১১ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ঘূর্ণিঝড় তিতলির তাণ্ডবে ভারতে নিহত ৮

ঘূর্ণিঝড় তিতলির তাণ্ডবে ভারতে নিহত ৮

অনলাইন ডেস্ক ॥ অনুমানের চেয়ে প্রায় তিনগুণ শক্তিতে ভারতের উড়িষ্যা ও অন্ধ্রপ্রদেশ উপকূলে আঘাত হানল ঘূর্ণিঝড় ‘তিতলি’। তিতলির প্রভাবে এখন পর্যন্ত আটজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। অন্ধ্রপ্রদেশের শ্রীকাকুলাম ও বিজয়নগরমে ‘তিতলি’র দাপটে মৃত্যু হয়েছে এই আটজনের।

এদিকে উড়িষ্যার গোপালপুরের তিন জেলে সমুদ্রে নিখোঁজ বলে জানা গেছে। সমুদ্র উত্তাল থাকায় এখন সন্ধানকাজও চালানো যাচ্ছে না।

ঘূর্ণিঝড় তিতলির বিধ্বংসী তাণ্ডবের পর যত সময় গড়াচ্ছে ততই বাড়ছে মৃতের সংখ্যা। বৃহস্পতিবার ভোরে উড়িষ্যা ও অন্ধ্র উপকূলে ঘূর্ণিঝড়টি আঘাত হানার পর দুজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়। পরে সেই সংখ্যা ক্রমেই বেড়েছে। এখনো তিতলির প্রভাবে মৃতের সংখ্যা বাড়তে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। তিতলির তাণ্ডবে দুই রাজ্যের উপকূলবর্তী এলাকায় আহত হয়েছে ৫০ জনেরও বেশি মানুষ।

মাত্র ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তিতলির তাণ্ডবে অন্ধ্রপ্রদেশ রাজ্যে প্রায় তিন হাজার একর বনাঞ্চল নষ্ট হয়ে গেছে। কয়েক হাজার জমির ফসল ধুলিস্মাৎ হয়ে গেছে। অন্ধ্রপ্রদেশের বিজয়নগরম জেলার জেলা শাসক হরি জয়সওয়াল জানিয়েছেন, সময়ের সঙ্গে সঙ্গে ক্ষতির পরিমাণ আরো বাড়বে। বাড়তে পারে প্রাণহানির সংখ্যাও।

অন্ধ্রপ্রদেশের শ্রীকাকুলাম জেলার প্রশাসনিক প্রধান কে ধনঞ্জয় রেড্ডি জানিয়েছেন, জেলাজুড়ে ছয় থেকে সাত হাজার বিদ্যুতের খুঁটি উপড়ে পড়েছে। গোটা জেলাতে প্রায় চার হাজার মানুষ বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন অবস্থায় বসবাস করছে।

বৃহস্পতিবার বিকালে অন্ধ্র ও উড়িষ্যা উপকূলে প্রায় ১৬৫ কিলোমিটার বেগে তাণ্ডব চালায় তিতলি। তীব্র ঝড়ের সঙ্গে চলছে তীব্র বৃষ্টি। উড়িষ্যা ও অন্ধ্রপ্রদেশের একাধিক জায়গায় বড় বড় গাছ উপড়ে পড়ে রাস্তাঘাট বন্ধ হয়ে গেছে। উড়িষ্যার গোপালপুরে ভেঙে পড়েছে বহু কাঁচা ঘরবাড়ি। ঝড়ের দাপটে টেলিফোন পরিষেবা বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে অন্ধ্রপ্রদেশ ও উড়িষ্যায়। ওই দুই রাজ্যের উপকূলবর্তী এলাকা থেকে মানুষজনকে দূরে থাকতে বলা হয়েছে।

উড়িষ্যায় গৃহহীনদের নিরাপদ আশ্রয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। গর্ভবতী নারীদের বাড়ি থেকে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। গোটা পরিস্থিতির ওপর উড়িষ্যার মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়ক নজরদারি করছেন বলে জানিয়েছেন। তিতলির তাণ্ডব না থামায় দুই রাজ্যের উপকূলবর্তী এলাকায় এখনো উদ্ধারকারীরা উদ্ধারের কাজে হাতই দিতে পারেননি।

এদিকে উড়িষ্যা ও অন্ধ্রে তাণ্ডব চালানোর পর আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে পশ্চিমবঙ্গে তিতলির রেশ আছড়ে পড়তে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর। তিতলির তাণ্ডব থেকে রক্ষা পেতে এরইমধ্যে পশ্চিমবঙ্গের উপকূলবর্তী জেলাহুলোকে সতর্ক করা হয়েছে।