১৮ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

শ্রীপুরে স্ত্রীকে ছুরিকাঘাত করে স্বামীর গলাকেটে আত্মহত্যা

শ্রীপুরে স্ত্রীকে ছুরিকাঘাত করে স্বামীর গলাকেটে আত্মহত্যা

স্টাফ রিপোর্টার, গাজীপুর ॥ গাজীপুরের শ্রীপুরে দাম্পত্য কলহের জেরে শনিবার স্ত্রীকে ছুরিকাঘাতে আহত করার পর এক যুবক ছুরি চালিয়ে নিজের গলা কেটে আত্মহত্যা করেছে। হতাহত ওই দম্পতি স্থানীয় গার্মেন্টসের কর্মী। নিহতের নাম মোর্শেদ আলম (২৭)। সে নরসিংদী জেলার পলাশ উপজেলার তরগাঁও গ্রামের সিরাজ মিয়ার ছেলে। মোর্শেদ শ্রীপুরের টি নীটওয়্যার লিমিটেড কারখানার শ্রমিক।

আহত স্বপ্নার ভাই মো. শাহজালাল ও স্বজনরা জানায়, পরিচয় ও প্রেমের সম্পর্কের জেরে গত প্রায় ৭ বছর আগে গাজীপুরের শ্রীপুর পৌর শহরের দারোগারচালা এলাকার বাচ্চু মিয়ার মেয়ে স্বপ্নাকে বিয়ে করে মোর্শেদ আলম। মোর্শেদের পরিবার এ বিয়ে মেনে নেয়নি। তাই স্ত্রীকে সঙ্গে নিয়ে মোর্শেদ তার শ্বশুর বাড়ীতেই বসবাস করতো। এ নিয়ে তাদের মাঝে দাম্পত্য কলহ চলে আসছিল। স্বপ্না স্থানীয় মাওনা চৌরাস্তা এলাকার এস কিউ সেলসিয়াস লিমিটেড কারখানার কাপসিম অপারেটর পদে চাকুরী করতো। স্বপ্নিল (৪) নামে তাদের একটি পুত্র সন্তান রয়েছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসি জানান, বেশ কিছুদিন ধরে মোর্শেদ ও স্বপ্নার মাঝে দাম্পত্য কলহ চলে আসছিল। দাম্পত্য কলহের জেরে গত দুই মাস ধরে তারা পৃথক ঘরে থাকতো। শনিবার সকালে স্বপ্না কাজে যোগ দিতে তার কর্মস্থলের উদ্দ্যেশে বাড়ী থেকে বের হয়। এসময় স্বামী মোর্শেদও তার পেছনে বের হয়। কিছুদুর যাওয়ার পর মোর্শেদ তার সঙ্গে স্বপ্নাকে যেতে বললে স্বপ্না অস্বীকার করে। এ নিয়ে পথে দু’জনের মধ্যে বাকবিতন্ডা ও ধ্বস্তাধ্বস্তি হয়। এক পর্যায়ে মোর্শেদ তার সঙ্গে থাকা ছুরি দিয়ে স্ত্রী স্বপ্নার (২০) পেটে উপর্যুপরি আঘাত করে।

এতে ঘটনাস্থলেই স্বপ্না মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। পরে স্ত্রীর মৃত্যু হয়েছে ভেবে স্বামী মোর্শেদ ছুরিকাঘাতে নিজের গলা কেটে ফেলে। এসময় আশপাশের লোকজন ঘটনাস্থলে গিয়ে উভয়কে উদ্ধার করে। মোর্শেদকে শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে। অপর গুরুতর আহত স্বপ্নাকে প্রথমে স্থানীয় একটি হাসপাতালে পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। খবর পেয়ে পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছে। এদিকে মোর্শেদকে হত্যা করা হয়েছে বলে নিহতের স্বজনরা দাবী করেছে।

শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক রায়হান আহমেদ জানান, মোর্শেদকে মৃত অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়েছে। তার গলায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে গলায় কাটা অবস্থায় পাওয়া গেছে।

শ্রীপুর মডেল থানার ওসি মো. জাবেদুল ইসলাম জানান, পারিবারিক কলহের জেরে গত প্রায় দু’মাস ধরে স্বামী-স্ত্রীর মাঝে বনিবনা হচ্ছিল না। এর জেরেই শনিবার এ ঘটনা ঘটেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। তবে পুলিশ ঘটনাটি তদন্ত করছে।