২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ভারতকে ইরানের হুঁশিয়ারি

ভারতকে ইরানের হুঁশিয়ারি

অনলাইন ডেস্ক ॥ ইরানের ছাবাহার বন্দরে প্রস্তাবিত বিনিয়োগ না করায় দিল্লিকে হুঁশিয়ারি দিয়েছে তেহরান। পাশাপাশি, ইরান থেকে তেল আমদানি কমালে ভারত সে দেশ থেকে যে আর্থিক সুবিধা পেয়ে থাকে, তা-ও বন্ধ করে দেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে। সম্প্রতি একটি আলোচনা সভায় এ কথা বলেন ভারতে নিযুক্ত ইরানের উপ-রাষ্ট্রদূত মাসুদ রেজভানিয়ান রাহাঘি। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

ইরানের ছাবাহার বন্দর ভারতের জন্য কৌশলগতভাবে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। পাকিস্তানের সঙ্গে অপ্রকৃষ্ট কূটনৈতিক সম্পর্ক ও সেদেশের অভ্যন্তরীণ টালমাটাল পরিস্থিতির জন্য করাচিসহ পাকিস্তানি বন্দরগুলো ভারতের জন্য আর নিরাপদ নয়।

তাই আফগানিস্তান, মধ্য-এশিয়া, পারস্য উপসাগরে ভারতের পণ্য আনা-নেওয়ার জন্য ২০১৬ সালে ভারত-ইরান-আফগানিস্তান মিলে সমুদ্রবন্দর হিসেবে ছাবাহারকে ব্যবহার করার চুক্তি স্বাক্ষর করে।

চুক্তি অনুসারে, ভারত ইরানের বন্দরটি ব্যবহার করতে পারবে কিন্তু, বদলে ইরানে বিনিয়োগ করতে হবে তাদের। কিন্তু মার্কিন চাপে পড়ে ইরানে প্রস্তাবিত বিনিয়োগ করছে না ভারত, এমনটাই দাবি ইরানি উপ-রাষ্ট্রদূতের।

ইরানের সঙ্গে সমস্ত বাণিজ্য-সম্পর্ক বন্ধ করতে যুক্তরাষ্ট্র বিভিন্নভাবে চাপ বাড়াচ্ছে। নয়া দিল্লিকে ইতোমধ্যেই এই হুঁশিয়ারি দিয়েছে ট্রাম্প প্রশাসন। তা নিয়ে সরব হয়েছে ইরানও। ভারত এই মুহূর্তে ইরান থেকে যে পরিমাণ তেল আমদানি করে, তার দশ শতাংশ কমানোও তেহরানের পক্ষে মেনে নেওয়া অসম্ভব। সেক্ষেত্রে তেলের দামে ভারত যে বিশেষ সুবিধা পেয়ে থাকে, তা সরিয়ে নেওয়া হতে পারে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন ইরানি উপ-রাষ্ট্রদূত মাসুদ।

ইরাক ও সৌদি আরবের পরেই ভারতের জন্য এ মুহূর্তে ইরান তৃতীয় বৃহত্তম তেল সরবরাহকারী দেশ। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে পশ্চিম এশিয়া ও পারস্য উপসাগর অঞ্চলে চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছে ভারতের কূটনৈতিক অবস্থান।