১৮ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ওয়ানডেতে বিশ্বরেকর্ড গড়ে ইংল্যান্ডের জয়

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ নটিংহ্যামে সফরকারী অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজের তৃতীয় ওয়ানডেতে সর্বোচ্চ দলীয় ইনিংসের বিশ্বরেকর্ড গড়েছে স্বাগতিক ইংল্যান্ড। মঙ্গলবার দিবরাত্রির ওয়ানডেতে টস হেরে আগে ব্যাটিংয়ে নেমে ৬ উইকেটে ৪৮১ রান তুলে ২৪২ রানের বিশাল জয় পায় তারা। এর আগে ওয়ানডে ইতিহাসে সর্বোচ্চ দলীয় রানের ইনিংস ছিল ৩ উইকেটে ৪৪৪। ২০১৬ সালের ৩০ আগস্ট এই একই ভেন্যুতে পাকিস্তানের বিপক্ষে সেই ইনিংস গড়েছিল

ইংল্যান্ডই। ৫ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে থেকে মঙ্গলবার মাঠে নামে ইংলিশরা। টস জিতে তাদের ব্যাটিংয়ে পাঠিয়েই সবচেয়ে বড় ভুলটা করে অস্ট্রেলিয়া। প্রথম উইকেটেই জেসন রয় ও জনি বেয়ারস্টো ১৫৯ রানের জুটি গড়েন মাত্র ১১৭ বলে। জেসন ৬১ বলে ৭ চার, ৪ ছক্কায় ৮২ রান করে সাজঘরে ফিরে গেলেও শুরুর সেই উড়ন্ত গতি আর থামেনি। জনি বেয়ারস্টো ছিলেন বিধ্বংসী। তিনি ৯২ বলে ১৫ চার, ৫ ছক্কায় ১৩৯ রান করে আউট হন। অস্ট্রেলিয়ার বোলাররা এরপরও ইংলিশ ব্যাটসম্যানদের থামাতে পারেননি। তবে ওয়ানডাউনে নেমে এ্যালেক্স হেলস ৯২ বলে ১৬ চার, ৫ ছক্কায় ১৪৭ রানের ইনিংস উপহার দিলে ইংল্যান্ডের রান সাড়ে চারশ’ পেরিয়ে যায়। দ্বিতীয় উইকেটে বেয়ারস্টোর সঙ্গে ৮৮ বলে ১৫১ এবং চতুর্থ উইকেটে অধিনায়ক ইয়ন মরগানের সঙ্গে ৫৯ বলে ১২৪ রানের জুটি গড়েন তিনি। ব্যাটিং তা-ব চালিয়ে মরগান ৩০ বলে ৩ চার, ৬ ছক্কায় ৬৭ রান করে সাজঘরে ফেরেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ৬ উইকেট হারিয়ে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৪৮১ রানের বিশাল সংগ্রহ গড়ে ইংল্যান্ড। ওয়ানডেতে এটি ইংল্যান্ডের তৃতীয়বার চার শতাধিক রান। সবমিলিয়ে ওয়ানডেতে এখন পর্যন্ত ১৯টি চার শতাধিক রানের দলীয় ইনিংস দেখা গেছে। তবে কোন দলই ইংল্যান্ডের বিপক্ষে তা করতে পারেনি। সর্বাধিক ৬ বার ইনিংসে চার শতাধিক রান দক্ষিণ আফ্রিকার এবং এরপর ভারতের ৫ বার। অস্ট্রেলিয়া, শ্রীলঙ্কা ২ বার করে এবং নিউজিল্যান্ড ১ বার ওয়ানডেতে চার শতাধিক রান করেছে। তবে সাড়ে চারশ’ পেরিয়ে যাওয়া ইনিংস এটিই প্রথম। ওয়ানডের বাকি সেরা ৫টি দলীয় ইনিংস হচ্ছে- পাকিস্তানের বিপক্ষে ২০১৬ সালের ৩০ আগস্ট নটিংহ্যামে ইংল্যান্ডের ৩ উইকেটে ৪৪৪, হল্যান্ডের বিপক্ষে ২০০৬ সালের ৪ জুলাই এ্যামস্টিলভিনে শ্রীলঙ্কার ৯ উইকেটে ৪৪৩, ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ২০১৫ সালের ১৮ জানুয়ারি জোহানেসবার্গে দক্ষিণ আফ্রিকার ২ উইকেটে ৪৩৯, অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ২০০৬ সালের ১২ মার্চ জোহানেসবার্গে দক্ষিণ আফ্রিকার ৯ উইকেটে ৪৩৮ এবং ভারতের বিপক্ষে ২০১৫ সালের ২৫ অক্টোবর মুম্বাইয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার ৪ উইকেটে ৪৩৮।

ইংল্যান্ডের ইনিংস- ৪৮১/৬; ৫০ ওভার (হেলস ১৪৭, বেয়ারস্টো ১৩৯, জেসন ৮২, মরগান ৬৭; রিচার্ডসন ৩/৯২)।

ইংল্যান্ডের ৪৮১ রানের জবাবে শেষ পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়া ৩৭ ওভারে ২৩৯ রানে অলআউট হয়। এর ফলে ইংল্যান্ড ২৪২ রানে বিশাল জয় পায়।