১৬ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

শুরুতেই বাংলাদেশের ব্যাটিং বিপর্যয়

শুরুতেই বাংলাদেশের ব্যাটিং বিপর্যয়

অনলাইন রিপোর্টার ॥ পাকিস্তানের বিপক্ষে মাত্র ১২ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে ব্যাটিং বিপর্যয়ের মুখোমুখি হয়েছিল বাংলাদেশ। মুশফিকুর রহিম ও মোহাম্মদ মিঠুনের জুটিতে সেটা কাটিয়ে ওঠার চেষ্টায় তারা। ১৩ ওভারে ৩ উইকেটে ৪০ রান বাংলাদেশের।

এই জুটিতে এখন পর্যন্ত বেশি অবদান মুশফিকের। ১৭ রানে অপরাজিত তিনি। অন্য প্রান্তে ১০ রানে খেলছেন মিঠুন।

এশিয়া কাপ ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে আগে ব্যাট করতে নেমে লিটন দাস ও সৌম্য সরকারের জুটিতে ধীর শুরু করে বাংলাদেশ। কিন্তু টানা তিন ওভারে ৩টি উইকেট হারাল তারা। পাকিস্তানের বিপক্ষে বুধবার আবুধাবিতে ৪.২ ওভার শেষে ৩ উইকেটে ১২ রান তাদের।

পাকিস্তানের বিপক্ষে সবশেষ ওয়ানডেতে ১২৭ রানের হার না মানা ইনিংস খেলেছিলেন সৌম্য। ঢাকার সেই অনবদ্য পারফরম্যান্সের সুখস্মৃতি নিয়ে লিটনের সঙ্গে এশিয়া কাপ সুপার ফোরের শেষ ম্যাচে উদ্বোধনী জুটি গড়ার লক্ষ্য ছিল তার। কিন্তু জুনাইদ খানের দ্বিতীয় ওভারে ফখর জামানকে ক্যাচ দেন তিনি। ৫ বল খেলেও রানের খাতা খুলতে পারেননি এই ওপেনার। তৃতীয় ওভারের পঞ্চম বলে আউট তিনি। তারপর ক্রিজে নেমে পরের ওভারের চতুর্থ বলে একটি বাউন্ডারি মেরেছিলেন মুমিনুল হক। কিন্তু পরের বলেই বোল্ড হন মাত্র ৫ রান করে।

দ্বিতীয় উইকেট হারানোর তৃতীয় বলে আরও একটি উইকেট হারায় বাংলাদেশ। জুনাইদ তার তৃতীয় ওভারের দ্বিতীয় বলে লিটনের অফ স্টাম্প উপড়ে ফেলেন। ১৬ বলে ৬ রান করে সাজঘরে ফেরেন এই ওপেনার।

টস জিতে ব্যাটিংয়ে সাকিবহীন বাংলাদেশ

পাকিস্তানের বিপক্ষে এশিয়া কাপে ‘অলিখিত সেমিফাইনালে’ টস জিতে ব্যাটিং নিয়েছে বাংলাদেশ। এই ম্যাচে নেই সাকিব আল হাসান। আঙুলের পুরানো চোট ফিরে আসায় খেলছেন না এই শীর্ষ অলরাউন্ডার।

দলে বেশ কয়েকটি পরিবর্তন আনা হয়েছে। সাকিব ছাড়াও বাদ পড়েছেন নাজমুল হোসেন শান্ত ও নাজমুল ইসলাম অপু। শান্তর জায়গায় ঢুকেছেন সৌম্য সরকার। আর সাকিবের বদলে একাদশে মুমিনুল হক। রুবেল হোসেন এসেছেন অপুর জায়গায়।

পাকিস্তান দলে একটি পরিবর্তন। মোহাম্মদ আমিরের জায়গায় খেলছেন জুনাইদ খান।

বাংলাদেশ একাদশ: মাশরাফি মুর্তজা (অধিনায়ক), লিটন দাস, সৌম্য সরকার, মোহাম্মদ মিঠুন, মুশফিকুর রহিম, মুমিনুল হক, ইমরুল কায়েস, মাহমুদউল্লাহ, মেহেদী হাসান মিরাজ, রুবেল হোসেন, মোস্তাফিজুর রহমান।

পাকিস্তান একাদশ: সরফরাজ আহমেদ (অধিনায়ক), ইমাম উল হক, ফখর জামান, বাবর আজম, শোয়েব মালিক, আসিফ আলী, শাদাব খান, মোহাম্মদ নওয়াজ, হাসান আলী, জুনাইদ খান, শাহীন শাহ আফ্রিদি।