২৪ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ষড়যন্ত্রের ঐক্য কোন ফল দেবে না ॥ মেনন

বিশেষ প্রতিনিধি ॥ ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি ও সমাজকল্যাণমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন বলেছেন, ড. কামাল হোসেন ও বদরুদ্দোজা চৌধুরীর জাতীয় ঐক্যের মূলশক্তি থাকবে বিএনপি-জামায়াত। তাঁরা থাকবেন শুধু সাক্ষী গোপাল মাত্র। তবে ষড়যন্ত্রের এই ঐক্য কোন ফল দেবে না। আন্দোলন দূরে থাক, তাঁরা একত্রে কোন কাজই করতে পারবেন না।

শনিবার রাজধানীর শাজাহানপুরের ১১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে দেশের চলমান উন্নয়ন কার্যক্রম নিয়ে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। এলাকার স্কুল-কলেজ, মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, শিক্ষকবৃন্দ, মসজিদ কমিটির সদস্যবৃন্দ, ইমাম ও মুয়াজ্জিনদের সঙ্গে এই মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে নতুন ঐক্যে বিএনপির সংশ্লিষ্টতার সমালোচনা করে রাশেদ খান মেনন বলেন, ড. কামাল হোসেনের মতো জনবিচ্ছিন্ন ব্যক্তির নেতৃত্বে গড়ে ওঠা আন্দোলনটি এখন জগাখিচুড়ি অবস্থায় দাঁড়িয়েছে। যেখানে বিএনপি গত নয় বছরে নয়টি আন্দোলনও করতে পারেনি, সেখানে এই ঐক্য আন্দোলনের ডাক দিয়ে সরকার পতনের কথা বলছে! তবে আন্দোলন তো দূরের কথা, এই ঐক্য আসলে তাদের মধ্যে কোন ঐক্যই আনতে পারবে না। বর্তমান সরকারের উন্নয়নের কাছে তাদের ষড়যন্ত্রের ঐক্য ধুয়ে বিলীন হয়ে যাবে।

বর্তমান সরকারের উন্নয়ন চিত্র তুলে ধরে মন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকারের আমলে বাংলাদেশ এক অবিশ্বাস্য উন্নয়নের পথে এগিয়ে গেছে। বাংলাদেশে এ বছর স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। জাতীয় প্রবৃদ্ধি পরপর গত দু’বছর ৭ শতাংশের কোটা ছাড়িয়ে গেছে। দেশের জিডিপি বেড়েছে কয়েকগুণ। দেশের মানুষের মাথাপিছু আয় ২০০৫ সালের বিএনপি-জামায়াত শাসনের ৫৪০ ডলার থেকে এখন দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৭৫২ ডলারে। দারিদ্র্য কমে নেমে এসেছে ২২ শতাংশে? তিনি বলেন, খাদ্যশস্য উৎপাদনে বাংলাদেশ এখন নিজের চাহিদা মিটিয়ে বিদেশে রফতানির কথা ভাবতে পারছে। মৎস্য চাষে বাংলাদেশ পৃথিবীর চতুর্থ ও সবজি উৎপাদনে তৃতীয়, গার্মেন্টস রফতানিতে দ্বিতীয়। এছাড়াও ওষুধ, সিমেন্ট, চামড়াজাত দ্রব্য, চিংড়ি, কাকড়া, কচ্ছপ ও কুটির শিল্পপণ্য ব্যাপকহারে বিদেশে রফতানি করছে।

১১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি কামরুজ্জামান বাবুলের সভাপতিত্বে সভায় অন্যদের মধ্যে শাহজাহানপুর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল লতিফ, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মুকিত হাওলাদার, ১১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের কোষাধ্যক্ষ ইসমাত জামিল লাভলুসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও ওয়ার্কার্স পার্টির নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।