২০ জুলাই ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বরিশালে আওয়ামীলীগ নেতা হত্যার চেষ্ঠা ॥ গ্রেফতারের দাবিতে মানববন্ধন

বরিশালে আওয়ামীলীগ নেতা হত্যার চেষ্ঠা ॥ গ্রেফতারের দাবিতে মানববন্ধন

স্টাফ রিপোর্টার, বরিশাল ॥ জেলার বাবুগঞ্জ উপজেলার বীরশ্রেষ্ঠ জাহাঙ্গীরনগর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা ও ছুটিতে থাকা সরকারী কর্মচারী মাহবুবুল হক বাবু হাওলাদারকে হত্যার উদ্দেশ্যে প্রকাশ্যে অপহরন করে হামলা চালিয়ে কুপিয়ে মারাত্মক জখম করা হয়েছে। একপর্যায়ে এলাকাবাসীর তোপের মুখে হামলাকারী চিহ্নিত সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যেতে বাধ্য হয়।

মুর্মুর্ষ অবস্থায় আহত আওয়ামী লীগ নেতাকে প্রথমে বরিশাল শেবাচিম ও পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় হামলাকারী সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হলেও পুলিশ রহস্যজনক কারণে এখনও কাউকে গ্রেফতার করতে পারেননি। ফলে প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের হস্তক্ষেপ কামনা করে সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারপূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবীতে বুধবার বিকেলে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলার বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর জাদুঘরের সামনে জাহাঙ্গীরনগর ইউনিয়নের সর্বস্তরের জনগনের আয়োজনে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন চলাকালীন সময় অনুষ্ঠিত সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন সাবেক প্রধানশিক্ষক মোঃ সেন্টু মিয়া। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, সাবেক ইউপি সদস্য কবির হাওলাদার, আওয়ামীলীগ নেতা মিলন চৌকিদার, জামাল খান প্রমুখ। বক্তারা বাবু হাওলাদারের ওপর হামলাকারী চিহ্নিত সন্ত্রাসী ব্রাহ্মনদিয়া গ্রামের আবুল কালাম আজাদ, সাইফুল ইসলাম রানা, খোকন চৌকিদার, রমজানকাঠী গ্রামের শাহিন প্যাদাসহ তাদের সহযোগীদের অনতিবিলম্বে গ্রেফতারপূর্বক দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবী করেন। শেষে বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়।

উল্লেখ্য, ব্রাহ্মনদিয়া গ্রামের বাসিন্দা আওয়ামী লীগ নেতা ও ছুটিতে থাকা সরকারী কর্মচারী মাহবুবুল হক বাবু গত ২৩ জুন একটি জানাজার নামাজ থেকে রাত আটটার দিকে অটোরিকসাযোগে বাড়ি ফিরছিলেন। পথিমধ্যে আগরপুর কওমী মাদ্রাসার দক্ষিণ পাশ থেকে উল্লেখিত সন্ত্রাসীরা বাবুর পথরোধ করে কুপিয়ে ও পিটিয়ে গুরুত্বর জখম করে। একপর্যায়ে সন্ত্রাসীরা বাবুকে প্রকাশ্যে অপহরন করে পাশ্ববর্তী ঘন্ডেশর এলাকায় নিয়ে হত্যার চেষ্ঠা চালায়। মুহুর্তের মধ্যে অপহরনের খবর সর্বত্র ছড়িয়ে পরলে গ্রামবাসী জড়ো হয়ে সন্ত্রাসীদের ধাওয়া করে। উপায়অন্তুর না পেয়ে সন্ত্রাসীরা বাবু হাওলাদারকে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। বাবুগঞ্জ থানার ওসি আব্দুস সালাম জানান, আসামীদের গ্রেফতারের জন্য পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।