২০ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ভারতের চট্টগ্রাম বন্দর ব্যবহার ইতিবাচক

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ ভারতের উত্তর পূর্বাঞ্চলীয় সাত রাজ্যে পণ্য পরিবহনের ক্ষেত্রে চট্টগ্রাম বন্দর ব্যবহারে দ্বিপক্ষীয় চুক্তির খসড়া অনুমোদনকে ইতিবাচকভাবে দেখছেন ব্যবসায়ী-বিশ্লেষকরা। তারা বলছেন, এর মাধ্যমে ভারতের পাশাপাশি অর্থনৈতিকভাবে লাভবান হবে বাংলাদেশও।

তবে এক্ষেত্রে কর্মব্যস্ততার সঙ্গে তাল মিলিয়ে বন্দরের সক্ষমতা এবং সড়ক অবকাঠামো টেকসই করার ওপর জোর দিয়েছেন তারা। ভারতের উত্তর পূর্বাঞ্চলীয় সাত রাজ্যে পণ্য পরিবহনে দীর্ঘদিন ধরেই চট্টগ্রাম বন্দর ব্যবহারের অনুমতি চেয়ে আসছিল দেশটি। নানা স্তরে দীর্ঘ পর্যালোচনার পর সবশেষ গত ১৭ সেপ্টেম্বর চট্টগ্রাম ও মংলা বন্দর ব্যবহার বিষয়ে চুক্তির খসড়া অনুমোদন দেয় মন্ত্রিসভা।

বর্তমানে বছরে গড়ে ৩০ লাখ কন্টেনার হ্যান্ডলিং করে চট্টগ্রাম বন্দর। বছরে যার গড় প্রবৃদ্ধি ১০ শতাংশের বেশি। বিশ্লেষকদের মতে, এরমধ্যে ভারত যদি দুই লাখ কন্টেনারও হ্যান্ডলিং করতে চায়, তা করা অসম্ভব নয় এই বন্দরে। তবে, এজন্য ক্রমবর্ধমান আমদানি-রফতানির বিপরীতে বাড়াতে হবে সক্ষমতাও। ব্যবসায়ী নেতারাও বিষয়টিকে দেখছেন ইতিবাচক হিসেবে। বলছেন, বিভিন্ন শুল্ক ও মাশুল আদায়ের মাধ্যমে লাভবান হবে দুই দেশ। তবে এই সুবিধাকে কাজে লাগিয়ে কোন অসাধুচক্র যেন অনৈতিক কাজ করতে না পারে সেজন্য থাকবে হবে সতর্ক। তবে কবে নাগাদ ভারতের পণ্য পরিবহন শুরু হবে এখনও চূড়ান্ত হয়নি। তার আগে, নির্দিষ্ট করা রুটে টেকসই সড়ক অবকাঠামো গড়ে তোলার ওপরও জোর দিলেন সংশ্লিষ্টরা।