১৯ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

খেলা দেখার জন্য ষাড় বিক্রির টাকায় প্রজেক্টর কিনল রফিকুল

খেলা দেখার জন্য ষাড় বিক্রির টাকায় প্রজেক্টর কিনল রফিকুল

নিজস্ব সংবাদদাতা, নাটোর ॥ আর কয়েকদিন পরেই রাশিয়ায় অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ফুটবল বিশ্বকাপ। আর ফুটবল বিশ্বকাপ খেলা নিয়ে বাংলাদেশের সর্বত্র বিভিন্ন দলের ফুটবল সমর্থকরা ভেসে যাচ্ছেন আনন্দ উত্তেজনায়। সারাদেশের মত নাটোরেও ব্রাজিল, আর্জেটিনা দলের সমর্থকদের পাশাপাশি বিদেশী অন্যান্য দলের সমর্থকদের মাঝে বিরাজ করছে অভাবনীয় চাঞ্চল্য ও উত্তেজনা। প্রিয় দলকে সমর্থন দিতে বাংলাদেশে বড় বড় পতাকা তৈরী, মিছিলসহ কতই না কিছু করছেন সমর্থকরা।

তবে এবার নাটোর সদর উপজেলার রফিকুল ইসলাম নামের এক ব্রাজিলিয়ান সমর্থক তার শেষ সম্বল ষাঁড় গরু বিক্রি করে এলাকায় হইচই ফেলে দিয়েছেন। প্রিয় দল ব্রাজিলের খেলা দেখতে ও দেখাতে প্রজেক্টর ক্রয় করায় এলাকার ব্রাজিলিয়ান সমর্থক ছাড়াও অন্যান্য দলের সমর্থকরা ভেসে যাচ্ছেন উত্তেজনায়। রফিকুলের প্রজেক্টরে বিশ্বকাপ খেলা দেখবেন বলে প্রত্যন্ত এলাকার এই ফুটবল প্রেমী মানুষরা সত্যিই অনেক খুশি। অনেক তার বাড়ীতে গিয়ে সেলফি তুলছেন। তবে ষাঁড় গরু বিক্রি করে প্রজেক্টর কেনার পেছনে রয়েছে একটি করুণ, হৃদয়স্পর্শ এক কাহিনী।

রফিকুল ইসলাম জানান, গত বিশ্বকাপে তিনি তার এলাকায় একটি দোকানে বিশ্বাকাপ খেলায় তার প্রিয় দল ব্রাজিলের খেলা দেখতে গিয়েছিলেন। টিভিতে খেলা দেখার টিকিটের হার ছিল মাত্র ৫টাকা। কিন্তু তার পকেটে ৫টাকা না থাকায় সেদিন আর প্রিয় দলের খেলা দেখতে পারেনি। সেদিন বের করে দেওয়া খেলা দেখানোর ঘর থেকে। সেদিন প্রিয় দলের খেলা দেখতে না পেরে অত্যন্ত মর্মাহত হন তিনি।

আত্মসম্মানবোধ থেকে মনের কষ্ট মনের ভেতর চেপে রেখে সেদিন তিনি প্রতিজ্ঞা করেছিলেন, নিজে একটি প্রজেক্টর কিনে নিজে ও অন্যকে প্রিয় দলের খেলা দেখার সুযোগ করে দেবেন। সেই লক্ষে গত দুই বছর আগে তিনি সমিতি থেকে টাকা তুলে ১৯ হাজার টাকায় একটি গরু ক্রয় করেন। অতপর সেই গরু ৭৮ হাজার টাকায় বিক্রি করে গত ৭ জুন প্রায় ৪৩ হাজার টাকায় প্রজেক্টর কিনে আনেন। এই ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্য পড়ে যায়। এলাকার ফুটবলপ্রেমীরা এই ব্রাজিলিয়ান সমর্থকের বাড়ীতে ভিড় জমাচ্ছেন তার কেনা প্রজেক্টর দেখতে।

একই এলাকার সাবেক ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম রফিক জানান, প্রিয় দলের খেলা দেখতে রফিক প্রজেক্টর কিনে নিজে সন্তুষ্ট এবং সবাই আনন্দিত, উত্তেজিত। তিনি রফিকুল ইসলাম যে সত্যিকারের একজন ব্রাজিলিয়ান সমর্থক সেটা তিনি প্রমাণ করে দিয়েছেন।

নির্বাচিত সংবাদ