১৫ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কোন রাজনৈতিক দল আমাদের বন্ধু নয় : এরশাদ

কোন রাজনৈতিক দল আমাদের বন্ধু নয় : এরশাদ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, ক্ষমতা ছাড়ার পর একটি দিনও মুক্ত ভাবে রাজনীতি করতে পারিনি, আজো পারিছনা। তবে, আগামী নির্বাচনে জয়ী হয়ে মুক্ত রাজনীতিবিদ হবো। মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করবো, দেশে সুশাসন ফিরিয়ে দেবো। প্রতিহিংসার রাজনীতি বন্ধ করে সহমর্মীতা আর ভালোবাসার রাজনীতি উপহার দেব।

বুধবার বিকেলে বসুন্ধরা আন্তর্জাতিক সম্মেলন সিটিতে দু’দিন ব্যাপী দলের তথ্য-প্রযুক্তি বিষয়ক কর্মশালার সমাপনী অধিবেশনে এসব কথা বলেন তিনি।

এরশাদ বলেন, আমরা কখনো প্রতিহিংসার রাজনীতি করিনি। যারা প্রতিহিংসার রাজনীতি করে আমাকে জেলে দিয়েছে, আমার পার্টি ধংস করতে চেয়েছে। আমরা তাদের কথা মনে রাখবো। দেশের মানুষও তাদের কথা মনে রাখবে।

নতুন প্রযুক্তি ব্যবহার করে ৫ কোটি ভোটারের কাছে যাবো একথা জানিয়ে সাবেক সেনা প্রধান এরশাদ বলেন, নতুন প্রজন্মেও কাছে আমাদের কথাগুলো তুলে ধরবো। আমার বিশ্বাস তারা আমাদের ভোট দিয়ে জয়ী করবে। ১৯৯৬ সালের নির্বাচনের কথা উল্লেখ করে হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেন, আমরা সমর্থন না দিলে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসেতে পারতো না। কিন্তু তাদের কাছে আমরা সুবিচার পাইনি, আমরা সবার কাছেই প্রতারিত হয়েছি। আমাকে জেলে পাঠিয়ে ৫ কোটি টাকা জরিমানাও করেছিলো।

নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি আরো বলেন, আমাদের বন্ধু আমরাই, কোন রাজনৈতিক দল আমাদের বন্ধু নয়। আমাদের প্রকৃত বন্ধু কৃষক, শ্রমিক এবং মেহনতি মানুষ। আমরা তাদের জন্যই রাজনীতি করি। তিনি আক্ষেপ করে বলেন, বিএনপি ক্ষমতায় গিয়ে তাদের সাড়ে ৫ হাজার মামলা এবং আওয়ামী লীগ ৬ হাজার মামলা তুলে নিয়েছে। আমার নামের মামলা গুলে এখনো চলছে। জেল খেটেছি, কষ্ট পেয়েছি অনেক। আজ উজ্জীবিত জাতীয় পার্টির জাগরণ দেখে মনের সব কষ্ট দূর হয়েছে। তিনি নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে প্রশ্ন করেন ক্ষমতায় যেতে তোমারা প্রস্তুুত? তখন সবাই সমস্বরে হাত তুলে সমর্থন ব্যক্ত করেন।

এরআগে জাতীয় পার্টির দলীয় অ্যাপস এর উপর ধারনা দেন চেয়ারম্যানের তথ্য ও প্রযুক্তি উপদেষ্টা শফিউল্লাহ আল মুনির।

অনুষ্ঠানে পার্টির কো-চেয়ারম্যান জিএম কাদের বলেন, এরশাদের ন’বছরের স্বর্নযুগের কথা আমরা সাধারন মানুষের কাছে তুলে ধরতে পারলে তারা জাতীয় পার্টিকেই ভোট দেবেন।

পার্টির মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার বলেন, যারা হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের সাজানো দেশ তছনছ করেছে, তাদেও শাস্তি পেতেই হবে। বিএনপির কথা উল্লেখ করে প্রশ্ন রেখে বলেন, আমাদের উপর অহেতুক নির্যাতন এখন বিএনপি কি ভালো আছে?

এসম উপস্থিত ছিলেন প্রেসিডিয়াম সদস্য এমএ সাত্তার, মোঃ হাফিজ উিদ্দন, সৈয়দ আবদুল মান্নান, মাহজমুদুল ইসলাম চৌধুরী, মশিউর রহমান রাঙা, নুর-ই হাসনা লিলি চৌধুরী, এসএম ফয়সল চিশতী, সোলায়মান আলম শেঠ, এম রশিদ, নাসরিন জাহান রতনা, মাসুদ পারভেজ সোহেল রানা প্রমুখ।