১৮ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ভোলায় ২ বোনকে এসিড নিক্ষেপ ॥ আসামি গ্রেফতারের দাবিতে মানববন্ধন

ভোলায় ২ বোনকে এসিড নিক্ষেপ ॥  আসামি গ্রেফতারের দাবিতে মানববন্ধন

নিজস্ব সংবাদদাতা, ভোলা ॥ ভোলায় ঘুমন্ত অবস্থায় ২ বোনের উপর বরর্বর এসিড নিক্ষেপের ঘটনার ৩ তিন দিন পরও পুলিশ অভিযুক্ত মূল আসামিকে গ্রেফতার করতে পারেনি। মার্মন্তিক এ ঘটনায় তার সহপাঠিরা ভীতসন্ত্রস্থ হয়ে পড়েছে। তারা এ ঘটনায় দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন। এদিকে এসিড দগ্ধদের অবস্থার অবনতি হলে তাদেরকে বুধবার রাতে বরিশাল থেকে ঢাকায় প্রেরন করা হয়েছে। সরকারি তেমন কোন সহায়তা না পেয়ে তার চিকিৎসা করতে গিয়ে অসহায় পরিবারটি হিমসিম খাচ্ছে। এদিকে এসিড নিক্ষেপকারীদের গ্রেফতারের দাবিতে আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে ভোলায় মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করা হয়েছে।

স্থানীয় ও আহতদের পরিবারের সদস্যরা জানান, ভোলা সদর উপজেলার উত্তর দিঘলদী ইউনিয়নে বালিয়া খুশিয়া গ্রামের হেলাল রাড়ির ২ কন্যা তানজিম আক্তার মালা (১৬) এবং মারজিয়া (৮) গত সোমবার রাতে খাবার খেয়ে দুই বোন এক সাথে ঘুমাতে যায়। রাত আনুমানিক ২ টার পর হঠাৎ করে অজ্ঞাত দুবৃত্তের ছোরা এসিডে তানজি আক্তার মালার মুখ মন্ডল, ২ চোখসহ শরীরের বিভিন্ন স্থান ঝলসে যায়। এছাড়াও তার ছোট বোন দ্বিতীয় শ্রেণীর ছাত্রী মারজিয়া হাত ও পেটসহ বিভিন্ন স্থান ঝলসে যায়। এ সময় তাদের ডাক চিৎকার শুনে পরিবারের সদস্যরা গুরুতর অবস্থায় উদ্ধার করে রাতেই ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এতে মালার একটি চোখের অবস্থা আশংকা জনক। পরিস্থিতি ভয়াবহ হওয়ায় তাকে ভোলা থেকে মঙ্গলবার দুপুরেই দ্রুত বরিশাল হাসপাতালে প্রেরন করা হয়। কিন্তু তার অবস্থা অবনতি হওয়ায় ডাক্তর উন্নত চিকিৎসার জন্য বুধবার রাতে ঢাকার মিরপুরে সিআরপি হাসপাতালে প্রেরন করেন। মুমুর্ষ তানজিম আক্তার মালা সাংবাদিকদের জানান,রাজিব নামে এক যুবক তাকে হুমিকি দিয়েছিলো। ধারনা করা হচ্ছে সে এই ঘটনা ঘটিয়েছে।

বালিযা খুশিয়া গ্রামে তানজিম আক্তার মালা ও তার বোনের উপর এসিড সন্ত্রাসের ঘটনায় মালার সহপাঠিদের মধ্যে আতংক দেখা দিয়েছে। তারা অজানা আতংকে ভীতসন্ত্রস্থ হয়ে পড়ে। জানা গেছে মালা এবার এসএসসি পাশ করেন। স্কুলে লেখা পড়া করার সময় একই এলাকার ব্যবসায়ি ওমর ফারুকের পুত্র রাজিবের সাথে তার প্রেমের সর্ম্পক ছিলো। গত ২ মাস আগে সেই সর্ম্পক ভেঙ্গে যায়। তার পরও রাজিব মালাকে এসএমএস পাঠাতো। বর্তমানে মালা ইসমাইল নামে অন্য এক যুবকের সাথে প্রেম করছে। এ ঘটনার পর রাজিব মালাকে হুমকিও দেয়। এসব ঘটনা মালা সহপাঠিরাও জানতো। কিন্তু এ ধরনের এসিড নিক্ষেপের ঘটনা যে ঘটবে তা কেউ ধারনা করতে পারেনি। এ ঘটনায় তারাও এখন ভয়ে আতংকে রয়েছেন। তারা এঘটনার দ্রুত বিচার চান।

অপর দিকে বৃহস্পতিবার একটি জাতীয় পত্রিকার পাঠক সংগঠনের পক্ষ থেকে ঘুমন্ত অবস্থায় দুই বোনকে এসিড দিয়ে ঝলসে দেওয়ার ঘটনায় জরিতদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবিতে ভোলা প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রায় ঘন্টা ব্যাপী মানববন্ধনে বিভিন্ন শ্রেনী পেশার লোক অংশ নেয়। এসময় বক্তারা, এসময় বক্তারা ঘটনার সাথে জরিতদের দ্রুত গ্রেফতার করে কঠোর শাস্তির দাবী জানান।

এদিকে ভোলা থানার ওসি মো: ছগির মিয়া সাংবাদিকদের জানান, এসিড নিক্ষেপের ঘটনায় এ পর্যন্ত ইউসুব নামে মালাদের বাড়ির এক যুবককে আটক করা হয়েছে। এছাড়া অভিযুক্ত রাজিবের পিতাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হলেও তাকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।