২৩ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নারী পাচারের গল্প ‘লাভ সোনিয়া’

  • অনন্য রেজা করিম

বর্তমান বিশ্বে মানব পাচার ইস্যু নিয়ে অনেক তোলপাড় হচ্ছে। উন্নত জীবনযাপন এবং উচ্চ আয়ের আশায় অনুন্নত দরিদ্রকবলিত যুদ্ধবিধ্বস্ত বিভিন্ন দেশ থেকে অবৈধভাবে পৃথিবীর উন্নত দেশগুলোতে পাড়ি দেয়ার হুজুগ চলছে অনেক দিন থেকেই। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে নারী-পুরুষ-শিশু উন্নত দেশে যেতে নানা উপায় অবলম্বন করছেন। এভাবে সাগর পথে কিংবা স্থল পথে অনুন্নত দেশ থেকে উন্নত সমৃদ্ধ অর্থনীতির দেশে পাড়ি জমাতে গিয়ে বহু প্রাণহানির ঘটনা ঘটছে। এ ছাড়াও এশিয়ার বিভিন্ন দেশ থেকে ভাল কাজ দেয়ার প্রলোভন দিয়ে বহু কিশোরী ও তরুণীকে ইউরোপ আমেরিকায় নিয়ে দেহ ব্যবসায় নিয়োজিত করার ঘটনা মাঝে মধ্যে শোনা যায়। আন্তর্জাতিক নারী পাচারকারী চক্র অতীতে যেমন সক্রিয় ছিল এখনও তেমন সক্রিয় রয়েছে। এ ধরনের পাচারকারীদের বিরুদ্ধে সব দেশেই আইন প্রয়োগকারী সংস্থা সতর্ক হয়ে অনেক প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। তার পরও চলছে নারী পাচারের ঘটনা। নারী পাচার কিংবা মানব পাচারের চাঞ্চল্যকর ঘটনা নিয়ে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বহু গল্প-উপন্যাস লেখা হয়েছে, সিনেমা তৈরি হয়েছে। এ সপ্তাহে মুক্তি পাচ্ছে বলিউডের নতুন সিনেমা ‘লাভ সোনিয়া’। যার বিষয়বস্তু হলো আন্তর্জাতিক নারী পাচার। এশিয়া অঞ্চল থেকে আমেরিকায় নারী পাচারকারী চক্রের নানা চাঞ্চল্যকর বাস্তব ঘটনাবলীকে উপজীব্য করে ‘লাভ সোনিয়া’ ছবির চিত্রনাট্য সাজানো হয়েছে। বলিউড হলিউডের অনেক নামী-দামী তারকা এ ছবিতে অভিনয় করেছেন বিভিন্ন চরিত্রে। ছবিটির শূটিং হয়েছে ভারত এবং আমেরিকাসহ হংকংয়ে। এ ছবিতে কলাকুশলী হিসেবে কাজ করেছেন হলিউডের টেকনিশিয়ানরা। ‘লাভ সোনিয়া’ ছবিতে নাম ভূমিকায় দেখা যাবে নতুন মুখ ¤্রুনাল ঠাকুরকে।

২০০৩ সালে আমেরিকার লস এ্যাঞ্জেলসে চীন থেকে সমুদ্র পথে আসা জাহাজের একটি কন্টেনারে বেশ কয়েক যুবতীকে পাওয়া যায়। জাহাজের কন্টেনারে করে অবৈধভাবে আমেরিকায় আসা মেয়েগুলোকে পতিতাবৃত্তির কাজে লাগানোর পরিকল্পনা উদ্ঘাটন করে পুলিশ। কন্টেনারের ভেতরে জীবনবাজি রেখে চীন থেকে আসা মেয়েগুলোর মধ্যে একজন ভারতীয় তরুণীও ছিল। মানব পাচারের চাঞ্চল্যকর এ ঘটনা উদ্ঘাটনকালে সেখানে উপস্থিত ছিলেন ভারতীয় চিত্রনির্মাতা তাবরেজ নুরানি। তিনি স্বচক্ষে পুলিশের হাতে অবৈধভাবে আমেরিকায় আসা মেয়েগুলোর আটক হওয়ার ঘটনা প্রত্যক্ষ করে ভীষণভাবে আলোড়িত হন। এরপর তাবরেজ নুরানি মানব পাচার প্রতিরোধে নিয়োজিত কয়েকটি সংস্থার সঙ্গে থেকে কাজ করেছেন। আমেরিকায় এবং ভারতে কয়েকটি পতিতালয়ে পুলিশী অভিযানকালে অনেক ভাগ্যহত তরুণীর বিপর্যস্ত জীবনের গল্প শুনে তিনি সিদ্ধান্ত নেন তাদের কথা তুলে ধরে সিনেমা নির্মাণ করবেন। পরিচালক নুরানি হলিউডের বিখ্যাত পরিচালক অ্যাং লির ‘লাইফ অব পাই’ ছবির নির্মাণকালে প্রযোজক ডেভিড ওমার্কের সঙ্গে নতুন সিনেমার বিষয়বস্তু তুলে ধরেন। প্রায় তিন বছর ধরে নারী পাচারের গল্প নিয়ে নির্মিতব্য ছবির প্রস্তুতি নেন। ছবির কেন্দ্রীয় চরিত্র সোনিয়ার ভূমিকায় কাস্ট করার জন্য ১৫০০-এর বেশি মেয়ের মধ্য থেকে বাছাই করে ম্রুনাল ঠাকুরকে নির্বাচন করা হয়। ভারত, হংকং এবং আমেরিকায় চিত্রায়িত ‘লাভ সোনিয়া’ ছবিটি গত জুনে লন্ডন ইন্ডিয়ান ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে প্রদর্শিত হয়ে দর্শক-সমালোচকদের আলাদা মনোযোগ আকর্ষণ করেছে। যারা ছবিটি দেখেছেন তারা উচ্ছ্বসিত প্রশংসিত করেছেন নারী পাচার বিষয়কে চমৎকারভাবে রুপালি পর্দায় তুলে ধরার সৎ সাহসের জন্য। ‘লাভ সোনিয়া’ ছবিতে ভারতের প্রত্যন্ত গ্রামের সাধারণ এক তরুণী সোনিয়ার হৃদয়স্পর্শী সাহসী কাহিনী তুলে ধরা হয়েছে। বাস্তব ঘটনা থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে নির্মিত ছবিটিতে পাচারকারী দলের কবল থেকে উদ্ধারের চাঞ্চল্যকর বিবরণ তুলে ধরা হয়েছে। আন্তর্জাতিক নারী পাচারকারী দলের কবল থেকে নিজের ছোট বোনকে উদ্ধার কাজে নেমে সোনিয়া তাদের বিস্তৃতি দেখে অবাক হয়। তাদের পিছু পিছু অনুসরণ করে একসময় চূড়ান্ত লক্ষ্যে পৌঁছে যায় সাহসী মেয়েটি। লাভ সোনিয়া ছবির নাম ভূমিকায় অভিনয়ের মাধ্যমে বলিউডে অভিষেক হচ্ছে ছোট পর্দার জনপ্রিয় ম্রুনাল ঠাকুরের। ‘লাভ সোনিয়া‘ ছবিটিকে ঘিরে ইতোমধ্যে ব্যাপক আগ্রহ সৃষ্টি হয়েছে বিশ্বব্যাপী।