২১ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ধর্ষনের মামলা

বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে  ধর্ষনের মামলা

নিজস্ব সংবাদদাতা, সুনামগঞ্জ ॥ সুনামগঞ্জের বিশ্বম্ভরপুরের উপজেলা চেয়ারম্যান বিএনপি নেতা হারুন অর রশিদের বিরুদ্ধে সেলাই মেশিন দেওয়ার কথা বলে এক নারীকে উপজেলা পরিষদে ডেকে নিয়ে ধর্ষনের অভিযোগে মামলা হয়েছে। বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় বিশ্বম্ভরপুর থানায় চার সন্তানের জননী এই নারী মামলাটি (নম্বর ২০/১৮) দায়ের করেছেন বলে জানিয়েছেন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান।

উপজেলা চেয়ারম্যান হারুন অর রশিদ সরকারি সেলাই মেশিন দেওয়ার কথা বলে ওই নারীকে উপজেলা পরিষদের দুতলায় অবস্থিত তার বিশ্রাম কক্ষে ডেকে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষন করেছেন বলে মামলার এজাহারে অভিযোগ করেন। ঘটনা জানাজানির পর থেকে ফোন বন্ধ করে আত্মগোপনে রয়েছেন উপজেলা চেয়ারম্যান।

পুলিশ জানায়, বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার প্রত্যন্ত একটি গ্রামের বাসিন্দা এক নারীকে দুই মাস পূর্বে সরকারি একটি সেলাই মেশিন দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন উপজেলা চেয়ারম্যান হারুন অর রশিদ। এর পর থেকে তাদের দুজনের মধ্যে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ হতে থাকে। মঙ্গলবার সকালে উপজেলা পরিষদে এসে সেলাই মেশিনটি নিয়ে যাওয়ার জন্য ওই নারীকে বলেন চেয়ারম্যান। বেলা আড়াইটার দিকে সেলাই মেশিন নিতে আসা ওই নারী উপজেলা পরিষদের আসলে তাকে দোতলার বিশ্রামকক্ষে যেতে বলা হয়। সেখানে গেলে ওই নারীকে জোরপূর্বক ধর্ষনের অভিযোগ করা হয় উপজেলা চেয়ারম্যান হারুন অর রশিদের বিরুদ্ধে।

এ ব্যাপারে জানতে বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা চেয়ারম্যান হারুন অর রশিদের সাথে যোগাযোগ করা হলে তার মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

বিশ্বম্ভরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান বলেন, ভিকটিম নারী পুলিশ হেফাজতে রয়েছেন। ধর্ষনের অভিযোগে উপজেলা চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে থানায় একটি মামলা করেছেন তিনি।

তিনি আরও বলেন, বাদির অভিযোগ এফআইরভুক্ত করা হয়েছে। এ ব্যাপারে তদন্তপূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ভিকটিমকে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠানো হবে।