২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের সব সেক্টরে উন্নয়ন হয়েছে : নাসিম

শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের সব সেক্টরে উন্নয়ন  হয়েছে : নাসিম

স্টাফ রিপোর্টার ॥ জাতীয় নির্বাচনে ভোট প্রদানের আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাস্তবায়িত দেশের উন্নয়নসমূহ মনে রাখার জন্য দেশের জনগনের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের সব সেক্টরে উন্নয়ন সাধিত হয়েছে, যা জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত। যোগ্য নেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন দলকেই ভোট দিতে হবে। ভুল করলে দেশ আবার অন্ধকারে নিমজ্জিত হবে। থেমে যাবে দেশের উন্নয়নের গতি। দেশের উন্নয়নের বর্তমান স্রোতে অব্যাহত থাকলে খুব শীঘ্রই বাংলাদেশ এশিয়ার অন্যতম সেরা দেশ হবে।

বুধবার রাজধানীর তেজগাঁওস্থ জাতীয় নাক, কান ও গলা ইনস্টিটিউট আয়োজিত কক্লিয়ার ইমপ্লান্ট বরাদ্দ বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। ইনস্টিটিউটের পরিচালক অধ্যাপক ডা. মাহমুদুল হাসানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক, এমপি, সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. জিল্লার রহমান, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ডা. প্রাণ গোপাল দত্ত প্রমুখ।

বিএনপি নেতৃবৃন্দের উদ্দেশ্যে আওয়ামীলীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম বলেন, যোগ্যভাবে নির্বাচনে খেলার জন্য প্রস্তুত হোন। ফাউল করলে লাল কার্ড পেয়ে আউট হয়ে যাবেন। নির্বাচনে ভোট প্রদান নিয়ে জনগণকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করবেন না। ভোট জনগণের সাংবিধানিক অধিকার। সাংবিধানিকভাবে সঠিক সময়েই নির্বাচন হবে।

কানে শোনে না এমন ৪০টি শিশুকে নামমাত্র খরচে কক্লিয়ার ইমপ্লান্ট বিতরণের বিষয়টি তুলে ধরে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, মমতাময়ী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষেই এমন ভালোবাসামাখা কাজ করা সম্ভব। এমন অসংখ্য উদাহরণ তিনি দেখিয়েছেন।

দেশের স্বাস্থ্য সেক্টরের উন্নয়নের কিছু চিত্র তুলে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় এলেই দেশের উন্নয়ন হয়। স্বাস্থ্য সেক্টরের উন্নয়ন আজ দৃশ্যমান হয়েছে। স্বাস্থ্য বিষয়ক টেশসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে বাংলাদেশের বেশ অগ্রগতি হয়েছে। স্বাস্থ্যখাতে যুগান্তকারী সফলতা পেয়েছে বাংলাদেশ। প্রশংসিত হয়েছে জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে। দেশের সর্বত্র বিস্তার লাভ করেছে ডিজিটাল স্বাস্থ্যসেবার নেটওয়ার্ক। এমন মজবুত অবকাঠামোর ওপর দাাঁড়িয়ে বাংলাদেশের স্বাস্থ্যসেবা প্রদানের মাত্রার ব্যাপক বিস্তার ঘটেছে। বাংলাদেশের স্বাস্থ্যসেবার অবকাঠামো বিশ্বের উন্নয়নশীল দেশের মডেল হয়ে দাঁড়িয়েছে জনবল বৃদ্ধি, অবকাঠামোর উন্নয়ন, মাতৃ ও শিশু মৃত্যু হ্রাস, ওষুধের সরবরাহ বৃদ্ধি, কমিউনিটি ক্লিনিক চালু , স্বাস্থ্য খাতে ডিজিটাল বাংলাদেশ কার্যক্রম ইত্যাদি উন্নয়নমূলক উদ্যোগ গ্রহণ করে সরকার।

দেশের ৯৯ ভাগ উপজেলা, ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ে রয়েছে প্রাথমিক স্বাস্থ্য পরিসেবার ব্যবস্থা। বর্তমানে প্রতি মাসে ৮০ থেকে ৯০ লাখ মানুষ কমিউনিটি ক্লিনিক থেকে সেবা নেন। দেশে অনুর্ধ ১২ মাস বয়সের শিশুদের সকল টিকা প্রাপ্তির হার ৮১ ভাগ। হ্রাস পেয়েছে মাতৃ ও শিশুর মৃত্যুহার। পোলিও ও ধনুষ্টংকারমুক্ত হয়েছে দেশ।

বিভিন্ন কর্মসূচীর মাধ্যমে স্বাস্থ্য, জনসংখ্যা ও পুষ্টি উপ-খাত সমূহের সার্বিক উন্নয়ন কার্যক্রম বাস্তবায়িত হচ্ছে। এই সব কর্মসুচির মূল লক্ষ্য হল জনগণের বিশেষ করে মহিলা, শিশু এবং সুবিধাবঞ্চিতদের স্বাস্থ্য, জনসংখ্যা ও পুষ্টি সেবা প্রাপ্তির চাহিদা বৃদ্ধি, কার্যকর সেবা প্রাপ্তি সহজলভ্য এবং স্বাস্থ্য, জনসংখ্যা ও পুষ্টি সেবা সমূহের সর্বোত্তম ব্যবহার নিশ্চিত করার মাধ্যমে জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার হ্রাস, রোগের প্রাদুর্ভাব ও মৃত্যুর হার হ্রাস এবং পুষ্টিমান বৃদ্ধি করা। দেশব্যাপী একটি ব্যাপক-ভিত্তিক স্বাস্থ্যসেবা নেটওয়ার্ক গড়ে তোলা হয়েছে বলে জানান মোহাম্মদ নাসিম।

নির্বাচিত সংবাদ