১৬ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

গাজীপুরে বজ্রপাতে চাচা-ভাতিজাসহ নিহত তিন

স্টাফ রিপোর্টার, গাজীপুর ॥ বিলে মাছ ধরতে গিয়ে সোমবার রাতে বজ্রপাতের পৃথক ঘটনায় চাচা-ভাতিজাসহ তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। এসময় আহত হয়েছে আরও একজন। নিহতরা হলো- কালীগঞ্জ উপজেলার পূনসহি দক্ষিণ পাড়া এলাকার নূরুল ইসলাম খানের ছেলে তাজুল ইসলাম (৪৪) ও আব্দুল হান্নান শেখের ছেলে মোঃ মামুন শেখ (৩০) এবং গাজীপুর সদর উপজেলার বাড়িয়া ইউনিয়নের নাসারান এলাকার মৃত রবীন্দ্রনাথের ছেলে রখিন্দ্রনাথ (৪২)। কালীগঞ্জের জাঙ্গালিয়া ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য মোঃ ইব্রাহিম মোল্লা জানান, কালীগঞ্জ উপজেলার পূনসহি দক্ষিণ পাড়া এলাকার তাজুল ইসলাম ও তার প্রতিবেশী ভাতিজা মামুন শেখ বাড়ির পার্শ্ববর্তী বেলাই বিলে মাছ শিকার করছিল। একপর্যায়ে রাত পৌনে ৩টার দিকে হঠাৎ বজ্রসহ বৃষ্টিপাত শুরু হয়। এসময় নৌকায় বজ্রপাত হলে তারা দু’জন পানিতে পড়ে তলিয়ে যায়। অপর ঘটনায়, সদর উপজেলার নাসারান গ্রামের রখিন্দ্রনাথসহ ৪/৫ মৎস্য শিকারী সোমবার রাতে বাড়ির পার্শ্ববর্তী নাসারন বিলে নৌকা নিয়ে মাছ ধরতে যায়। রাত ৩টার দিকে বৃষ্টিপাতের সময় হঠাৎ বজ্রপাত হলে নৌকার পেছনে বসা রখিন্দ্রনাথ ঘটনাস্থলেই মারা যায়।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গৃহবধূসহ দুই

স্টাফ রিপোর্টার ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে জানান, পৃথক বজ্রপাতের ঘটনায় ২ জন নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার বিকেলে কসবা উপজেলার বিনাউটি ইউনিয়নের টিঘরিয়া গ্রামে বজ্রপাতে এক গৃহবধূ নিহত হয়েছেন। নিহত গৃহবধূর নাম নিলুফা আক্তার (২৭)। তিনি টিঘর গ্রামের মামুন মিয়ার স্ত্রী। অপর ঘটনায় জেলার বাঞ্ছারামপুরে সবুজ মিয়া (২২) নামক এক যুবক বজ্রপাতে নিহত হয়েছেন। নিহত যুবক উপজেলার খাসনগর গ্রামের ইদ্রিস মিয়ার ছেলে।

সোনারগাঁয়ে জেলে

স্টাফ রিপোর্টার, নারায়ণগঞ্জ থেকে জানান, সোনারগাঁওয়ের বারদী ইউনিয়নের নুনেরটেক এলাকায় বজ্রপাতে মোঃ ফুলচাঁন মিয়া (২২) নামে এক জেলে নিহত হয়েছে। একই সময় ফুলদি এলাকায় বজ্রপাতে রহিমা বেগম (৩২) নামে এক গৃহবধূ আহত হয়েছে। জানা গেছে, মঙ্গলবার বিকেলে সোনারগাঁও উপজেলার বারদী ইউনিয়নে বজ্রপাত আঘাত হানে।