২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

আমরা এখন স্যাটেলাইটের সঙ্গে কানেক্টেড

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ সফলভাবে নিজস্ব কক্ষপথে (১১৯ দশমিক ১ ডিগ্রী পূর্ব দ্রাঘিমাংশ) সেট হয়েছে দেশের প্রথম স্যাটেলাইট বঙ্গবন্ধু-১। সোমবার রাত থেকে এটি সফলভাবে সংকেতও পাঠাতে শুরু করেছে বলে জানিয়েছেন বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট প্রকল্পের পরিচালক প্রকৌশলী মেসবাহুজ্জামান। তিনি বলেন, ‘আমরা এখন স্যাটেলাইটের সঙ্গে কানেক্টেড। গতরাত থেকে গাজীপুরের গ্রাউন্ড স্টেশন সঙ্কেত পাচ্ছে। এটাও বড় ধরনের সফলতা।’ খবর ওয়েবসাইটের।

প্রকৌশলী মেসবাহুজ্জামান জানান, এখন স্যাটেলাইটের আইওটি (ইন অরবিট টেস্ট) সম্পন্ন হবে। এটা করতে ২-২৫ দিন লেগে যেতে পারে। এরপর নেটওয়ার্ক হস্তান্তর হবে। এখন নেটওয়ার্ক রয়েছে স্যাটেলাইটের নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ফ্রান্সের থ্যালেস এ্যালেনিয়ার হাতে। নেটওয়ার্ক হস্তান্তর হলে তা চলে আসবে গাজীপুরে স্থাপিত গ্রাউন্ড স্টেশনের কাছে। সে সময় নেটওয়ার্ক থাকবে গাজীপুর গ্রাউন্ড স্টেশন কর্তৃপক্ষের কাছে। এই পুরো প্রক্রিয়া শেষ হতে দুই থেকে আড়াই মাস লাগতে পারে বলে তিনি জানান। এরপরই শুরু হবে স্যাটেলাইটটির বাণিজ্যিক অপারেশনের কাজ। বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইট যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডার কেনেডি স্পেস সেন্টারের লঞ্চ প্যাড থেকে বাংলাদেশ সময় ১১ মে রাত ২টা ১৪ মিনিটে মার্কিন মহাকাশ গবেষণা প্রতিষ্ঠান স্পেসএক্স-এর ফ্যালকন-৯ রকেটের ব্লক ফাইভের মাধ্যমে উৎক্ষেপণ করা হয়। উৎক্ষেপণের ৩৩ মিনিটের মধ্যে এটি ৩৫ হাজার ৭০০ কিলোমিটার ওপরে গিয়ে থামে। বাকি ৩০০ কিলোমিটার যেতে স্যাটেলাইটটির লাগে আরও ১০ দিন। সেই হিসেবে ২১ মে রাতে স্যাটেলাইটটি তার নিজস্ব কক্ষপথ বা অরবিটাল স্লটের ১১৯ দশমিক ১ ডিগ্রীতে (পূর্ব) স্থির হয়। মেয়াদের পুরোটা সময় এখানেই অবস্থান করবে স্যাটেলাইটটি। মিশনের ১৫ বছর মেয়াদকালে এটি সম্প্রচার, টেলিযোগাযোগ ও ডেটা কমিউনিকেশনের কাজে ব্যবহার করা যাবে। এ জন্য স্যাটেলাইটটিতে রয়েছে ৪০টি ট্রান্সপন্ডার। এটি নিয়ন্ত্রণের জন্য গাজীপুরে গ্রাউন্ড স্টেশন চালু করা হয়েছে। রাঙ্গামাটির বেতবুনিয়ায়ও আরেকটি গ্রাউন্ড স্টেশন স্থাপন করা হয়েছে। এটি ব্যাকআপ গ্রাউন্ড স্টেশন হিসেবে কাজ করবে। বাংলাদেশ কমিউনিকেশন স্যাটেলাইট কোম্পানি লিমিটেডের (বিসিএসসিএল) ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘স্যাটটেলাইট বঙ্গবন্ধু-১ তার নিজ কক্ষপথে অবস্থান নিয়েছে। এটা সেট হয়ে সিগন্যাল পাঠাচ্ছে।’ সবকিছু ঠিক থাকলে আগস্ট মাসের মাঝামাঝি বঙ্গবন্ধু-১ বাণিজ্যিক অপারেশনে যাবে বলে তিনি জানান। সাইফুল ইসলাম আরও বলেন, ‘আমরা বিপণনের কাজ শুরু করেছি। আমাদের একটি টিম কাজ করছে। তবে স্যাটেলাইট পুরোপুরিভাবে সঙ্কেতসহ প্রয়োজনীয় তথ্য পাঠাতে শুরু করলেই পরবর্তী পদক্ষেপের কাজ শুরু হবে। সংশ্লিষ্টরা জানান, এরইমধ্যে বিসিএসসিএল ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, মালদ্বীপ, ফিলিপিন্স, ইন্দোনেশিয়া, আফগানিস্তান, নেপাল, ভুটান, তাজিকিস্তান, কাজাকিস্তান ও উজবেকিস্তানের সঙ্গে যোগাযোগ করে ইতিবাচক সাড়া পেয়েছে। সব ঠিক থাকলে পরবর্তীতে চুক্তি হতে পারে দেশগুলোর সঙ্গে।’ বিসিএসসিএলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আরও বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের বাণিজ্যিক অপারেশনে যেতে দুই থেকে আড়াই মাস লেগে যেতে পারে। এই সময়ের মধ্যে বিপণনের কাজ চালিয়ে যাওয়া হবে।’