১০ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ইমরান খানের সম্ভাব্য মন্ত্রিসভা

ইমরান খানের সম্ভাব্য মন্ত্রিসভা

অনলাইন ডেস্ক ॥পাকিস্তানের সাধারণ নির্বাচনে জয়ী হওয়ার অনেক দিন পেরিয়ে গেলেও এখন পর্যন্ত শপথ নিতে পারেননি ইমারান খান। দেশটির পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হিসেবে আগামী সপ্তাহে তার শপথ নেওয়ার কথা থাকলেও, তা পিছিয়ে যাওয়ারও আশঙ্কা রয়েছে। শপথ অনুষ্ঠানের এই অনিশ্চয়তার মধ্যেও পিটিআই’র এই নেতা মন্ত্রিসভায় কাকে কাকে রাখছেন তা নিয়ে চলছে নানা জল্পনা-কল্পনা।

এক ধাপ এগিয়ে এসে দেশটির সংবাদমাধ্যমগুলো এরইমধ্যে ইমরানের সম্ভাব্য মন্ত্রিসভা নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। দ্য ডন, জিও নিউজের খবরে বলা হয়েছে, ইমরানের কেবিনেটের সদস্য সংখ্যা হতে পারে ১৫ থেকে ২০ জন। নতুন পাকিস্তান গড়ার সংকল্পে ইমরানের প্রধান সহযোগী হিসেবে যাদের নাম প্রথমেই উঠে এসেছে, তারা হলেন- আসাদ উমর, পারভেজ খাট্টার, চৌধুরী মোহাম্মদ সারওয়ার, জারতাজ গুল, আরিফ আলভি, ফাওয়াদ চৌধুরী, শিরিন মাজারি।

কিন্তু নির্বাচনে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা না পাওয়ায় সরকার গঠনের জন্য ছোট দলগুলোর সঙ্গে জোট বাঁধতে হবে ইমরানের দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই)’কে। সেক্ষেত্রে জোটসঙ্গী হিসেবে সম্ভাব্য মন্ত্রিসভায় ঠাঁই পেতে পারেন মুত্তাহিদা কওমি মুভমেন্ট, পিএমএল কিউ এবং বেলুচিস্তান আওয়ামী পার্টির কয়েকজন সদস্য।

এদিকে ইমরানের সবচেয়ে আস্থাভাজন হিসেবে আসাদ উমর, পারভেজ খাট্টার, শিরিন মাজারি, জাহাঙ্গীর খান তারিন ও শাহ মাহমুদ কুরেশীর মন্ত্রিসভায় ঠাঁই পাওয়া প্রায় নিশ্চিত।

বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, পাকিস্তানের সম্ভাব্য প্রতিরক্ষামন্ত্রী হতে যাচ্ছেন সাবেক সাংবাদিক শিরিন মাজারি। যিনি একসময় ভারতের জনবহুল স্থানে পরমাণু অস্ত্র হামলার পক্ষে ছিলেন।

ইসলামাবাদ-৩ আসন থেকে নির্বাচিত আসাদ উমর এনগ্রো পাকিস্তান নামের একটি প্রতিষ্ঠানের সিইও ছিলেন। একজন সাবেক সেনাসদস্যের পুত্র আসাদ উমর অর্থমন্ত্রী হতে পারেন বলে শোনা যাচ্ছে।

পাকিস্তানের সাবেক সেনাশাসক জেনারেল পারভেজ মোশাররফ সরকারের মন্ত্রী জাহাঙ্গীর খান তারিন এবারের মন্ত্রিসভায়ও ঠাঁই পেতে যাচ্ছেন। ১৯৫৩ সালে বাংলাদেশের কুমিল্লায় জন্ম নেন তিনি।

খাইবার পাখতুনখাওয়া প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী পারভেজ খাট্টারও ঠাঁই পাচ্ছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায়। সম্ভাব্য পররাষ্ট্রমন্ত্রী বা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হতে পারেন পিটিআই’র ভাইস প্রেসিডেন্ট শাহ মাহমুদ কোরেশী।

অপরদিকে, আইনি জটিলতায় ফল স্থগিত করা লাহোরের এনএ-১৩১ আসনটিতেও পিটিআই নেতা ইমরান খানকে আনুষ্ঠানিকভাবে বিজয়ী ঘোষণা করেছে পাকিস্তানের নির্বাচন কমিশন। ওই আসনটিতে ভোট পুনর্গণনার জন্য হাইকোর্টের দেওয়া আদেশটি সুপ্রিম কোর্টে খারিজ হয়ে যাওয়ার পর বৃহস্পতিবার (৯ আগস্ট) কমিশন আনুষ্ঠানিক ফল ঘোষণা করে।