২০ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সুরেশ প্রভুর সঙ্গে আজ তোফায়েল আহমেদের বৈঠক

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ ভোলায় স্বাধীনতা জাদুঘর পরিদর্শন শেষে রাতে ঢাকায় ফিরে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদের দেয়া নৈশভোজে অংশগ্রহণ করেন ভারতের বাণিজ্যমন্ত্রী সুরেশ প্রভু। আজ বুধবার সকালে রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় দু’দেশের বাণিজ্যমন্ত্রী পর্যায়ের গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। ওই বৈঠক শেষে যৌথ প্রেস ব্রিফিংয়ে বক্তব্য রাখবেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। কথা বলবেন সুরেশ প্রভুও। এর আগে সোমবার সন্ধ্যায় তিনি ঢাকায় পৌঁছান। হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে তাকে স্বাগত জানান বাংলাদেশের বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ।

ঢাকায় ভারতীয় হাইকমিশন সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার ব্যস্ত সময় পার করেছেন সুরেশ প্রভু। ভোলায় স্বাধীনতা জাদুঘর পরিদর্শন করেছেন তিনি। এ সময় জাদুঘরে রক্ষিত ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের বিভিন্ন নথি, দলিল ও ছবি দেখেন তিনি। ভারতের বাণিজ্যমন্ত্রী মঙ্গলবার ঢাকা থেকে হেলিকপ্টারে ভোলায় যান। এ সময় বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার হর্ষ বর্ধন শ্রিংলাও উপস্থিত ছিলেন।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, সুরেশ প্রভু মঙ্গলবার সকালেই বাণিজ্যমন্ত্রীর সঙ্গে হেলিকপ্টারে ভোলায় পৌঁছান। সেখানে তাকে তোফায়েল আহমেদের মায়ের নামে প্রতিষ্ঠিত ফাতেমা খানম কমপ্লেক্সে সংবর্ধনা দেয়া হয়। এরপর তিনি ভোলার স্বাধীনতা জাদুঘর পরিদর্শন করেন। সন্ধ্যায় ঢাকা ফিরে সুরেশ প্রভু রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের আয়োজনে ভোজসভায় অংশগ্রহণ করেন।

ভারতের বাণিজ্যমন্ত্রী সুরেশ প্রভুর সঙ্গে ভারতের একটি বাণিজ্য প্রতিনিধি দলও এসেছে। সফরকালে তিনি রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাত করবেন। এ ছাড়া তিনি বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী একেএম শাহজাহান এবং প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা এইচটি ইমামের সঙ্গে পৃথক বৈঠক করবেন। বাংলাদেশের বাণিজ্য প্রতিনিধি দলের সঙ্গেও তিনি আলোচনা করবেন।

সূত্র জানায়, সফরের নির্ধারিত আলোচ্যসূচী অনুযায়ী সুরেশ প্রভু তাদের বিনিয়োগকারীদের জন্য ঢাকা ও চট্টগ্রাম অর্থনৈতিক অঞ্চলে জমি বরাদ্দ, আরও সীমান্ত হাট চালু, বেনাপোল স্থলবন্দর উন্নয়ন এবং ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যগুলোর সঙ্গে যোগাযোগে বাংলাদেশের ভূখ- ব্যবহার বিষয়ে আলাপ করবেন। পাশাপাশি বেসরকারী বিমান চলাচল খাতে দু’দেশের সহযোগিতার সম্পর্ক উন্নয়নের বিষয়েও আলোচনা হবে। আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর সকালে তার ঢাকা ত্যাগ করার কথা রয়েছে।

চলতি বছর এপ্রিলে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ জানান সুরেশ প্রভুকে। সেই আমন্ত্রণপত্র গ্রহণ করেন তিনি। সে অনুযায়ী গত জুন মাসে ঢাকা আসার কথা ছিল সুরেশ প্রভুর। তবে বিভিন্ন কারণে সেই সফর পিছিয়ে যায়। সুরেশ প্রভু ভারতের বিমান মন্ত্রণালয়েরও দায়িত্বে রয়েছেন।

এদিকে, দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বাড়াতে ভারতের সঙ্গে অর্থনৈতিক অংশীদারিত্ব (সিপা) চুক্তি করার উদ্যোগ রয়েছে। এই চুক্তির ফলে ভারতীয় বিনিয়োগ বাংলাদেশে বাড়বে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। এছাড়া চুক্তির আওতায় পণ্য রফতানি বাড়িয়ে বাণিজ্য ঘাটতি কমিয়ে আনা হবে। পাঁচদিনের সফরে ভারতের বাণিজ্যমন্ত্রী সুরেশ প্রভু এখন বাংলাদেশে অবস্থান করছেন। তার এই সফরের সময়ই ‘কমপ্রিহেনসিভ ইকোনমিক পার্টনারশিপ এগ্রিমেন্ট বা সিপা চুক্তি করা হতে পারে।

জানা গেছে, প্রতিবেশী রাষ্ট্র ভারত দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বাড়াতে বিশ্বের আরও কয়েকটি দেশের সঙ্গে সিপা চুক্তি করতে সক্ষম হয়েছে। চলতি বছরের শুরুতে যুক্তরাষ্ট্রের টিকফার (ট্রেড এ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট কো-অপারেশন ফোরাম এগ্রিমেন্ট) আদলে এই চুক্তি করার প্রস্তাব দেয় ভারত। বাংলাদেশের সঙ্গে এ ধরনের অর্থনৈতিক চুক্তির বিষয়ে প্রথমবার গত ফেব্রুয়ারিতে ভারতের দিক থেকে প্রস্তাব আসে। ওই সময় ঢাকায় অনুষ্ঠিত বাণিজ্য সচিব পর্যায়ের বৈঠকে সিপা চুক্তির প্রস্তাব দিলে বাংলাদেশ সেই চুক্তির খসড়া চায়। সেই ধারবাহিকতায় এবার সিপা চুক্তি করা হতে পারে।