২০ জুন ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

দোহারে যুবককে পিটিয়ে ও কুপিয়ে হত্যা

দোহারে যুবককে পিটিয়ে ও  কুপিয়ে হত্যা

নিজস্ব সংবাদদাতা, দোহার-নবাবগঞ্জ (ঢাকা) ॥ ঢাকার দোহার উপজেলার কুসুমহাটি ইউনিয়নের দক্ষিণ শিলাকোঠা এলাকায় ময়না আক্তার (১৩) নামে ষষ্ঠ শ্রেণীর এক শিক্ষার্থীকে প্রেমের জালে ফেলে পালিয়ে যাওয়ার অপরাধে সুমন দেওয়ান (২৯) নামে এক যুবককে গাছের সাথে বেঁধে পিটিয়ে ও কুপিয়ে হত্যা করেছে ওই শিক্ষার্থীর স্বজনরা। বুধবার সকালে উপজেলার শিলাকোঠা এলাকায় প্রকাশ্যে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নিহত সুমন দেওয়ান শিলাকোঠা এলাকার ইয়াকুব আলীর মেয়ের জামাই। সে গত বৃহস্পতিবার সকালে তার শশুর বাড়িতে বেড়াতে আসে। এক পর্যায় এলাকার ষষ্ঠ শ্রেণীর শিক্ষার্থী ময়না আক্তারকে নিয়ে দুপুরে লাপাত্তা হয় বলে জানা যায়। এ ঘটনার ৬ দিন পর আজ বুধবার ভোরে শিক্ষার্থীর ভাই আকাশসহ তার ফুপাতো ভাই ও এলাকার কয়েকজন মিলে সুমন দেওয়ানকে ও শিক্ষার্থী ময়নাসহ ঢাকা থেকে একটি মাইক্রোগাড়িতে করে ধরে আনে নিজ এলাকায়।

পরে তাকে শিলাকোঠা এলাকার ফারুক শিকদারের পরিত্যাক্ত কাঠবাগানের একটি কাঠাল গাছের সাথে বেঁধে প্রথমে পিটিয়ে ও পরে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে যখম করে। এক পর্যায়ের তারা সুমনকে রক্তাক্ত অবস্থায় সেখান থেকে ঘারে করে ময়নার ফুপাতো ভাইদের বাড়িতে এনে ফেলে স্ব-পরিবারে পালিয়ে যায়।

ঘটনার সংবাদ পেয়ে সুমন দেওয়ানের স্বজনরা তাকে আহত অবস্থায় দোহার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মাইনুল হাছান তাকে মৃত বলে ঘোষনা করে। দোহার থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সিরাজুল ইসলাম শেখ বলেন, এ ব্যাপারে আমরা লাশের সুরহতল রিপোর্ট শেষে লাশ ময়না তদন্তের জন্য স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। নিহত সুমন দেওয়ানের পক্ষ থেকে একটি হত্যা মামলার প্রক্রিয়া চলছে। নিহত সুমন দেওয়ান উপজেলার দক্ষিণ জয়পাড়া এলাকার মো. ইছাহাক দেওয়ানের ছেলে। সুমনের একটি সন্তান রয়েছে।