২১ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কাল পদ্মা সেতুর অগ্রগতি পরিদর্শনে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব সংবাদদাতা, মাদারীপুর, ১২ অক্টোবর ॥ দক্ষিণাঞ্চলবাসীর স্বপ্ন বাস্তবায়নের পথে এক ধাপ এগিয়েছে। এরই মধ্যে বহুল আলোচিত পদ্মা সেতুর ৬০ ভাগ কাজ শেষ হয়েছে। রবিবার সেসব কাজের উদ্বোধন করতে পদ্মাপাড়ে আসছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ঘুরে দেখবেন কাজের মান আর অগ্রগতি। এছাড়া সুধী সমাবেশ আর জনসভায় বক্তব্য রাখবেন তিনি। এতে পদ্মাপাড়ের জেলা মুন্সীগঞ্জ, শরীয়তপুর ও মাদারীপুরে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মী এবং সাধারণ মানুষের মধ্যে দেখা দিয়েছে প্রাণচাঞ্চল্য।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, নানা ঘটনার অবসান ঘটিয়ে নিজের দেশের টাকায় নির্মিত হচ্ছে বহুমুখী পদ্মা সেতু। সংযোগ সড়ক, রেললাইন প্রকল্প আর ছয় লেনের সড়ক নির্মাণের কাজ এগিয়ে চলছে পদ্মা সেতুকে ঘিরে। এরই মধ্যে মূল পদ্মা সেতুর ৬০ ভাগ কাজ সম্পন্ন হয়েছে। সেসব কাজ পরিদর্শন ও উদ্বোধনের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মুন্সীগঞ্জ, শরীয়তপুর ও মাদারীপুরে নানা কর্মসূচীতে যোগ দিতে আসছেন। এ সময় তিনি সেতু প্রকল্পের সার্বিক অগ্রগতি, নদী শাসন সংলগ্ন তীর প্রতিরক্ষামূলক কাজের উদ্বোধনসহ ৮ কাজের পরিদর্শন করবেন।

মাদারীপুর জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রবিবার বেলা ১১টায় মাওয়া প্রান্তের পদ্মা সেতুর নামফলক উন্মোচন, মহাসড়কের ঢাকা-মাওয়া অংশের উদ্বোধন, পদ্মা রেল সংযোগ প্রকল্পের নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করবেন। পরে তিনি মাওয়ার টোল প্লাজার সামনে সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখবেন। দুপুর সোয়া ১২টার দিকে শরীয়তপুরের জাজিরা প্রান্তে পদ্মা সেতু রেল সংযোগ প্রকল্পের নির্মাণ কাজের উদ্বোধন, পদ্মা বহুমুখী সেতু প্রকল্পের সার্বিক অগ্রগতি পরিদর্শন, মূল নদী শাসন কাজ সংলগ্ন স্থায়ী নদী তীর প্রতিরক্ষামূলক কাজের উদ্বোধন, পদ্মা সেতুর জাজিরা প্রান্তের নামফলক উন্মোচন এবং পাচ্চর-ভাঙ্গা ১ হাজার ৩৯০ মিটার ছয় লেন সড়কের কাজের উদ্বোধন করবেন। এরপর বিকেল ৩টায় মাদারীপুরের শিবচর কাঁঠালবাড়ি ঘাট এলাকায় আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় যোগদান করবেন।

মাদারীপুর জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ জানান, প্রধানমন্ত্রীর এই জনসভাকে ঘিরে নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা কাজ করছে। জনগণের দাবি, পদ্মা সেতুর এই অগ্রগতিতে স্বপ্ন পূরণের পথে একধাপ এগিয়েছে। দলীয় নেত্রীকে শুভেচ্ছা জানাতে আওয়ামী লীগ দলীয় নেতাকর্মীরা সভা-সমাবেশ করছেন। বিভিন্ন ইউনিয়ন, পৌরসভা ও আশপাশের জেলা-উপজেলা থেকে লক্ষাধিক লোক জমায়েত হবে বলে নেতাকর্মীরা জানান।

শরীয়তপুরেও আনন্দের বন্যা ॥ এদিকে নিজস্ব সংবাদদাতা জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পদ্মা সেতুর শরীয়তপুরের জাজিরা পাড়ে নাওডোবায় টোলপ্লাজার পাশে পদ্মা সেতুর নামফলক উদ্বোধন করবেন রবিবার। প্রধানমন্ত্রীর আগমনকে কেন্দ্র করে পদ্মা পাড়ে জাজিরার নাওডোবাসহ শরীয়তপুরে সর্বত্র বইছে আনন্দের বন্যা। বিশ্ববাসীকে তাক লাগিয়ে নিজস্ব অর্থায়নে ইতোমধ্যে পদ্মা সেতুর ৬০ ভাগ নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হওয়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সাহসী কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানাতে ব্যাপক প্রস্তুতি নিচ্ছে শরীয়তপুরের মানুষ। শরীয়তপুর থেকে জাজিরার নাওডোবা পর্যন্ত ৩০ কিলোমিটার রাস্তাসহ শরীয়তপুরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়কে সর্বত্র স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনসমূহের নির্মিত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকা-ের ছবিসহ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি সংবলিত অসংখ্য ব্যানার-ফেস্টুনে ছেয়ে গেছে। এছাড়াও তার আগমন উপলক্ষে বিভিন্ন রাস্তার মোড়ে মোড়ে নির্মাণ করা হয়েছে শত শত সুদৃশ্য তোরণ। শরীয়তপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অনল কুমার দে বলেন, রবিবার শিবচরের কাঁঠালবাড়ি ফেরিঘাটে প্রধানমন্ত্রীর জনসভাকে কেন্দ্র করে দলীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা বিরাজ করছে। প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য শুনার জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছে এ অঞ্চলের হাজার হাজার মানুষ।