২২ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কাশ্মীরে ৪ পুলিশ কর্মকর্তাকে তুলে নিয়ে গেছে বিদ্রোহীরা

কাশ্মীরে ৪ পুলিশ কর্মকর্তাকে তুলে নিয়ে গেছে বিদ্রোহীরা

অনলাইন ডেস্ক ॥ এক মাসও কাটল না। তার মধ্যেই ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মীরে ফের একাধিক পুলিশ অফিসারের অপহরণের ঘটনা ঘটলো। আগের বার আচমকা। আর এবার রীতিমতো আগেভাগে হুমকি দিয়ে।

বৃহস্পতিবার রাতে জম্মুর সোপিয়ান থেকে তিন স্পেশাল পুলিশ অফিসার (এসপিও) এবং এক কনস্টেবলকে অপহরণ করে নিয়ে গেছে বিদ্রোহীরা। অপহৃতদের চাকরি থেকে ইস্তফা দেওয়ার দাবি জানিয়েছে অপহরণকারীরা। যদিও এই অপহরণের পেছনে কারা আছে তা এখনও স্পষ্ট হয়নি পুলিশের কাছে। তবে প্রাথমিক অনুমান, অপহরণের নেপথ্যে রয়েছে হিজবুল মুজাহিদিন।

পুলিশের বরাত দিয়ে আনন্দবাজারের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, অপহৃতরা হলেন ফিরদৌস আহমদ কুচে, কুলদীপ সিংহ, নিসার আহমেদ ধোবি এবং কনস্টেবল ফৈয়াজ আহমদ ভাট। রাতে সোপিয়ান জেলার কাপরান গ্রামে ঢোকে অপহরণকারীরা। এরপর ওই চার পুলিশ কর্মীর বাড়িতে ঢুকে পড়ে টেনে হিঁচড়ে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়। তারপর গোপন আস্তানা থেকে জানানো হয়, ওই চারজন চাকরি থেকে পদত্যাগ করলে তবেই ছাড়া হবে। না হলে ঘটবে চরম পরিণতি।

গত মঙ্গলবারই নিরাপত্তা বাহিনীকে একটি ভিডিও বার্তা পাঠায় হিজবুল মুজাহিদিন। ওই বার্তায় পুলিশ ও নিরাপত্তা কর্মীদের হুমকি দেওয়া হয়েছিল, ইস্তফা দিন, নয়তো মৃত্যুর জন্য প্রস্তুত থাকুন। ওই বার্তায় স্থানীয় এক যুবককে কাশ্মীরি ভাষায় কথা বলতে দেখা গেছে। পুলিশ প্রশাসনের কর্তারা মনে করছেন, ওই যুবক বিদ্রোহীদের স্থানীয় কমান্ডার। তার খোঁজ চলছে।

পাশপাশি তিন সপ্তাহ আগেই দক্ষিণ কাশ্মীরে তিন পুলিশকর্মী ও পুলিশকর্মীদের পরিবারের আট সদস্যকে অপহরণ করেছিল বিদ্রোহীরা। ডজন খানেক জঙ্গি পরিবারের সদস্যকে মুক্তি দেওয়ার পর ওই ১১ জনকে ছেড়ে দেয়া হয়। একে এই ঘটনা, তার ওপর ভিডিও বার্তায় হুমকি, তার পরও সতর্কতা না নেওয়ায় পুলিশ-প্রশাসনের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।