১৬ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কুমুদিনী হাসপাতালে নবজাতক বদলে ঘটনায় নার্স বরখাস্ত

কুমুদিনী হাসপাতালে নবজাতক বদলে ঘটনায় নার্স বরখাস্ত

নিজস্ব সংবাদদাতা,মির্জাপুর॥ কুমুদিনী হাসপাতালে দুই প্রসূতি মায়ের নবজাতক বদল নিয়ে হৈ চৈ’র ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গলবার দুপুরে কুমুদিনী হাসপাতালের ডেলিভারী ওয়ার্ডে এই নবজাতক বদলের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় কর্তব্যরত এক নার্সকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

জানা গেছে, মির্জাপুর উপজেলার ভাবখন্ড গ্রামের হারুন অর রশিদের স্ত্রী আকলিমা বেগম সন্তান প্রসবের জন্য গত সোমবার কুমুদিনী হাসপাতালে ভর্তি হন। অন্যদিকে মঙ্গলবার দুপুরে হাসপাতালের একই ওয়ার্ডে টাঙ্গাইলের কাগমারা এলাকার বাচ্চু মিয়ার স্ত্রী পারভীন বেগমও সন্তান প্রসবের জন্য ভর্তি হন। সন্তান প্রসব করানোর জন্য দুপুরে আকলিমা বেগম ও পারভীন বেগমকে অপারেশন থিয়েটারে নেয়া হয়।

প্রথমে ডাক্তাররা আকলিমাকে সিজারিয়ানের মাধ্যমে এক পুত্র সন্তান প্রসব করান এবং নবজাতককে ওই ওয়ার্ডের কর্তব্যরত নার্স প্রিয়া গোমেজ পারভীনের আত্মীয়দের কোলে তুলে দেন।

অন্যদিকে কিছুক্ষণ পর ডাক্তাররা পারভীনকেও সিজারিয়ানের মাধ্যমে পুত্র সন্তান প্রসব করান। একইভাবে কর্তব্যরত অন্য এক নার্স নবজাতককে নিয়ে পারভীনের আত্মীয়দের কাছে নিয়ে যান। তখন পারভীনের আত্মীয়রা বলেন আমাদের বাচ্চা তো আগেই পেয়েছি। এর পরেই শুরু হয় হৈ চৈ। কোন নবজাতক কোন প্রসুতি মায়ের এ নিয়ে আকলিমা ও পারভীনের আত্মীয়দের মধ্যে বাকবিতন্ডাও হয়। হৈ চৈ শোনে হাসপাতালে কর্তৃপক্ষ ডাক্তার নার্স ও দুই প্রসূতি মায়ের বক্তব্য শোনে যার যার নবজাতক তার তার কাছে বুঝিয়ে দেন।

কুমুদিনী হাসপাতালের পরিচালক ডাক্তার প্রদীপ কুমার রাযের সঙ্গে এ বিয়য়ে কথা হলে তিনি বলেন, বিষয়টি অপারেশন থিয়েটারে কতর্ব্যরত ডাক্তার, নার্স ও উভয় প্রসূতির কাছ থেকে জানার পর যার যার সন্তান তার তার কাছে দেয়া হয়েছে। দায়িত্ব অবহেলার কারণে কতর্ব্যরত নার্স প্রিয়া গোমেজের বিরুদ্ধে হাসপাতালের মেট্রনকে ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে বলে তিনি জানান।