১৬ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নিউইয়র্কের পথে লন্ডনে প্রধানমন্ত্রী

নিউইয়র্কের পথে লন্ডনে প্রধানমন্ত্রী

বিডিনিউজ ॥ জাতিসংঘের ৭৩তম সাধারণ অধিবেশনে যোগ দিতে নিউইয়র্কের পথে শুক্রবার লন্ডন পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তাকে বহনকারী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ভিভিআইপি ফ্লাইটটি লন্ডন সময় শুক্রবার বিকেল তিনটা ৫০ মিনিটে হিথরো বিমানবন্দরে অবতরণ করে। যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশের হাইকমিশনার নাজমুল কাওনাইন বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রীকে অভ্যর্থনা জানান।

শনিবার লন্ডনে কাটিয়ে রবিবার সকালে ব্রিটিশ এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইটে নিউইয়র্কের পথে রওনা হবেন শেখ হাসিনা। শুক্রবার সকাল দশটা ২৩ মিনিটে ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে রওনা হন প্রধানমন্ত্রী।

১০ দিনের এই সফরে প্রধানমন্ত্রী সাধারণ অধিবেশনসহ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ কর্মসূচীতে যোগ দেবেন। সেখানে রোহিঙ্গা সঙ্কটের টেকসই সমাধানের পথে প্রতিবন্ধকতাগুলো তিনি বিশ্বনেতাদের সামনে তুলে ধরবেন। অধিবেশনের ফাঁকে জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেসসহ একাধিক বিশ্বনেতার সঙ্গে বৈঠক করার কথা রয়েছে শেখ হাসিনার। জাতিসংঘে আসা বিশ্ব নেতাদের সম্মানে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প আয়োজিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানেও তিনি যোগ দেবেন। জাতিসংঘে এবারের সফরে ৫০ সদস্যের বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ব্যবসায়ীদের ২০০ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দলও তার সফরসঙ্গী হয়েছে।

নিউইয়র্কে জাতিসংঘ সদর দফতরে ১৮ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘের ৭৩তম অধিবেশন শুরু হয়েছে। সেখানে ২৫ সেপ্টেম্বর থেকে ১ অক্টোবর পর্যন্ত চলবে সাধারণ বিতর্ক। এই বিশ্ব সংস্থার ১৯৩টি সদস্য দেশের প্রতিনিধিরা তাতে অংশ নেবেন।

জাতিসংঘ সাধারণ অধিবেশনের এবারের প্রতিপাদ্য ঠিক করা হয়েছে ‘মেকিং দি ইউএন রিলেভেন্ট টু অল পিপল : গ্লোবাল লিডারশিপ এ্যান্ড শেয়ারড রেসপনসিবিলিটিস ফর পিসফুল, ইকুইটেবল এ্যান্ড সাসটেইনেবল সোসাইটিস’।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২৭ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশের পক্ষে তার বক্তব্য তুলে ধরবেন।

ব্যস্ত সূচি ॥ জাতিসংঘ অধিবেশন উপলক্ষে ১০ দিনের এই সফরে ব্যস্ত সময় কাটবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার। যুক্তরাজ্যের স্থানীয় সময় শুক্রবার বিকালে প্রধানমন্ত্রী লন্ডন পৌঁছান। শনিবার লন্ডনে কাটিয়ে রবিবার সকালে ব্রিটিশ এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইটে নিউইয়র্কের পথে রওনা হবেন শেখ হাসিনা।

নিউইয়র্ক সফরে প্রধানমন্ত্রী থাকবেন গ্র্যান্ড হায়াত হোটেলে। রবিবার সন্ধ্যায় নিউইয়র্ক হিলটন মিডটাউনে প্রবাসী বাংলাদেশীদের দেয়া এক সংবর্ধনায় যোগ দেবেন তিনি। সফরের দ্বিতীয় দিন সোমবার সকালে জাতিসংঘ সদর দফতরে যুক্তরাষ্ট্রের স্থায়ী মিশনের আয়োজনে ‘গ্লোবাল কল টু এ্যাকশন অন ড্রাগ প্রবলেম’ শীর্ষক উচ্চ পর্যায়ে বৈঠকে যোগ দেবেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী। পরে জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক হাইকমিশনারের আয়োজনে ‘গ্লোবাল কমপ্যাক্ট অন রিফিউজিস: এ মডেল ফর গ্রেটার সলিডারিটি এ্যান্ড কো-অপারেশন’ শীর্ষক উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকে তিনি অংশ নেবেন।