১৯ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বিদেশি ছাত্র বহিষ্কারে ট্রাম্পের নয়া টার্গেট

বিদেশি ছাত্র বহিষ্কারে ট্রাম্পের নয়া টার্গেট

অনলাইন ডেস্ক ॥ যুক্তরাষ্ট্রে ভিসার মেয়াদের অতিরিক্ত সময় অবস্থান করলে অধ্যয়নরত ছাত্রছাত্রীদের অবৈধ হিসেবে বিবেচনা করা হবে। ছাত্রছাত্রীরা কত সময় এই দেশে অবৈধভাবে কাটিয়েছেন, তার ভিত্তিতে তাঁদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রত্যাবর্তন নিষিদ্ধ করা হবে। গতকাল শুক্রবার হোমল্যান্ড সিকিউরিটি দপ্তর কর্তৃক ঘোষিত নতুন নীতিমালা অনুসারে যেসব ছাত্রছাত্রী ভিসার মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়ার পর ১৮০ দিন অতিরিক্ত যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থান করেছে, তাঁদের তিন বছরের জন্য পুনঃপ্রবেশ নিষিদ্ধ করা হবে। এক বছরের অধিক সময় বৈধ ভিসা ছাড়া অবস্থান করেছেন—এমন বিদেশি ছাত্রছাত্রীদের ১০ বছরের জন্য যুক্তরাষ্ট্রে প্রত্যাবর্তন নিষিদ্ধ করা হবে।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প গত বছর ঘোষণা করেছিলেন, ভিসার মেয়াদের বেশি অবস্থান করছেন—এমন সব বিদেশির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এসব বিদেশির একটি উল্লেখযোগ্য অংশ ছাত্রছাত্রী, যাঁদের অনেকেই অধ্যয়ন শেষে কর্মজীবনে প্রবেশের অপেক্ষায় এ দেশে রয়ে যান। হোমল্যান্ড দপ্তর জানিয়েছে, ২০১৬ সালে ভিসার মেয়াদ শেষ হলেও দেশে ফিরে যাননি—এমন বিদেশি ছাত্রছাত্রীর সংখ্যা ৮০ হাজারের মতো।

ভিসার ব্যাপারে কড়াকড়ি আরোপ করায় যুক্তরাষ্ট্রে অধ্যয়নে আগ্রহী—এমন ছাত্রছাত্রীর সংখ্যা ক্রমে কমে আসছে। ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষে মার্কিন বিশ্ববিদ্যালয়ে রেজিস্ট্রিকৃত ছাত্রছাত্রীর সংখ্যা পূর্ববর্তী বছরের তুলনায় ৩ শতাংশ কমেছে বলে জানা গেছে। অনেক বিদেশি ছাত্র এখন যুক্তরাষ্ট্রে আসার বদলে ইউরোপ অথবা অস্ট্রেলিয়ায় অধ্যয়নের সুযোগ গ্রহণ করছে।

একই সঙ্গে বিশেষ ব্যবস্থাধীনে সাময়িকভাবে বৈধ—এমন বিদেশিদের বহিষ্কারের ব্যবস্থাও চূড়ান্ত করেছে ট্রাম্প প্রশাসন। প্রধানত, প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে বিপদগ্রস্ত—এমন দেশগুলোর নাগরিকদের জন্য এই সাময়িক বৈধতার নিয়ম দীর্ঘদিন থেকেই চালু আছে। এঁদের কেউ কেউ ২৫ বছর বা তার চেয়েও বেশি সময় এ দেশে অবস্থান করছেন। এখন ট্রাম্প প্রশাসন এঁদের সবাইকে পর্যায়ক্রমে বহিষ্কারের উদ্যোগ নিয়েছে। আগামী ১৮ মাসের মধ্যে এল সালভাদর, হাইতি, হন্ডুরাস, নিকারাগুয়া, নেপাল ও সুদানের মোট তিন লাখ নাগরিককে বহিষ্কার করা হবে বলে হোমল্যান্ড দপ্তর ঘোষণা করেছে।