১৯ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

‘সমঝোতার গুরুত্বপূর্ণ নথি’তে স্বাক্ষর করলেন ট্রাম্প-কিম

‘সমঝোতার গুরুত্বপূর্ণ নথি’তে স্বাক্ষর করলেন ট্রাম্প-কিম

অনলাইন ডেস্ক ॥ মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও উত্তর কোরীয় নেতা কিম জং উন একটি যৌথ চুক্তিতে স্বাক্ষর করছেন। তবে এর বিস্তারিত এখনও জানানো হয়নি। মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন এর এক প্রতিবেদন থেকে এই তথ্য জানা যায়।

অপেক্ষারত সাংবাদিকদের ট্রাম্প বলেন, ‘আমরা খুবই গুরুত্বপূর্ণ সমঝোতায় স্বাক্ষর করেছি। এর মধ্যে বিস্তারিত অনেক কিছুই আছে।’ এখনই বিস্তারিত না জানালেও এটা নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করে বিস্তারিত আলোচনা করে সবার সামনে উন্মুক্ত করা হবে বলে ইঙ্গিত দেন ট্রাম্প।

কিম বলেন, তিনি সবকিছুর জন্য প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে তার কৃতজ্ঞতা জানাতে চান। দোভাষীর সাহায্য নিয়ে তিনি বলেন, ‘আমাদের ঐতিহাসিক বৈঠক সম্পন্ন হয়েছে। আমরা অতীতকে ভুলে যেতে চাই। আমরা ঐতিহাসিক এক নথিতে স্বাক্ষর করতে যাচ্ছি।’ কিম বলেন, ‘বিশ্ব অনেক বড় পরিবর্তন দেখতে যাচ্ছে।’

ঐতিহাসিক বৈঠকের সাফল্য ও উন্নতিকে ধরে রাখতেই দুই নেতা এই চুক্তি স্বাক্ষর করতে যাচ্ছেন বলে জানিয়েছে এক মার্কিন কর্মকর্তা। সিএনএনকে দেওয়া সাক্ষাতকারে তিনি বলেন, প্রেসিডেন্টে আগে তিনি এই চুক্তির বিস্তারিত কিছু বলতে চাচ্ছেন না।

সিঙ্গাপুরের সেন্তোসা দ্বীপে ক্যাপেলে হোটেলে স্থানীয় সময় সকাল ৯টায় (বাংলাদেশ সময় সকাল ৭টা) একান্ত বৈঠকে বসেন দুই নেতা। ট্রাম্প বলেন, দারুণ বৈঠক হয়েছে। দুর্দান্ত সম্পর্কের সূচনা ঘটতে যাচ্ছে। দিনের শুরুতে এমন চুক্তি স্বাক্ষরের কোনও পরিকল্পনা ছিল না। তবে মধ্যাহ্নভোজের আগে একটি দীর্ঘসময় বিরতির উল্লেখ ছিল। দুপুরের দিকেই হঠাৎ করে চুক্তি স্বাক্ষরের ঘোষণা দেন ট্রাম্প।

সকালে বৈঠকের শুরুতে দুই দেশের পতাকার সামনে দাঁড়িয়ে হাত মেলান ট্রাম্প-কিম। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান জানায়, ১২ সেকেন্ড ধরে হ্যান্ডশেক করেন তারা। কিমই প্রথম এসে ট্রাম্পের জন্য অপেক্ষা করতে থাকেন। বৈঠক শুরুর আগে থেকেই ট্রাম্প বলেছিলেন,এটা দুর্দান্ত বৈঠক হবে। আর কিম বলেন, ‘এমন অবস্থায় আসা সহজ ছিলো না।’ সাংবাদিকদের তিনি বলেন, শান্তি জন্য বড় এক ঘটনা ছিল আজকের দিনটি। দুই নেতা প্রায় ৩৫ মিনিট ধরে একান্ত বৈঠক করেন।

নির্বাচিত সংবাদ