২২ জুন ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সিদ্ধিরগঞ্জে কলেজ ছাত্রকে কুপিয়ে হত্যা

সিদ্ধিরগঞ্জে কলেজ ছাত্রকে কুপিয়ে হত্যা

স্টাফ রিপোর্টার, নারায়ণগঞ্জ ॥ নারায়ণগঞ্জ মহানগরীর সিদ্ধিরগঞ্জের নয়াআটি মুক্তিনগর এলাকায় ইফতিখার মুসফিক জয় (১৮) নামে এক কলেজ ছাত্রকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা। জয় পাশাপাশি পুলিশের সোর্স হিসেবেও কাজ করত। এ ঘটনায় আওলাদ নামে পুলিশের আরেক সোর্সকে আটক করা হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল (ভিক্টোরিয়া) হাসাপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে। নিহত জয় সিদ্ধিরগঞ্জের হিরাঝিল এলাকার ব্যবসায়ী আকরাম হোসেনের ছেলে। জয় ঢাকার যাত্রাবাড়ী থানার দনিয়া কলেজের একাদশ শ্রেণীর ছাত্র ছিল বলে জানা যায়।

পুলিশ ও পরিবারের লোকজন জানায়, ইফতিখার মুসফিক জয় সোমবার রাত ১০টায় বাসা থেকে বের হয়ে যায়। সকালে নয়াআটি মুক্তিনগর এলাকায় জয়ের সারা শরীরে জখমপ্রাপ্ত অবস্থায় পড়ে থাকে। পরে কয়েকজন মিলে তাকে উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় হাসপাতালে ও পরে নারায়ণগঞ্জের ৩০০ শয্যা বিশিষ্ট খানপুর হাসপাতালের নিয়ে গেলে ডাক্তার তাকে মৃত্যু ঘোষণা করেন।

নিহতের পিতা আকরাম হোসেন জানান, সোমবার রাত ১০টায় জয়ের মোবাইল ফোনে একটি কল আসে। কল পেয়ে জয় কাউকে না বলে বাসা থেকে বের হয়ে যায়। সকালে আমরা তার মৃত্যুর খবর শুনতে পাই। জয়কে কে বা কারা হত্যা করেছে তা এখনও জানতে পারিনি। আমি এ হত্যাকান্ডের সুষ্ঠু বিচার দাবি করছি। তিনি আরও জানান, জয় সিদ্ধিরগঞ্জ থানার এসআই রফিক ও এসআই শামসুল ইসলামের সোর্সেরও কাজ করত।

এ বিষয়ে এসআই রফিক জানায়, জয় আমার সোর্স ছিল না। সে ডিবির সোর্স ইলিয়াসের সঙ্গে চলাফেরা করত এবং বাবা (ইয়াবা) সেবন করত।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) কামরুল ইসলাম জানান, জয়কে পিটিয়ে ও কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। আমরা নিহতের লাশ হাসপাতালে থেকে উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেছি। জয়কে কে বা কারা এবং কি কারণে হত্যা করেছে তা তদন্ত চলছে। তবে এ ঘটনায় আওয়াদ নামে ডিবি’র এক সোর্সকে জিজ্ঞাবাসাদের জন্য আটক করা হয়েছে। আওয়াদ ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকলে গ্রেফতার দেখানো হবে। এ বিষয়ে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

নির্বাচিত সংবাদ