১৯ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

হঠাৎই অধিনায়ক ধোনি!

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ মহেন্দ্র সিং ধোনি ওয়ানডে-টি২০ দিয়ে অধিনায়কের দায়িত্ব ছেড়েছেন প্রায় দুই বছর হতে চলল। ভারতের দু’দুটি বিশ্বকাপ জয়ী সেনাপতি এখন রঙিন পোশাকে খেলছেন কেবল উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান হিসেবে। বিরাট কোহলির বিশ্রামে এবার এশিয়া কাপের দায়িত্ব রোহিত শর্মার কাঁধে, সহ-অধিনায়ক শিখর ধাওয়ান। আগেই ফাইনাল নিশ্চিত হয়ে যাওয়ায় মঙ্গলবার আফগানিস্তানের বিপক্ষে সুপারফোরের ম্যাচে দু’জনকেই বাইরে রাখা হয়। বিশ্রাম দেয়া হয় নিয়মিত পাঁচজনকে। তারচেয়ে চমক জাগানো বিষয় ছিল দুবাইয়ে অধিনায়ক হিসেবে টস করতে নামেন ধোনি! যেভাবেই হোক ভারতের হয়ে ২০০তম আন্তর্জাতিক ম্যাচে নেতৃত্ব দিতে পেরে খুশি ক্যাপ্টেন কুল। ম্যাচে টস হারের পর নিজেই জানিয়েছেন সেটি।

ধোনি বলেন, ‘সত্যি আমি জানতাম না (ম্যাচ সংখ্যায়) কোথায় দাঁড়িয়ে ছিলাম। ১৯৯ ম্যাচে অধিনায়কত্ব করেছি, তাই ২০০ পূরণ করতে এটা আমার দারুণ সুযোগ। সবই আসলে নিয়তি, যেটা আমি সবসময় বিশ্বাস করি। ২০০ পূরণ করাটা ভাল তবে আমার মনে হয় না এটা বড় কোন ব্যাপার।’ উল্লেখ্য, ক্রিকেট ইতিহাসের মাত্র তৃতীয় অধিনায়ক হিসেবে ২০০ ম্যাচে প্রতিনিধিত্ব করলেন ধোনি। তার আগে অস্ট্রেলিয়ার জার্সিতে রিকি পন্টিং ও নিউজিল্যান্ডের হয়ে এই কীর্তি গড়েছিলেন স্টিফেন ফ্লেমিং। ২৯ অক্টোবর, ২০১৬। এইদিনই শেষবার ভারতের অধিনায়ক হিসেবে শেষবার দেখা গিয়েছিল মহেন্দ্র সিং ধোনিকে। ৬৯৬ দিন পর আবারও ভারতের নেতৃত্বে এই উইকেটরক্ষক। তাতে অধিনায়ক হিসেবে ২০০ ম্যাচ খেলার নতুন এক মাইলফলকও স্পর্শ করেন ৩৭ বছর বয়সী তারকা।

এশিয়া কাপের ফাইনাল নিশ্চিত হয়ে গেছে ভারতের আগেই, এর ওপর আবার প্রতিপক্ষ আফগানিস্তান। তাই দলের বেশ কয়েকজন গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়কে বিশ্রাম দিয়ে একাদশ সাজায় তারা। এই প্রতিযোগিতায় অধিনায়কের দায়িত্বে থাকা রোহিত শর্মার সঙ্গে সহ-অধিনায়ক হিসেবে থাকা শিখর ধাওয়ানও বিশ্রামে থাকায় দায়িত্ব ভারটা আবার ধোনির কাঁধেই দিয়েছে ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট। প্রায় দুই বছর পর অধিনায়ক হিসেবে মাঠে নামেন ধোনি। ২০১৬ সালের অক্টোবরে শেষবার অধিনায়ক ধোনিকে দেখেছিল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট। ২০১৭ সালের শুরুর দিকে আচমকা ওয়ানডে ও টি২০’র নেতৃত্ব থেকে নিজেকে গুটিয়ে নেয়ায় অধিনায়ক করা হয় কোহলিকে। ২০১৪ সালে ধোনির টেস্ট অধিনায়কত্ব ছাড়ার পর এই ব্যাটসম্যানই হয়েছিলেন নতুন টেস্ট অধিনায়ক।

মুখে যাই বলুন, ১৯৯ ম্যাচে অধিনায়কত্ব করায় একটা আক্ষেপ হয়তো ঠিকই ছিল ধোনির মনে। আফগানিস্তানের বিপক্ষে নিয়মরক্ষার ম্যাচে সেটি জুড়ালেন তিনি। উল্লেখ্য, ধোনির নেতৃত্বে ভারত ২০০৭ টি২০ ও ২০১১ ওয়ানডে বিশ্বকাপ জয় করে ভারত।

নির্বাচিত সংবাদ