২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বাংলাদেশের লক্ষ্য ফাইনাল, সেমিতে প্রতিপক্ষ ভুটান

বাংলাদেশের লক্ষ্য ফাইনাল, সেমিতে প্রতিপক্ষ ভুটান

রুমেল খান ॥ ‘জিম করা শেষ। এবার ফাইনালে ওঠার পালা...’ বুধবার জিমে ঘাম ঝরানোর পর আঁখি, মনিকা, রূপনাদের ছবি বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে পোস্ট হওয়ার পর তাতে এমনই মন্তব্য এক ফুটবলপ্রেমীর। আরেক ফুটবলরসিক তো নিজের ফেসবুক ওয়ালে স্ট্যাটাস দিয়েছেন, ‘ভুটানীদের ফুটানি মজিয়ে ফাইনালে উঠতে যাচ্ছে বঙ্গকন্যারা।’ অন্যজন লিখেছেন, ‘ভুটানকে কয়টা গোল উপহার দিতে পারে ছোটনের শিষ্যারা?’

অভিজ্ঞতা এবং ক্রমাগত সাফল্য তৈরি করে শক্ত মানসিকতা। ফলে লক্ষ্য পূরণের জন্য কঠিন পথ পাড়ি দিতে ভয় লাগে না। এই যেমন বাংলাদেশ অনুর্ধ-১৫ জাতীয় নারী ফুটবল দল মোটেও ভীত নয়। বরং তারা দৃঢ় আত্মবিশ্বাসে বলীয়ান। আজ সন্ধ্যা ৭টায় তারা সেই আত্মবিশ্বাস নিয়েই থিম্পুর চাংলিমিথাং স্টেডিয়ামে খেলতে নামবে, দ্বিতীয় সেমিফাইনাল ম্যাচে। প্রতিপক্ষ স্বাগতিক ভুটান। ফলে স্বাগতিক দলের পক্ষেই দর্শক সমর্থন বেশি থাকবে, এটাই স্বাভাবিক। চাপও থাকবে। তবে দর্শক, মাঠ, প্রতিপক্ষ, চাপ... এগুলো মাথায় না নিয়ে শুধু নিজেদের সেরাটা ও স্বাভাবিক ফুটবল খেলে জয় কুড়িয়ে নিতে চায় মারিয়ারা। আর জিতে কাটতে চায় সাফ অনুর্ধ-১৫ নারী চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালের টিকেট। ঠিক যেমনটি কেটেছিল আট মাস আগে। সেবার নিজেদের মাঠে অনুষ্ঠিত ওই আসরে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল বাংলার বাঘিনীরা।

কাক্সিক্ষত সাফল্য স্পর্শ করতে দরকার আর মাত্র দুটি ধাপ। তারই প্রথমটি আজ। একই ভেন্যুতে এর আগে বিকেল ৪টায় নেপাল মোকাবেলা করবে গত আসরের রানার্সআপ ভারতকে। আগের আসরে ভুটানকে নিজেদের মাটিতে লীগ ম্যাচে ৩-০ গোলে হারিয়ে ফাইনালে উঠেছিল বাংলাদেশ। এবার একই দলকে তাদেরই মাটিতে সেমিতে হারিয়ে ফাইনালে ওঠার পালা বাংলার বাঘিনীদের। এই আসরে বর্তমান শিরোপাধারী বাংলাদেশ ‘বি’ গ্রুপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে শোচনীয়ভাবে ১৪-০ গোলে হারায় পাকিস্তানকে। দ্বিতীয় ম্যাচে ৩-০ গোলে নেপালকে হারিয়ে অপরাজিত গ্রুপসেরা হয়ে নিশ্চিত করে শেষ চারে খেলা। পক্ষান্তরে ‘এ’ গ্রুপে ভুটান নিজেদের প্রথম ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে ৬-০ গোলে উড়িয়ে শুভসূচনা করে। পরের ম্যাচে অবশ্য শক্তিশালী ভারতের কাছে হেরে যায় ১-০ গোলে। হারলেও ক্ষতি হয়নি তাদের। কেননা ঠিকই গ্রুপ রানার্সআপ হয়ে সেমিতে ওঠে তারা।

বুধবার যথারীতি সকালে জিমে অংশ নেয় মেয়েরা। এরপর ম্যাচ ভেন্যু চাংলিমিথাং স্টেডিয়ামে গিয়ে হাল্কা অনুশীলন করে। সুখবর হলো এখনও দলে কোন ইনজুরি সমস্যা নেই।

সেমিফাইনালে ভুটানকে শক্তিশালী মানলেও বাংলাদেশের কিশোরীদের নিয়ে আত্মবিশ্বাসী ছোটন, ‘তিনি বলেন, ‘ভুটান বাংলাদেশের চেয়ে শক্তিশালী দল। তাছাড়া তারা স্বাগতিক দল। স্থানীয় সমর্থন পাবে। সবকিছু ছাপিয়ে আমরা খেলব। আমাদের সর্বোচ্চটা দিয়ে খেলব এবং জেতার জন্যই খেলব।’