২১ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মার্কিন নাগরিকত্ব পেলেন ট্রাম্পের শ্বশুর-শাশুড়ি

মার্কিন নাগরিকত্ব পেলেন ট্রাম্পের শ্বশুর-শাশুড়ি

অনলাইন ডেস্ক ॥ যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকত্ব পেয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের শ্বশুর-শাশুড়ি। এক ব্যক্তিগত অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তাদের নাগরিকত্ব প্রদান করা হয়। খবর বিবিসি’র।

খবরে বলা হয়, মার্কিন ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্পের বাবা ভিক্টর নাভস ও মা আমালিজা নাভস জন্মসূত্রে স্লোভেনিয়ার নাগরিক। বৃহস্পতিবার নিউ ইয়র্কে এক ব্যক্তিগত অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তারা মার্কিন নাগরিকত্ব পেয়েছেন। তাদের আইনজীবী খবরটি নিশ্চিত করেছেন।

তাদের আইনজীবী মাইকেল ওয়াইল্ডস জানান, তারা এতদিন ধরে মেলানিয়ার গ্রিন কার্ডের পৃষ্ঠপোষকতায় যুক্তরাষ্ট্রে বসবাস করছিলেন।

উল্লেখ্য, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প পূর্বে পরিবার-ভিত্তিক অভিবাসনের বিরোধীতা করেছেন। তবে নিজের শ্বশুর-শাশুড়ির ক্ষেত্রে কিছু বলেননি তিনি। পূর্বে তিনি যুক্তি দেখান, আত্মীয়-স্বজনের চেয়ে মেধা-ভিত্তিক পেশাদারদের অভিবাসনে অগ্রাধিকার দেওয়ার। এজন্য তিনি ব্যাপক সমালোচনারও শিকার হয়েছেন।

মেলানিয়া ট্রাম্প নিজেও মার্কিন নাগরিকত্ব পান ২০১৬ সালে। তখন তিনি একজন মডেল হিসেবে কাজ করতেন। মার্কিন অভিবাসন বিষয়ক আইন অনুসারে, মেলানিয়ার পিতা-মাতা’র অন্তত পাঁচ বছর গ্রিন কার্ড ব্যবহার করে যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসের পর নাগরিকত্বের জন্য আবেদন করার কথা ছিলো।

মার্কিন নাগরিকত্ব ও অভিবাসন সেবা’র ওয়েবসাইট অনুসারে, নিউ ইয়র্কে সাধারণ আবেদন গ্রহণ হতে গড়ে ১১ থেকে ২১ মাস সময় লাগে। সেক্ষেত্রে তা বেশকিছু বিষয় ও আবাসনের প্রয়োজনীয়তা বিবেচনা করা হয়।

ট্রাম্পের শ্বশুর-শাশুড়ির আইনজীবী ওয়াইল্ডস জানান, তারা পাঁচ বছরের শর্ত পূরণ করেছে। তবে এর বেশি কিছু জানাতে অস্বীকৃতি জানান তিনি।

ট্রাম্পের শ্বশুর ভিক্টর পূর্বে স্লোভেনিয়ার সেভনিকা শহরের একজন গাড়ি বিক্রেতা ছিলেন। তার স্ত্রী আমালিজা কাজ করতেন একটি টেক্সটাইল কারখানায়। তাদের দুজনেরই বয়স ৭০ এর কোঠায়।