১৪ নভেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মোবাইলে ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে বিল পরিশোধ বেড়েছে ৩৬ শতাংশ

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে ইউটিলিটি বিল পরিশোধ ক্রমে বাড়ছে। এ সেবায় ব্যাংকে যাওয়া, লাইনে দাঁড়ানো প্রভৃতির ঝক্কি নেই। তাছাড়া দিনের যে কোন সময় ইচ্ছে করলেই বিল পরিশোধ করা যায়। এসব কারণে ঝামেলামুক্ত এ সেবায় ঝুঁকছে সাধারণ মানুষ। মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস সংক্রান্ত বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিবেদন বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, আগস্ট মাসে মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে ইউটিলিটি বিল পরিশোধ করা হয়েছে ৩৭৩ কোটি টাকা, যা জুলাই মাসের তুলনায় ৩৬ শতাংশ বেশি। জুলাই মাসে ইউটিলি বিল পরিশোধের পরিমাণ ছিল ২৭৩ কোটি টাকার মতো।

ইউটিলিটি বিলের মধ্যে বিদ্যুত, গ্যাস ও পানি অন্তর্ভুক্ত। প্রতিবেদন অনুসারে আগস্ট মাসে মোবাইল ব্যাংকিং চ্যানেলে সর্বমোট লেনদেনের পরিমাণ ছিল ৩৪ হাজার ৩৯৯ কোটি টাকা, যা জুলাই মাসের মোট লেনদেনের তুলনায় ১১ দশমিক ৭ শতাংশ বেশি। জুলাই মাসে মোট লেনদেনের পরিমাণ ছিল ৩০ হাজার ৮শ কোটি টাকা। বাংলাদেশ ব্যাংক এবং মোবাইল ব্যাংকিং প্রতিষ্ঠানগুলোর সূত্রে জানা যায়, সম্প্রতি বিকাশের মাধ্যমে পল্লী বিদ্যুতসহ ডেসকো ও নেসকোর বিল পরিশোধ চালু হওয়ায় মোবাইল ব্যাংকিং চ্যানেলে বিদ্যুত বিল পরিশোধ বাড়ছে। বিশেষ করে জুন মাসে বিকাশের মাধ্যমে পল্লী বিদ্যুতের বিল পরিশোধ সেবা চালুর পরে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে।

এর ইতিবাচক প্রভাব পড়েছে আগস্ট মাসের ইউটিলিটি বিল পরিশোধের ক্ষেত্রে। সূত্রে জানা যায়, ঝামেলা এড়িয়ে, লাইনে না দাঁড়িয়ে, ব্যাংক বা পল্লী বিদ্যুতের অফিসে না গিয়ে, যে কোন জায়গা থেকে যে কোন সময় বিদ্যুত বিল পরিশোধের সুবিধার কারণেই সারাদেশের পল্লীবিদ্যুতের গ্রাহকরা বিকাশের মাধ্যমে বিল পরিশোধে আগ্রহী হয়ে উঠেছেন। এছাড়া এতে তাদের খরচও অনেক সাশ্রয় হচ্ছে, কারণ বিল জমা দিতে দূরে কোথাও যেতে হচ্ছে না। কেবল বিল পরিশোধই নয়, পল্লী বিদ্যুতের গ্রাহকরা বিদ্যুত বিলের পরিমাণও তাদের বিকাশ এ্যাকাউন্টের মাধ্যমে চেক করতে পারছেন।