২১ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

এবার রান্নার তেলে চলবে গাড়ি

রান্নার তেল বা কুকিং অয়েল ছাড়া রান্নাঘর অসম্পূর্ণ। আর এই কুকিং অয়েলেই এবার চলবে গাড়ি। রান্নাঘরের এই গুরুত্বপূর্ণ উপাদানটিই হতে পারে পেট্রোল, ডিজেলের বিকল্প। কিছুদিন আগেই বিমান ওড়ানোর কাজে ব্যবহার করা হয়েছে জৈব জ্বালানিকে। নিত্যদিনের ব্যবহৃত কুকিং অয়েলকে জৈব জ্বালানিতে পরিবর্তিত করার উদ্যোগটি নিয়েছে দেরাদুনের ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অব পেট্রোলিয়াম। এই জৈব জ্বালানিই এবার গাড়ি ও বিমান চালাতে সাহায্য করবে। ইতোমধ্যেই ব্যবহারিক কুকিং অয়েল থেকে তৈরি জৈব জ্বালানি ব্যবহার করছে ফাস্ট ফুড সংস্থা ম্যাকডোনাল্ড। তথ্য জানাচ্ছে, উদ্যোগটি ফাস্ট ফুড সংস্থাটিকে ৩৫,০০০ লিটার ব্যবহৃত কুকিং অয়েলকে বায়ো ডিজেলে পরিবর্তিত করতে সাহায্য করছে। যার ফলে বার্ষিকভাবে ৪২০,০০০ লিটার অপরিশোধিত তেল বাঁচানো সম্ভব হয়েছে। সম্প্রতি, খাদ্য নিয়ন্ত্রক সংস্থা এফএসএসএআই সমস্ত খাবারের দোকানগুলোর কুকিং অয়েলকে পুনরায় ব্যবহার করতে নিষেধ করছে। পরিবর্তে সেগুলোকে জৈব জ্বালানি নির্মাতাদের কাছে সরবরাহ করার নির্দেশ দিচ্ছে।

উদ্ভিজ তেল, চর্বি জাতীয় পদার্থ, শেওলা থেকে উৎপন্ন হতে পারে জৈব জ্বালানি। একইভাবে জীবাশ্ম জ্বালানির বিকল্প হিসেবে ব্যবহৃত হতে পারে পশুজাত ফ্যাট। জীবাশ্ম জ্বালানির নির্ভরতা কমাতে ভারত জৈব জ্বালানির প্রচার করছে। সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ‘ন্যাশনাল পলিসি অন বায়োফুয়েলস ২০১৮’ সামনে এনেছেন। যেখানে তিনি আগামী চার বছরে তিনগুণ বেশি ইথানল উৎপাদনের কথা বলেছেন। যেটি ভারতের তেল আমদানির বিলকে অনেকাংশে কমাতে সাহায্য করবে। -জিনিউজ