২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মাদারীপুরে ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় জখম ২

মাদারীপুরে ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় জখম ২

নিজস্ব সংবাদদাতা, মাদারীপুর ॥ মাদারীপুর লেকেরপাড় স্বাধীনতা অঙ্গনে বৈশাখী মেলায় ভাগ্নিকে ইভটিজিং করার সময় প্রতিবাদ করলে মামা হামিম খান ( ২৯) ও শাহিন সরদার (২৬) নামে দুইজনকে রামদা ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে মারাত্মক জখম করেছে একদল বখাটে। এ ব্যাপারে সোমবার সকালে মাদারীপুর সদর থানার একটি মামলা দায়ের হয়েছে।

পুলিশ, ভুক্তভোগী ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, হামিম ও শাহিন সরদার বৈশাখী মেলায় একটি কসমেটিক্স এর দোকান নিয়ে ব্যবসা করছে। মেলা চলাকালীন রবিবার হামিম খানের বোনের মেয়ে ও তার কয়েক বান্ধবী মেলার স্টল ঘুরে দেখার জন্য আসে। এ সময় শহরের বাগেরপাড় এলাকার আলামিন হাওলাদারের ছেলে অন্তর হওলাদার ও অমিত হওলাদার তাদের বন্ধু আশিক ও জুলহাসসহ কতিপয় বখাটে হামিমের ভাগ্নিকে উদ্দেশ্য করে বাজে কথা বলে।

এ সময় হামিম প্রতিবাদ করলে বখাটেরা চলে যায়। ঘটনার পরে স্থানীয় কতিপয় সন্ত্রাসীদের নিয়ে পুনরায় মেলার মাঠে প্রবেশ করে হামিমকে দোকান থেকে ডেকে মেলার পাশে নিয়ে রামদা ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতারী কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। হামিমের চিৎকারে দোকানের সহযোগী শাহিন সরদার ও পাশের দোকানের লোকজন এগিয়ে আসলে বখাটেরা দোকানের সহযোগী শাহিনকেও ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপ দেয়। আহত অবস্থায় তাদের উদ্ধার করে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এই ঘটনায় সোমবার সকালে মাদারীপুর সদর থানায় মামলা হয়েছে।

দোকানের সহযোগি আহত শাহিন সরদার জানান, ‘অপরিচিত এক লোক কথা বলার জন্য ডেকে দোকান থেকে হামিমকে ডেকে নেয়। কিন্তু কিছু বুঝে উঠার আগেই পরিকল্পিতভাবে আসা বখাটে সন্ত্রাসী অন্তর, অমিত, আশিক, জুলহাসসহ ১০/১২জন রামদা ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে হামিমকে গুরুতর জখম করে। আমি বাধা দিতে গেলে সন্ত্রাসীদের কোপ আমার হাতেও লাগে।’

মাদারীপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি ) মো. কামরুল হাসান বলেন, ‘এ ব্যাপারে সোমবার সকালে একটি মামলা হয়েছে। আমরা তদন্ত সাপেক্ষে আসামীদের গ্রেফতার করবো।’