএটিসি) কর্তৃক ‘কার্গো সিকিউরিটি কোর্স’, ডেঞ্জারাস গুডস রেগুলেশন্স কার্গো অপারেটিং কোর্স পরিচালনার মাধ্যমে কর্মীদের ব্যাপকভিত্তিক প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়। কার্গো হেলপার থেকে শুরু করে কার্গো ব্যবস্থপনায় নিয়োজিত নির্বাহীগণও প্রশিক্ষণের আওতায় আসে। নিরাপত্তা সংক্রান্ত সকল ম্যানুয়াল যেমন – কার্গো অপারেশন্স ম্যানুয়াল, এয়ার কার্গো সিকিউরিটি প্রোগ্রাম, এয়ার অপারেটর সিকিউরিটি প্রোগ্রাম, ন্যাশনাল সিভিল এভিয়েশন সিকিউরিটি প্রোগ্রাম, ইউরোপীয় ইউনিয়ন রেগুলেশন্স অনুযায়ী আপগ্রেড করা হয়।

এদিকে, গত ১৩-১৬ নভেম্বর-২০১৭ তারিখে রেগুলেটরী এজেন্ট ফর থার্ড কান্ট্রি (আরএ-৩) অডিট সম্পন্ন হয়। বিমান কার্গো হ্যান্ডলিং এজেন্ট হিসেবে উক্ত অডিটে সফলতার সঙ্গে উত্তীর্ণ হয়। এ প্রেক্ষিতে ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ তারিখে ইউরোপীয় ইউনিয়ন এবং ডিপার্টমেন্ট ফর ট্রান্সপোর্টেশন (ডিএফটি) ইউকে হতে বাংলাদেশের উপর হতে কার্গো নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নেয়া হয়েছে।

নির্বাচিত সংবাদ