১৮ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় ও বিচারকার্যে আইনজীবীদের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ : রাষ্ট্রপতি

আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় ও বিচারকার্যে আইনজীবীদের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ : রাষ্ট্রপতি

নিজস্ব সংবাদদাতা, কিশোরগঞ্জ ॥ রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ বলেছেন, আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় ও বিচারকার্যে আইনজীবীরা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারেন। কেননা আইনজীবীরা হচ্ছেন সমাজের শক্তি। আর জনগণের উপর আস্থা রেখে মামলা পরিচালনায় বিচার প্রার্থীদের সাথে সহশীলন আচরণ করতে হবে। এ সময় তিনি জনগণের উকিল হিসেবে সবাই যাতে ন্যায্য বিচার পায় সেভাবেই আইনের সেবা প্রদানের জন্য আইনজীবীদের পরামর্শ দিয়েছেন। মঙ্গলবার দুপুরে রাষ্ট্রপতি জজ কোর্ট প্রাঙ্গণে জেলা আইনজীবী সমিতির দেয়া সংবর্ধনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতায় আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, আইনজীবীরা হচ্ছেন সমাজের বিবেক। উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় তাঁরাও ভূমিকা রাখতে পারেন। রাষ্ট্রপতি যে এলাকার সেখানের আইনবীজীরাও আরো বেশি ভূমিকা পালন করবেন বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। এ সময় আইনমন্ত্রী রাষ্ট্রপতির বর্ণাঢ্য জীবনের ভূয়সী প্রশংসা করে সমিতির বিভিন্ন দাবি দাওয়া প্রসঙ্গে বলেন, আইনজীবীদের জন্য রাষ্ট্রপতির নামে সমিতি একটি বহুতল ভবন নির্মাণের যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে তা সঠিক। এ সময় তিনি ‘আবদুল হামিদ ভবন’ নির্মাণের জন্য এক কোটি টাকা প্রদানের ঘোষনা দেন।

জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ্যাডভোকেট এম.এ রশীদের সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন জেলা ও দায়রা জজ মুক্তিযোদ্ধা মুহাম্মদ মাহবুব উল ইসলাম, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ জিল্লুর রহমান, জেলা বারের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট সহিদুল আলম শহীদ, সহ-সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট রকিবুল হাসান রাকিব প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে সমিতির পক্ষ থেকে দেয়া রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ ও আইনমন্ত্রী আনিসুল হককে ক্রেস্ট ও মানপত্র প্রদান করা হয়। এ সময় রাষ্ট্রপতির বড় ছেলে রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক এমপি, জেলা প্রশাসক মোঃ সারওয়ার মুর্শেদ চৌধুরী, পুলিশ সুপার মোঃ মাশরুকুর রহমান খালেদ বিপিএম, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি কামরুল আহসান শাহজাহান, জেলার পিপি শাহ আজিজুল হক, স্পেশাল পিপি এম. এ আফজল, জেলা বারের সদস্যবৃন্দসহ বিভিন্ন সামরিক, বেসামরিক কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

কিশোরগঞ্জ বারের সদস্য আইনজীবীর বিরুদ্ধে কোনো ঘটনায় মামলা হলে অন্যান্য আইনজীবীরা তাঁর পক্ষে অবস্থান নেন এমনটি উচিত নয় মন্তব্য করে রাষ্ট্রপতি আরও বলেন, শুধু সম্পদশালীরা নয়, দরিদ্র শ্রেণীর লোকেরাও আদালতে মামলার কাজে আসেন। এ জন্য তিনি সমিতির ওকালতনামার কোর্ট ফি কমানোর পরামর্শ দেন।

এ সময় রাষ্ট্রপতি কিশোরগঞ্জে দীর্ঘদিন আইন পেশায় নিয়োজিত থাকার উদাহরণ দিয়ে সিনিয়র আইনজীবীদের বারের সমস্যা ও নতুন আইনজীবীদের সঠিক আইনগত পরামর্শ ও সার্বিক সহযোগিতা করার আহ্বান জানিয়েছেন। রাষ্ট্রপতি আইন পেশায় তাঁকে নিয়ে সহকর্মীদের নানা স্মৃতিচারণ উল্লেখ করে পেশাগত মানন্নোয়নের মাধ্যমে এখানের আইনজীবীরা একসময় সারা দেশে প্রশংসা কুড়াবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন।

দ্বিতীয় মেয়াদে মোঃ আবদুল হামিদ রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হয়ে তিন দিনের সফরে সোমবার কিশোরগঞ্জ শহরে আসেন। সফরের দ্বিতীয় দিন মঙ্গলবার সকালে জজকোর্ট প্রাঙ্গণে রাষ্ট্রপতিকে জেলা আইনজীবী সমিতির দেয়া সংবর্ধনা প্রদান অনুষ্ঠানে যোগ দেন। পরে বিকেলে তিনি কিশোরগঞ্জ সার্কিট হাউজে শহরে বসবাসকারী বেশ কয়েকজন সহকর্মী ও প্রবীণ এবং প্রয়াত ব্যক্তিবর্গের পরিবারের লোকজনের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাত করেন।

আজ বুধবার সকালে তিনি কিশোরগঞ্জে পূর্ণাঙ্গ পাবলিক ভার্সিটি প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে সম্ভাব্য স্থান নির্ধারণের জায়গা পরিদর্শন করতে যাবেন। পরে বিকেলে রাষ্ট্রপতি হেলিকপ্টারযোগে ঢাকার উদ্দেশে কিশোরগঞ্জ ত্যাগ করার কথা রয়েছে।