১৬ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কোমরে চোট পেয়ে এশিয়া কাপের বাকি ম্যাচে অনিশ্চিত হারদিক

কোমরে চোট পেয়ে এশিয়া কাপের বাকি ম্যাচে অনিশ্চিত হারদিক

অনলাইন ডেস্ক ॥ তখন ব্যাট করছে পাকিস্তান। হঠাৎ ঘটল ঘটনাটা। নিজের পাঁচ নম্বর ওভারের পঞ্চম বলের পরেই মাটিতে লুটিয়ে পড়েন হারদিক পাণ্ডে । যন্ত্রণায় ছটফট করতে থাকেন। উঠে দাঁড়ানোরও তখন ক্ষমতা ছিল না তাঁর। শেষ পর্যন্ত স্ট্রেচারে করে তাঁকে মাঠের বাইরে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে ভারতীয় শিবিরের তরফ থেকে জানানো হয়, ‘‘হারদিক পাণ্ডের কোমরে গুরুতর চোট। আপাতত তাঁর উঠে দাঁড়ানোর ক্ষমতা থাকলেও, দলের চিকিৎসকরা চোট পরীক্ষা করছেন।’’ তাঁর বিকল্প হিসেবে মাঠে নামানো হয় মণীশ পাণ্ডেকে। শেষ পর্যন্ত অবশ্য তাঁকে আর মাঠে ফিরতে দেখা যায়নি। ফলে এশিয়া কাপে আদৌ তিনি আর খেলতে পারবেন কি না সেই প্রশ্ন উঠে যায়।

যে দিন হারদিক চোট লাগল, সে দিনই আবার তাঁর প্রশংসা করলেন প্রাক্তন দক্ষিণ আফ্রিকা অলরাউন্ডার লান্স ক্লুজনার। যিনি বিশ্ব ক্রিকেটে বহু ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দিয়েছেন এক সময়। এখনকার অলরাউন্ডারদের মধ্যে যিনি এগিয়ে রাখছেন ইংল্যান্ডের বেন স্টোকসকে। তবে ক্লুজনার মনে করেন ভারতের হারদিক পাণ্ডের ক্ষমতা রয়েছে স্টোকসের মতো দক্ষতা দেখানোর। অবশ্য তার জন্য চাই ধৈর্য।

‘‘এখনকার অলরাউন্ডারদের মধ্যে স্টোকস রয়েছে। এ ছাড়া আরও কয়েকজন উঠে এসেছে আবার হারিয়েও গিয়েছে। তবে এটাও বলব হারদিকের মতো ক্রিকেটারকে দু’-এক বছর সময় দিলে ওর বিশ্বের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার না হয়ে ওঠার কোনও কারণ নেই,’’ বলেন ক্লুজনার।

ইংল্যান্ডে সম্প্রতি ভারতীয় দলের হারের পরে হারদিক পাণ্ডের পারফরম্যান্সের সমালোচনা চলছে। বিজয় হজারে ট্রফির জন্য দিল্লির সিনিয়র দলের পরামর্শদাতা কোচ হিসেবে যোগ দেওয়া ক্লুজনার বলেন, ‘‘সবাই হারদিকের সঙ্গে কপিল দেবের তুলনা করতে চায়। হারদিক হারদিকের মতো ক্রিকেটার। অবশ্যই ওকে কিছু শিখতে হবে। আমার মনে হয় হার্দিকের সাফল্য নির্ভর করবে ও কতটা শিখতে পারে তার উপরে।’’

১৯৯৯ বিশ্বকাপের সেরা ক্রিকেটার আশাবাদী হারদিক সঠিক পথেই আছেন। শুধু ধৈর্য রাখতে হবে। ‘‘ভারতীয় দলে হার্দিক সঠিক পথেই এগোচ্ছে। তবে আরও ধৈর্য ধরতে হবে। ওকে ওর মতো উন্নতি করতে দেওয়া উচিত।’’ পাশাপাশি ক্লুজনার আরও মনে করেন সিম বোলিং অলরাউন্ডার একটা দলে পার্থক্য গড়ে দেওয়ার ক্ষমতা রাখে। তিনি বলেন, ‘‘সিম বোলিং অলরাউন্ডার থাকলে দলের কাছে অনেক বিকল্প থাকে। যেটা ভারতের হাতে আছে এখন। দেখতে হবে হারদিক এখন নিজেকে কী ভাবে আরও উন্নত করে তোলে।’’

সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা