২০ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সকল দলের অংশগ্রহণে নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু নির্বাচন চায় জাতীয় পার্টি

সকল দলের অংশগ্রহণে নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু নির্বাচন চায় জাতীয় পার্টি

স্টাফ রিপোর্টার ॥ জাতীয় পার্টির মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার বলেছেন, সকল দলের অংশ গ্রহণে একটি অবাধ, নিরপেক্ষ, গ্রহণযোগ্য এবং সুষ্ঠু নির্বাচন চায় জাতীয় পার্টি। তিনি বলেন, সাধারণ মানুষের আস্থার শেষ ভরসা জাতীয় পার্টি। তাই আগামী নির্বাচনে জয়ী হয়ে হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের নেতৃত্বে একটি শান্তিময় নতুন বাংলাদেশ গড়বো আমরা।

মঙ্গলবার কাকরাইলস্থ জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে মহাসমাবেশ সফল করার লক্ষ্যে আয়োজিত এক বিশেষ সভায় এসব কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, বিগত সাতাশ বছরে দুটি দল গণতন্ত্রের নামে স্বৈরতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করে দেশের মানুষের উপর নির্যাতন চালিয়েছে। মানুষকে অধিকার বঞ্চিত করেছে, তাই আগামী নির্বাচন জাতীয় পার্টির জন্য সম্ভাবনাময়।

তিনি আরো বলেন, আগামী ২০ অক্টোবর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আয়োজিত মহাসমাবেশ দেশের মানুষকে ইতিবাচক রাজনীতির বার্তা দেবে। উজ্জীবিত জাতীয় পার্টির নেতা-কর্মীরা সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের মহাসমাবেশকে জনসমুদ্রে পরিণত করবে।

গত রবিবার দলের প্রেসিডিয়াম ও সংসদ সদস্যদের সঙ্গে জরুরী বৈঠক করেন এরশাদ। এই বৈঠক থেকে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনের রুপরেখা তুলে ধরা হয়েছে। এছাড়া দলের নানা রকম পরিকল্পনার কথাও তুলে ধরেন এরশাদ। সেইসঙ্গে মহাসমাবেশ করার সিদ্ধান্ত হয় এই বৈঠক থেকেই। সোমবার তিনি দুই দিনের সফরে রংপুর যান। সেখানে এরশাদ বলেন, মহাসমাবেশ থেকে ৩০০ আসনে জাপার প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করা হবে। সব মিলিয়ে বিরোধী দল জাতীয় পার্টির জন্য আসন্ন মহাসমাবেশটি বেশ গুরুত্বপূর্ণ।

মহাসচিব বলেন, ২০ অক্টোবরের সমাবেশে এরশাদ নির্বাচন এবং জোট গঠন নিয়েও কথা বলবেন। বলবেন, দেশ গঠনে তার পরিকল্পনার কথা। দেশের মানুষের জন্য স্বপ্নের কথা বলবেন। দেশের মানুষ চায়, হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের নেতৃত্বে একটি সরকার। কারণ, সাধারন মানুষ মনে করে হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ তার অভিজ্ঞতা দিয়েই শান্তিময় নতুন বাংলাদেশ গড়তে পারবেন। ২০ অক্টোবরের মহাসমাবেশ দেশের রাজনীতিতে নতুন চমক সৃষ্টি করবে।

জাতীয় পার্টির ঐক্য ও সংহতি প্রসঙ্গে রুহুল আমিন হাওলাদার বলেন, প্রেসিডিয়াম সভায় পার্টির শীর্ষ নেতারা এক হয়ে এরশাদকে নির্বাচনের অংশগ্রহণ, প্রার্থী তালিকা চুড়ান্তকরণ এবং জোট গঠনের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়ার ক্ষমতা দিয়েছেন। তিনি বলেন, জাতীয় পার্টিতে বিভেদ বা বিভ্রান্তির সুযোগ নেই। আমরা সবাই হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ আছি।

নির্বাচনের আগে দলকে আরো শক্তিশালী করতে নেতা-কর্মীদের প্রতি আহ্বানও জানান এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার এমপি। সভায় বক্তব্য রাখেন, জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, ঢাকা মহানগর উত্তরের সভাপতি এস.এম ফয়সল চিশতী।

আরো উপস্থিত ছিলেন, প্রেসিডিয়াম সদস্য মীর আবদুস সবুর আসুদ, হাজী সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলন, মোঃ শফিকুল ইসলাম সেন্টু, অধ্যাপক ইকবাল হোসেন রাজু, জহিরুল ইসলাম জহির, আরিফুর রহমান খান, আলমগীর সিকদার লোটন, নুরুল ইসলাম নুরু, সরদার শাহ জাহান, মোঃ এমরান হোসেন মিয়া প্রমুখ।