১৯ আগস্ট ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ইমরানের প্রতিদ্বন্দ্বী শতবর্ষী নারী!

ইমরানের প্রতিদ্বন্দ্বী শতবর্ষী নারী!

অনলাইন ডেস্ক ॥ আগামী ২৫ জুলাই পাকিস্তানে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে সাধারণ নির্বাচন। আর এই নির্বাচনকে সামনে রেখে নুতনভাবে এগিয়ে যাচ্ছেন পাকিস্তান তেহরিক ই ইনসাফ (পিটিআই) দলের নেতা ইমরান খান।

পাকিস্তানের ক্রিকেট তারকা থেকে রাজনীতিবিদ বনে যাওয়া ইমরান খান গত মাসে 'দুর্নীতিবাজ' শাসকদের পতন ঘটানোর শপথ নিয়ে আসন্ন নির্বাচনে জয় লাভের প্রত্যাশা ব্যক্ত করেছেন।

কয়েকদিন আগে স্ত্রী রেহাম খানের নানা মন্তব্যের কারণে সংবাদের শিরোনাম পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) চেয়ারম্যান ইমরান খান। এবার শিরোনামে আসার কারণটা অবশ্য ভিন্ন। খাইবার পাখতুনখাওয়ার বান্নু জেলা থেকে নির্বাচন করছেন তিনি। আর এই আসনেই তার প্রতিদ্বন্দ্বী হচ্ছেন একজন ১০০ বছরের নারী। হজরত বিবি নামের এই নারী কিন্তু স্থানীয়ভাবে খুব সুপরিচিত। সাধারণ নির্বাচনে তিনি জাতীয় পরিষদের এনএ-৩৫ (বান্নু) ও খাইবার পাখতুনখাওয়া পরিষদের পিকে-৮৯ (বান্নু থ্রি) আসনের জন্য মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

নির্বাচনে হজরত বিবি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে লড়ছেন। তিনি নিজ জেলায় নারী শিক্ষার বিকাশ ঘটাতে চান। সীমান্তবর্তী জেলা হওয়ায় এখানে প্রায়ই সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটে। একসময় এই এলাকাটি তালেবানপন্থী জঙ্গিদের শক্ত অবস্থানও ছিল।

উত্তর ওয়াজিরিস্তান থেকে বাস্তুচ্যুত হয়ে প্রায় ১০ লাখ মানুষ বান্নু জেলায় বসবাস করছেন। উত্তর ওয়াজিরিস্তানে পাকিস্তান সেনাবাহিনী জঙ্গিদের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করলে এসব লোক বান্নু জেলায় চলে আসেন।

হজরত বিবি বিশ্বাস করেন যে, নারীদের শিক্ষিত করে তোলা গেলে বড় পরিসরে ক্ষমতায়ন ও সমাজে তাদের গ্রহণযোগ্যতা তৈরি হবে।

পাকিস্তানে জাতীয় ও প্রাদেশিক নির্বাচনে ১০ কোটিরও বেশি ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগের সুযোগ পাবেন। নির্বাচনে মূল লড়াইটা পিএমএল-এন ও পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফের মধ্যে হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।