১৯ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

‘কান কর্নার’

  • অতনু রায়

আর মাত্র দু’দিন পর পর্দা নামছে চলচ্চিত্রের সবচেয়ে প্রাচীন ও ঐতিহ্যবাহী ‘কান’ চলচ্চিত্রের উৎসবের। ৮ মে থেকে শুরু হওয়া বারো দিনব্যাপী এ উৎসবের পর্দা নামবে ১৯ মে। এই দিনই ভাগ্য নির্ধারিত হবে কোন্ চলচ্চিত্রের ঘরে যাবে উৎসবের সেরা পুরস্কার ‘পালনে ডিওর’। এ প্রতিযোগিতার জন্য লড়াই করছে বিশ্বের স্বনামধন্য পরিচালকদের নির্মিত ২১টি চলচ্চিত্র। এ ছাড়া ৮৫টি চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হবে উৎসবের বিভিন্ন বিভাগে।

নিত্য নতুন চমক যেন লেগেই রয়েছে এবারের কান উৎসবে। উৎসব শুরুর আগে লালগালিচায় তারকাদের সেলফি নিষিদ্ধ, ব্রিটিশ প্রতিষ্ঠানে নেট ফ্লিক্সকে বয়কট সব মিলিয়ে উৎসব শুরুর আগে থেকেই প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছিল গণমাধ্যমে, এবারের ‘কান’ উৎসবকে ঘিরে তবে ভালবাসার বার্তা ঝড়াতে কোন কার্পণ্য রাখছে না কান উৎসব। অফিসিয়াল পোস্টার যেন তারই ইঙ্গিত দিচ্ছিল উৎসব শুরুর আগে থেকেই। উৎসবে ছবি প্রদর্শনীর ব্রন্দিওরে প্রতিদিনই থাকছে কোন না কোন কালজয়ী ছবির চুম্বন দৃশ্য। ফরাসী সংস্থা ‘কালেকশন ক্রিস্তোফেল’ থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে এসব কালজয়ী কিছু ছবি। অতীতের এসব ছবি, উৎসবে আগতদের চলচ্চিত্রের মায়াবী জগতের অতীত পরিভ্রমণে আচ্ছন্ন করে রাখছে।

শুধু প্রেমিক-প্রেমিকার ভালবাসাই নয়, সন্তান এবং মায়ের ভালবাসার বহির্প্রকাশ ও যেন ঘটেছে ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন ও মেয়ে আরাধ্যর চুমু উপহারে একটি ছবিতে। লাল গালিচায় যাওয়ার আগে মা ঐশ্বরিয়াকে চুমু উপহার দেন ৬ বছর বয়সী তাঁর কন্যা আরাধ্য। চুমুর পরই লাল গালিচায় হাঁটেন তিনি। বিশেষ দিনে সেই সঙ্গে এত বড় ও ঐতিহ্যবাহী অনুষ্ঠানে যাওয়ার আগে প্রিয়জনের ভালবাসাময় সম্পর্ক যেন অন্যরকম এক প্রাপ্তি।

এর আগে অবশ্য উৎসবের দ্বিতীয় দিনে অফ গোল্ডার রামি কাডি গাউনে দেখা গিয়েছে ঐশ্বরিয়াকে। ইতোমধ্যেই মা-মেয়ের চুমুর এই ছবিটি সাড়া জাগিয়েছে দর্শক-ভক্তদের মনে। মধ্য চল্লিশেও যে কারও মাথা ঘুরিয়ে দিতে পারেন এই অভিনেত্রী তারই প্রমাণ যেন উৎসবের ছবিগুলো।

ঐশ্বরিয়া ছাড়াও উৎসবের শুরু থেকে এ পর্যন্ত তিনবার অভ্যাগতদের চোখ ঝলসেছেন বলিউড সেনসেশন দীপিকা পাড়ুকোন। এর আগে অবশ্য ফ্রিল দেয়া গোলাপি গাউন পরে লাল গালিচায় হাঁটেন ৩২ বছর বয়সী এই বলিউড সুন্দরী। আর এই ছবি দেখে বান্ধবীর প্রশংসায় তাই ইনস্টাগ্রামে ফেটে পড়েন রণবীর সিংহ। কিন্তু সমালোচকদের যে মন ভরানো দায়। টুইটার দুনিয়া তার এই সাজ পোশাকের সঙ্গে বরং ডাইনোসরের মিল পেয়েছেন। সমালোচকরা জুরাসিক পার্কের সেই বিষ ছিটানো হিংস্র ডাইনোসর ডাইলোফোমরাসের মতোই যেন দীপিকার পোশাকটি। অবশ্য ১৯৯৩ এর ছবিটির সেই ডাইনোসরের মতো দীপিকার পোশাকের সাদৃশ্য চোখে পড়ার মতো। দীপিকার ড্রেস সেন্স অবশ্য এর আগেও সমালোচিত হয়েছিল। এবারের উৎসবে প্রথমবারের মতো লাল গালিচায় হেঁটেছেন আর এক বলিউড সুন্দরী কঙ্কনা রানাউত। হেঁটেছেন মধুচন্দ্রিমাকে বিসর্জন দিয়ে কানে যোগ দেয়া সোনম কাপুরও।

এ ছাড়াও ‘রইস’খ্যাত দু’জন পাকিস্তানী তারকা মাহিরা খান ও হুমা কোরেশিও চোখ ধাঁধিয়েছেন লাল গালিচায় হেঁটে।

এবারের ‘কান’-এ উৎসবের ইন্দো-ফ্রেঞ্চ যৌথ প্রযোজনায় ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ার হলো উর্দু ভাষার খ্যাতিমান সাহিত্যিক ‘সাদাত হাসান মান্টোর’ বায়োপিক ‘মান্টো’ ছবিটি । নাম ভূমিকায় অভিনয় করেছেন নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকী। ছবিটির সঙ্গে উৎসবে উপস্থিত রয়েছেন ছবিটির পরিচালক নন্দিতা দাস। অভিনেতা নওয়াজ উদ্দিন সিদ্দিকী, তাহির রাজ ভাসিন, অভিনেত্রী রাসিকা দুগাল ও দিব্যা দত্ত। ছবিটির মূল উদ্দেশ্য ‘মান্টো’ চরিত্রের অনুপ্রেরণামূলক গল্প বলা তরুণ প্রজন্মের কাছে।

উৎসবে আর একটি সাড়া জাগানো বায়োপিক ফুটবলার ‘কেইলার নাভাস’ কে নিয়ে নির্মিত ‘ম্যান উইথ ফেইথ’ চলচ্চিত্রটি। কঠিন পরিশ্রম আর অধ্যাবসায় যে লক্ষ্যে পৌঁছানোর হাতিয়ার তারই বার্তা দেবে ছবিটি সেই প্রত্যাশা নির্মাতা ডিঙ্গা হেইসের ছবিটি কোস্টারিকার মতো দেশের এ্যাম্বাসেডর হিসেবে কাজ করবে এমনটিই প্রত্যাশা তাঁর। এদিকে গত ১৬ মে শ্রীদেবীর স্মরণে ‘লা ম্যাজিস্টিক’ বিচে আয়োজিত টাইটান রেগিলান্ড এফ লুইস অনুষ্ঠানটিকে সাজানো হয়েছিল তাঁর স্মৃতিচিহ্ন ও সেরা কাজের ফুটেজগুলো দিয়ে। অনুষ্ঠানটিতে বরাবরের মতো এবারও চলতি বছরে বিশ্বব্যাপী প্রয়াত তারকাদের স্মরণ করা হয়।

নামী-দামী পরিচালক ও তারকাদের ভিড়ে ও উৎসবের আর একটি চলচ্চিত্র ‘রোয়াই’ গেল ১৬ মে প্রদর্শিত হয় বাংলাদেশের তরুণ নির্মাতা ইকবাল হোসাইন চৌধুরীর এই কাহিনী চিত্রটি। অভিবাসী মানুষের দ্বন্দ্ব ও সঙ্কটের গল্পই যেন ফুটে উঠেছে ‘রোয়াই’ ছবিটিতে। পুরোপুরি লন্ডনে ধারণকৃত বিসর্গ মিডিয়া অ্যান্ড এন্টারটেইনমেন্ট ও মাইন দ্যা গ্যাপ ফিল্মস।

তবে কানের ৭০ বছরের ইতিহাসে এই প্রথম ৮২ জন নারী লাল গালিচায় দাঁড়িয়ে যৌন হেনস্তার বিরুদ্ধে যে প্রতিবাদ জানিয়েছে তা সত্যিই অবিস্মরণীয় এ যেন টনক নাড়িয়ে দিয়েছে গোটা বিশ্বের চলচ্চিত্রের অঙ্গনকে যৌন নিপীড়নের বিরুদ্ধে। ৭১ বছরের ইতিহাসে ‘কান’-এর মূল প্রতিযোগিতা বিভাগে ৮২ জন নারী নির্মাতার ছবি এ পর্যন্ত স্থান পেয়েছিল। আর তাই ‘হ্যাস-ট্যাগ মি টু’ এবং ‘টাইমস আপ’ আন্দোলনের সঙ্গে সংহতি প্রকাশে ৮২ জন নারী জড়ো হন প্রধান ফটকের সামনে লাল গালিচায়।