১৪ নভেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সৌদি আরবকে ৪শ’ বোমা দিচ্ছেই স্পেন

সৌদি আরবকে ৪শ’ বোমা দিচ্ছেই স্পেন

অনলাইন ডেস্ক ॥ সৌদি আরবে ৪শ’ লেজার-নিয়ন্ত্রিত বোমা বিক্রয় চুক্তি স্থগিত ঘোষণার পর শেষ পর্যন্ত আবার তা বিক্রির পথেই হাঁটছে স্পেন।

ইয়েমেনের স্কুলবাসে সৌদি জোটের বিমান হামলায় বহু শিশু নিহত হওয়ার জেরে ক’দিন আগেই রিয়াদকে বোমা দেওয়া হবে না বলে জানিয়েছিল স্পেন।

বৃহস্পতিবার সেকথা উল্টে দিয়ে ফের বোমা বিক্রির সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন স্পেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জোসেপ বরেল।

এ প্রসঙ্গে অন্ডা সেরো রেডিওকে তিনি বলেন,“আগের সরকার আমলে স্বাক্ষরিত ২০১৫ সালের একটি চুক্তির সম্মানার্থেই এই বোমাগুলো সরবরাহ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।”

ইয়েমেন যুদ্ধে সৌদি আরবের বিরুদ্ধে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ থাকার পরও স্পেন তাদেরকে বোমা দেবে বলে জানাল।

জাতিসংঘের হিসাবমতে, ইয়েমেন যুদ্ধে এ পর্যন্ত প্রাণ হারিয়েছে ১০ হাজারের বেশি মানুষ এবং দুর্ভিক্ষের দ্বারপ্রান্তে আছে ৮৪ লাখ মানুষ। তাদের এ দুর্ভোগের জন্য অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালসহ আন্তর্জাতিক মানবাধিকার গোষ্ঠীগুলো সৌদি আরবের কাছে পশ্চিমা দেশগুলোর অস্ত্র বিক্রির নিন্দা-সমালোচনা করে আসছে।

গত মাসে ইয়েমেনের একটি স্কুল বাসে সৌদি আরবের নেতৃত্বাধীন বাহিনীর বিমান হামলায় ৪০ জনেরও বেশি শিশু নিহত হলে বিশ্বজুড়ে এর সমালোচনা হয়েছে।

তবে সৌদি আরবকে বোমা দেওয়ার ব্যাপারে স্পেনের মন্ত্রী বরেল বলছেন, “সরকারের কয়েকটি মন্ত্রণালয় বেশ কয়েক সপ্তাহ ধরে বিষয়টি নিয়ে কাজ করেছে এবং অস্ত্র বিক্রি অনুমোদন কমিশন তিনবার চুক্তি পর্যালোচনা করেছে। কিন্তু চুক্তিটি বাস্তবায়ন না করার কোনো কারণ আমরা পাইনি।”

ইয়েমেনে বেসামরিক নাগরিকদের ওপর এসব অস্ত্র ব্যবহার হবে না এমন কোনো নিশ্চয়তা স্পেন পেয়েছে কি-না এমন প্রশ্নের জবাবে বরেল বলেন,“লেজার নিয়ন্ত্রিত বোমাগুলো তাদের লক্ষ্যবস্তুর এক মিটারের মধ্যে একেবারেই সুনির্দিষ্টভাবে আঘাত হানতে সক্ষম।”

তিনি বলেন,“এ ধরনের অস্ত্র এলোপাতাড়িভাবে ছোড়া কম আধুনিক অস্ত্রের মতো নয়,যে তাতে নিন্দা করার মত ব্যাপক কোনো প্রাণহানি ঘটতে পারে।”