২২ জুন ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ছোট বোন সেরেনাকে বিদায় করে দিলেন ভেনাস

ছোট বোন সেরেনাকে বিদায় করে দিলেন ভেনাস

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ দীর্ঘ ১৪ মাস পর আবার প্রতিযোগিতামূলক টেনিসে ফিরেছিলেন সেরেনা উইলিয়ামস। ২৩ গ্র্যান্ডস্লাম জয়ী এ সাবেক বিশ্বসেরা ইন্ডিয়ান ওয়েলসের প্রথম দুই রাউন্ডে জয়ও তুলে নিয়েছিলেন। কিন্তু নিয়মিত খেলার মধ্যে না থাকার জন্য তাকে থামতে হলো তৃতীয় রাউন্ডেই। আর তাকে হারিয়ে বিদায় দিলেন নিজেরই সহোদরা বোন ভেনাস উইলিয়ামস। এছাড়াও ৪ নম্বর বাছাই ইউক্রেনের এলিনা সিতোলিনা, ১২ নম্বর বাছাই জার্মানির জুলিয়া জর্জেস, ১৩ নম্বর বাছাই যুক্তরাষ্ট্রের স্লোয়ান স্টিফেন্স ও ২৬ নম্বর বাছাই অস্ট্রেলিয়ার দারিয়া গ্যাব্রিলোভা বিদায় নিয়েছেন। তবে ২ নম্বর বাছাই ডেনমার্কের ক্যারোলিন ওজনিয়াকি, ১০ নম্বর বাছাই জার্মানির এ্যাঞ্জেলিক কারবার ও ৭ নম্বর বাছাই ফ্রান্সের ক্যারোলিন গার্সিয়া জয় তুলে নিয়েছেন। পুরুষ এককে ১ নম্বর বাছাই সুইজারল্যান্ডের রজার ফেদেরার উঠে গেছেন শেষ ষোলোতে।

পরিচিত দর্শক আর নিজের দেশেই আবার কোর্টে ফিরেছেন সেরেনা। তারদিকে সবারই দৃষ্টি নিবদ্ধ ছিল। গত বছর অস্ট্রেলিয়ান ওপেন জয়ের পর থেকেই আর কোন টেনিস কোর্টে নামা হয়নি তার। সেপ্টেম্বরে প্রথম সন্তানের মা হয়েছেন। সে জন্যই কোর্ট থেকে দূরে থাকতে হয়েছিল সেরেনাকে। অবশেষে এবার ইন্ডিয়ান ওয়েলস দিয়ে পেশাদার প্রতিযোগিতায় ফেরেন তিনি। প্রথম রাউন্ডে জেরিনা ডায়াস ও দ্বিতীয় রাউন্ডে কিকি বার্টেন্সের বিপক্ষে সরাসরি সেটের জয় তুলে নিয়ে ভাল ছন্দেই ফিরে আসার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন। কিন্তু তৃতীয় রাউন্ডে কঠিন প্রতিদ্বন্দ্বিতার মধ্যে পড়ে গেছেন বড় বোন ভেনাসের বিপক্ষে। সাম্প্রতিক সময়গুলোতে নিজেকে নতুন করে ফিরে পাওয়া ভেনাস এই আসরের ৮ নম্বর বাছাই। ক্যারিয়ারে ২৯তম বারের মতো ছোট বোন সেরেনার মুখোমুখি হন তিনি। আগের ২৮ মোকাবেলায় ১৭ বারই জিতেছিলেন সেরেনা। কিন্তু সেই পরিসংখ্যান কাজে লাগেনি তার। ভেনাস তাকে সরাসরি ৬-৩, ৬-৪ সেটে হারিয়ে ১২তম জয় তুলে নিয়েছেন সেরেনার বিপক্ষে। তবে হারের পরও সেরেনা জানিয়েছেন এখনও তিনি ফেরার পর নিজেকে সুস্থির করার প্রক্রিয়ায় আছেন। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘অবশ্যই এটা খুব সহজ ব্যাপার নয়। খেলতে পারছি এটাই আমার কাছে ভাল ব্যাপার। চেষ্টা করে যাচ্ছি ছন্দ ফিরে পেতে এবং আবার উদ্যমে আসতে। আমি আগের সেই অবস্থা পুরোপুরি সহজে ফিরে পাব না। এ জন্য কতখানি বেশি পরিশ্রম করলাম অনুশীলনে সেটা কোন ব্যাপারই নয়। আমি অনুশীলনের সময় তো যে কোন শটের ক্ষেত্রে দশে-দশ করতে পারি। ম্যাচের পুরোটাই নির্ভর করে স্নায়ুচাপের ওপর। একটা প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচে সবকিছুরই সামান্য পরিমাণে করে দেখানো যায়।’

১৯৯৮ সালে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে প্রথমবার পরস্পরের মুখোমুখি হয়েছিলেন দুই বোন। এরপর এই প্রথম কোন আসরে এত আগে ভাগে দু’জনের লড়াই হলো। ম্যাচে ৬টি এসেস পান ভেনাস, কিন্তু ৮টি ডাবল ফল্ট করেন। এরপরও ১ ঘণ্টা ২৬ মিনিট লেগেছে তার সেরেনাকে হারাতে। ভেনাস প্রিকোয়ার্টার ফাইনালে মুখোমুখি হবেন আনাস্তাসিয়া সেভাস্তোভার। ২১ নম্বর বাছাই এ লাটভিয়ার তারকা জর্জেসকে বিদায় করে দিয়েছেন সরাসরি ৬-৩, ৬-৩ সেটে। এ বছর অস্ট্রেলিয়ান ওপেন জিতে বিশ্বের এক নম্বর হওয়া ওজনিয়াকি (বর্তমানে ২ নম্বর) বেশ চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছিলেন বেলারুশের আলিয়াকসান্দ্রা সাসনোভিচের বিপক্ষে। তবে শেষ পর্যন্ত শেষ ষোলোয় ওঠেন তিনি ৬-৪, ২-৬ ও ৬-৩ সেটের জয় তুলে নিয়ে। শেষ ষোলোয় তার প্রতিপক্ষ হবেন ২০ নম্বর বাছাই রাশিয়ার দারিয়া কাসাতকিনা। এ রাশিয়ান ৬-৪, ৬-৩ সেটে হারিয়ে দেন মার্কিন কৃষ্ণকন্যা স্লোয়ান স্টিফেন্সকে। সাবেক বিশ্বসেরা কারবার ২৪ নম্বর বাছাই রাশিয়ার এলেনা ভেসনিনাকে ৭-৫, ৬-২ সেটে হারিয়েছেন। ৪ নম্বর বাছাই সিতোলিনা স্পেনের কার্লা সুয়ারেজের কাছে ৭-৫, ৬-৩ সেটে, গ্যাব্রিলোভা ৭-৫, ৬-৪ সেটে গার্সিয়ার কাছে এবং দুই অবাছাইয়ের লড়াইয়ে রাশিয়ার সোফিয়া ঝুক ৬-৪, ৬-৪ সেটে যুক্তরাষ্ট্রের ড্যালিয়েলি কলিন্সের কাছে পরাজিত হন। পুরুষ এককে ফেদেরার ৬-২, ৬-১ সেটে সার্বিয়ার ফিলিপ ক্রাজিনোভিচকে উড়িয়ে দেন তৃতীয় রাউন্ডে। তবে ৫ নম্বর বাছাই ডোমিনিক থিয়েম, ১৩ নম্বর বাছাই স্পেনের রবার্টো বাতিস্তা ও ১২ নম্বর বাছাই চেক প্রজাতন্ত্রের টমাস বার্দিচ বিদায় নিয়েছেন। তবে ৭ নম্বর বাছাই দক্ষিণ আফ্রিকার কেভিন এ্যান্ডারসন ও ১১ নম্বর বাছাই স্পেনের পাবলো ক্যারেনো বুস্তা জয় পেয়েছেন।

নির্বাচিত সংবাদ