১১ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

গ্রেনেড হামলার আসামিরা অস্থায়ী আদালতের গারদে

গ্রেনেড হামলার আসামিরা অস্থায়ী আদালতের গারদে

অনলাইন রিপোর্টার ॥ ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট আওয়ামী লীগের সমাবেশে গ্রেনেড হামলা মামলার আসামিদের গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে ঢাকায় আনা হয়েছে।

আজ বুধবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে তাদের আনা হয়। নাজিমউদ্দিন রোডের বিশেষ ট্রাইব্যুনালে মামলার রায় ঘোষণাকালে আসামিদের উপস্থিত রাখার কথা রয়েছে।

এর আগে ভোর ৬টা ৫০ মিনিটে পুলিশের প্রিজন ভ্যানে বাড়তি নিরাপত্তা দিয়ে তাদের কাশিমপুরের কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে ঢাকায় পাঠানো হয়।

গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার ১ ও ২ থেকে আনা হয়েছে ১৪ আসামি। এদের মধ্যে সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর ও আব্দুস সালাম পিন্টুও রয়েছেন। আর কাশিমপুর হাইসিকিউরিটি কারাগার থেকে আনা হয়েছে ১৭ জন আসামিকে।

এ মামলার ৫২ আসামির মধ্যে জীবিত রয়েছেন ৪৯ জন। তার মধ্যে কারাগারে রয়েছেন ৩১ জন। পলাতক রয়েছেন বাকি ১৮ জন, তারা হলেন- তারেক রহমান, হারিছ চৌধুরী, কাজী শাহ মোফাজ্জল হোসেন কায়কোবাদ, এটিএম আমিন, সাইফুল ইসলাম জোয়ার্দার, খান সাঈদ হাসান, ওবায়দুর রহমান, মুফতি শফিকুর রহমান, মুফতি আবদুল হাই, রাতুল বাবু, মোহাম্মদ হানিফ, আবদুল মালেক, শওকত হোসেন, মাওলানা তাজউদ্দিন, ইকবাল হোসেন, মাওলানা আবু বকর, খলিলুর রহমান ও জাহাঙ্গীর আলম।

এ হামলায় সেদিন ভাগ্যক্রমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বেঁচে গেলেও তাঁর দলের ২৪ জন নেতা-কর্মীর প্রাণ যায়। ওই হামলায় দলীয় কর্মী, সাংবাদিক, পুলিশসহ আরও কয়েক শতাধিক মানুষ আহত হয়। ভয়াবহ এ হামলার ঘটনায় হত্যা ও বিস্ফোরক আইনে করা দুটি মামলার বিচারকাজ শেষে আজ রায় ঘোষণার জন্য দিন ধার্য রয়েছে।