১৭ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পুঁজিবাজারে লেনদেন কমেছে ১৩.৮১ শতাংশ

পুঁজিবাজারে লেনদেন কমেছে ১৩.৮১ শতাংশ

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সপ্তাহের ব্যবধানে লেনদেন কমেছে ১৩ দশমিক ৮১ শতাংশ। আলোচ্য সময়ে ‘এ’ ক্যাটাগরি কোম্পানির শেয়ারের লেনদেন কমলেও সামান্য বেড়েছে ‘বি’ ক্যাটাগরির। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, গেল সপ্তাহে ডিএসইতে মোট ৩ হাজার ৮৮৩ কোটি ৮৫ লাখ ৬৯ হাজার টাকা টার্নওভার হয়েছে। আগের সপ্তাহে এর পরিমাণ ছিল ৪ হাজার ৫০৬ কোটি ৩১ লাখ ৪৪ হাজার টাকা। এক সপ্তাহের ব্যবধানে টার্নওভার কমেছে ৬২২ কোটি ৪৫ লাখ ৭৪ হাজার টাকা বা ১৩ দশমিক ৮১ শতাংশ।

এদিকে, মোট লেনদেনের মধ্যে ‘এ’ ক্যাটাগরি কোম্পানির অংশগ্রহণ ৯০ দশমিক ৩৪ শতাংশ। আগের সপ্তাহে যা ছিল ৯৩ দশমিক ১৩ শতাংশ। গেলো সপ্তাহে ‘এ’ ক্যাটাগরির কোম্পানির শেয়ারের ৩ হাজার ৫০৮ কোটি ৬৪ লাখ ৭১ হাজার টাকা টার্নওভার হয়েছে। আগের সপ্তাহে তা ছিল ৪ হাজার ১৯৬ কোটি ৫২ লাখ ২৬ হাজার টাকা। এক সপ্তাহে আলোচ্য ক্যাটাগরির টার্নওভার কমেছে ৬৮৭ কোটি ৮৭ লাখ ৫৪ হাজার টাকা।

গেল সপ্তাহে ডিএসইর মোট টার্নওভারে ‘বি’ ক্যাটাগরির অংশগ্রহণ ছিল ৫ দশমিক ৪৬ শতাংশ, আগের সপ্তাহে তা ছিল ২ দশমিক ৭৩ শতাংশ। গেলো সপ্তাহে ‘বি’ ক্যাটাগরির ২১২ কোটি ১৯ লাখ ৫১ হাজার টাকার শেয়ার টার্নওভার হয়েছে, আগের সপ্তাহে তা ছিল ১২৩ কোটি ১৫ লাখ ১২ হাজার টাকা। এছাড়া মোট টার্নওভারে ‘এন’ ক্যাটাগরির অংশগ্রহণ ২ দশমিক ৮৭ শতাংশ, ‘জেড’ ক্যাটাগরির ১ দশমিক ৩৩ শতাংশ।

উল্লেখ, বাজারে তালিকাভুক্ত যেসব কোম্পানি নিয়মিত বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) করে এবং শেয়ার হোল্ডারদের জন্য ন্যূনতম ১০ শতাংশ বা তার চেয়ে অধিক লভ্যাংশ দেয় সেসব প্রতিষ্ঠান ‘এ’ ক্যাটাগরির অন্তর্ভূক্ত। তাছাড়া যেসব কোম্পানি নিয়মিত এজিএম করে কিন্তু ১০ শতাংশের কম লভ্যাংশ দেয় সেগুলো ‘বি’ ক্যাটাগরিতে অন্তর্ভূক্ত। অপরদিকে যেসব কোম্পানি নিয়মিত এজিএম করে না, লভ্যাংশ দিতে ব্যর্থ, লোকসানে পড়েছে, উৎপাদন বন্ধ সেব প্রতিষ্ঠান ‘জেড’ ক্যাটাগরিতে এবং নতুন তালিকাভুক্ত কোম্পানি ‘এন’ ক্যাটাগরির অন্তর্ভূক্ত।

সাপ্তাহিক লেনদেনের সেরা কোম্পানিগুলো হলো : খুলনা পাওয়ার, একটিভ ফাইন, ইফাদ অটো, বিবিএস কেবল, শাশা ডেনিম, আমান ফিড, ন্যাশনাল হাউজিং, সিঙ্গার বিডি ও সায়হাম টেক্সটাইল।

দরবৃদ্ধির সেরা কোম্পানিগুলো হলো : প্রগতি লাইফ, ইনটেক, ন্যাশনাল লাইফ, ফাইন ফুড, গ্লোবাল ইন্স্যুরেন্স, জনতা ইন্স্যুরেন্স, সাফকো স্পিনিং, স্টাইল ক্রাফট, ম্যাকসন্স স্পিনিং ও ফ্যামিলি টেক্স।

দর হারানোর সেরা কোম্পানিগুলো হলো : ইবিএল ১ম মিউচুয়াল ট্রাস্ট ফান্ড, ট্রাস্ট ব্যাংক মিউচুয়াল ফান্ড, এবি ব্যাংক ১ম মিউচুয়াল ফান্ড., ১ম জনতা মিউচুয়াল ফান্ড, শ্যামপুর সুগার, ইবিএল এনআরবি মিউচুয়াল ফান্ড, এ´িম ব্যাংক মিউচুয়াল ফান্ড ও পপুলার লাইফ মিউচুয়াল ফান্ড।